দেশীয় অস্ত্রসহ ঝালকাঠি জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আটক 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বরিশাল
উদ্ধার হওয়া দেশীয় অস্ত্রের সঙ্গে জরিতদের আটক করা হয়, ছবি: সংগৃহীত

উদ্ধার হওয়া দেশীয় অস্ত্রের সঙ্গে জরিতদের আটক করা হয়, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

চাঁদাবাজি ও অস্ত্র মামলায় ঝালকাঠি জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতিসহ ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) গভীর রাতে শহরের ডাক্তারপট্টি এলাকায় ছাত্রলীগ নেতা মিলনের বাসা এবং শহরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়। এ সময় সাবেক এ ছাত্রলীগ নেতার বাসা থেকে ১৫টি দেশীয় ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হাদিসুর রহমান মিলন, ঝালকাঠি সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি তরিকুল ইসলাম অপু, মামুন খান, সাইফুল ইসলাম, পলাশ দাস ও মামুনুর রশিদ ওরফে কঠিন মামুন।

এদের মধ্যে অস্ত্র মামলায় হাদিসুর রহমান মিলন, তরিকুল ইসলাম অপু, মামুন খান ও সাইফুল ইসলামকে আসামি করা হয়েছে। এছাড়া চাঁদাবাজির মামলায় আসামি করা হয়েছে প্রত্যেককে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ঝালকাঠি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. খলিলুর রহমান মামলার বরাদ দিয়ে বার্তা২৪.কমকে জানান, ‘জেলা শহরের বিকনা এলাকার কামাল হোসেন হাওলাদার নামের এক ঠিকাদারের কাছে মাসিক ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে ছাত্রলীগ নেতা মিলন। এ ঘটনাটি ঠিকাদার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানালে ক্ষিপ্ত হয়ে মিলন ও তার লোকজন গত ৫ জানুয়ারি কামাল হোসেনকে মারধর করে। পরে কামাল হোসেন এ ঘটনায় মিলনসহ ৭ জনকে অভিযুক্ত করে সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করে।

ওই অভিযোগের ভিত্তিতে ছাত্রলীগ নেতা মিলনের বাসায় অভিযান চালিয়ে ১১টি দেশীয় ধারালো রামদা ও ৪টি জিআই পাইপ উদ্ধার করা হয়। এ সময় মিলনসহ ৪ জনকে আটক করা হয়। পরে শহরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে অপর ২জন আটক করে পুলিশ।

ঠিকাদারের করা অভিযোগটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে। অপরদিকে পুলিশ বাদী হয়ে অস্ত্র মামলাটি দায়ের করেছে।

আপনার মতামত লিখুন :