সিংড়ায় ত্রাণের চাল লুটছে নেতা-ডিলার, ভুগছে গরিব



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নাটোর
ত্রাণের চাল লুটছে নেতা-ডিলার, ছবি: বার্তা২৪.কম

ত্রাণের চাল লুটছে নেতা-ডিলার, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নিম্ন আয়ের মানুষদের খাদ্য সহায়তায় সারা দেশের ন্যায় নাটোরের সিংড়াতেও ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি শুরু হয়েছিল। শুরুর দুদিনের মাথায় চাল বিক্রিতে নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠে। পরপর দুই দিন সুকাশ ইউনিয়ন থেকে ৬১ বস্তা চাল উদ্ধার করেছে প্রশাসন। ন্যায্যমূল্যের এসব চাল ডিলারদের মাধ্যমে জনপ্রতিনিধি ও ক্ষমতাসীন দলের ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাদের মধ্যস্থতায় বিক্রির জন্য যাচ্ছিলো পার্শ্ববর্তী জেলায়। এসব ঘটনায় জড়িত থাকায় দুই দিনে স্থানীয় ইউপি সদস্য, আওয়ামী লীগ নেতা, চাল ডিলার, ক্রেতাসহ ৫ জনকে গ্রেফতার, কারাদণ্ড ও লাইসেন্স বাতিলসহ খাদ্য সহায়তার সকল কর্মসুচি বাতিল করা হয়েছে।

জানা যায়, গত ৭ এপ্রিল স্থানীয় ক্লাবে ১৩ বস্তা চাল মজুদ ও বগুড়ায় বিক্রির সময় সুকাশ ইউনিয়নের বোয়ালিয়া বাজার থেকে ইউপি সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা শাহীন শাহ, চাল ডিলার লুৎফর রহমান ও বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার কৈডালা বাজারের ব্যবসায়ী গোলাম হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়। পরদিন একই ইউনিয়নের শারুপাড়া গ্রাম থেকে আরও ৪৮ বস্তা চালসহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান-প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ও ডিলার আওয়াল হোসেন স্বপন এবং চাল ক্রেতা রহমত আলীকে আটক করে এক মাসের দণ্ডাদেশ দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়া তার ডিলারশিপ বাতিল করা হয়েছে।

যারা এখনও সরকারি খাদ্য সহায়তা পাননি তারা ১০ টাকা কেজির চাল বিক্রি শুরু হওয়ায় কিছুটা স্বস্তিতে ছিলেন । আজ থেকে চাল বিক্রি বন্ধ হওয়ায় বিপাকে পড়েছেন তারা। সপ্তাহে রোববার, মঙ্গলবার ও বৃহষ্পতিবার চাল বিক্রির দিন নির্ধারিত হলেও আজ অনেকেই চাল নিতে এসে ফিরে গেছেন। এছাড়া সিংড়ার বেশ কিছু প্রত্যন্ত এলাকায় এখনও পৌঁছেনি খাদ্য সহায়তা।

ইতালি ইউনিয়নের তাজপুর গ্রামের জেহের আলী ও ছাতারদিঘী ইউনিয়নের সর্য্য বেওয়া জানান, নিজেদের যা আছে, তাই একটু একটু করে খেয়ে দিনযাপন করছেন। এখন পর্যন্ত কোনো খাদ্য সহায়তা পাননি।

রিকশা চালক বছের আলী বলেন, মানুষ কম, ভাড়া নাই। চাল বিক্রিও বন্ধ। নেতারা নিজেরাই চাল লুট করে। নেতাদের বাদ রেখে চাল দিলেই গরিবরা চাল পাবে।

 ত্রাণের চাল লুটছে নেতা-ডিলার
ত্রাণের চাল পাচ্ছেন না গরিবরা

হাতিয়ান্দহ ইউনিয়নের আঁচলকোট গ্রামের আনেছা বেগম বলেন, যারা খাবার দেন তারা পাড়ার উপর এসেই দিয়ে চলে যান। গ্রামের ভেতর আসেন না। তাদেরও পাই না, খাবারও পাই না।

খাদ্য সুবিধাভোগী বাছাইয়ে ওয়ার্ড পর্যায়ে জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামী লীগ নেতাদের বাদ দিয়ে ইউনিয়ন পর্যায়ের আওয়ামী লীগ নেতাদের সম্পৃক্ত করা হচ্ছে। এতে নির্দিষ্ট এলাকার মানুষকে বঞ্চিত করে চাল আত্মসাৎ প্রবণতা কমবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

চামারী ইউপি চেয়ারম্যান রশিদুল ইসলাম মৃধা ও সুকাশ ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ জানান, খাদ্য সহায়তা কর্মসূচি বাতিল হওয়ার পর নতুন করে দুই ইউনিয়নে সাড়ে তিন হাজার মানুষের তালিকা করার কাজ শুরু হবে।

সিংড়া পৌর মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, পৌর এলাকায় শতভাগ স্বচ্ছতার সাথে চাল বিক্রি ও সহায়তা কর্যক্রম পরিচালিত হচ্ছিলো। এখনো কোনো পরিবারের প্রয়োজন হলে আমি নিজে খাবার পৌঁছে দিচ্ছি এবং দেবো।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরিন বানু বলেন, ডিলাররা যাতে কোনো রকমের কারসাজি করতে না পারে এবং প্রকৃত গরিবরা যেনো এবার সহায়তা পায় সেদিকে সর্বাধিক গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। তাই নতুন তালিকা প্রস্তত করতে কিছুটা সময় লাগছে।

   

ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এক ব্যক্তিকে গলা কেটে হত্যা



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নোয়াখালী
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নোয়াখালীর হাতিয়ার ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে মো. সুলতান (৫৫) নামে এক রোহিঙ্গা নাগরিককে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তবে পুলিশ তাৎক্ষণিক এ হত্যাকাণ্ডের কোনো কারণ জানাতে পারেনি।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) দুপুর ২টার দিকে ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ১১৬নং ক্লাস্টার থেকে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে। এর আগে, সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১২টার মধ্যে ১১৬নং ক্লাস্টারে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত সুলতান ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ৭৮নং ক্লাস্টারের মৃত মো.আব্দুল আলীর ছেলে।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেন ভাসানচর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নুর হোসেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সুলতান ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ৭৮নং ক্লাস্টারে বসবাস করতেন। ১১৬নং ক্লাস্টারের খালি জায়গায় তিনি সবজি চাষ করতেন। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬টার তার ছেলে ১১৬নং ক্লাস্টারে বাবাকে সকালের নাশতা দিয়ে যান। এরপর দুপুর সোয়া ১টার দিকে একই স্থানে তার ছেলে বাবার জন্য দুপুরের ভাত নিয়ে যান। ভাত নিয়ে গিয়ে বাবাকে দেখতে না পেয়ে তখন ছেলে তার বাবাকে ১১৬নং ক্লাস্টারে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুজি শুরু করেন। এক পর্যায়ে সে তার বাবার গলা কাটা লাশ পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার দিলে অন্য ক্লাস্টারের লোকজন এগিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে।

এসআই নুর হোসেন আরও বলেন, পিছনের দিক থেকে গলা কেটে তাকে হত্যা করা হয়। শুক্রবার সকালে মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। পুলিশ হত্যার রহস্য উদঘাটনে জোর চেষ্টা চালাচ্ছে।

;

চট্টগ্রামে পত্রিকা সম্পাদকের বাড়িতে ডাকাতি, নগদ টাকা-স্বর্ণালংকার লুট



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলায় একটি আঞ্চলিক পত্রিকার সম্পাদকের বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এসময় ডাকাত দল ওই বাড়ি থেকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকারসহ ২ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুটে করে নিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) রাতে উপজেলার মাদার্শা এলাকায় দৈনিক চট্টগ্রাম প্রতিদিনের সম্পাদক হোসাইন তৌফিক ইফতিখারের বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

তৌফিক ইফতিখার জানান, আমি দুই দিন আগে বাড়ি থেকে শহরে চলে আসি। বাড়িতে শুধু কেয়ারটেকার ছিল। ঘটনার দিন রাত আড়াইটার দিকে বাড়ির সীমানা প্রাচীর টপকে জানালার গ্রিল কেটে ৬ জনের মুখোশধারী সশস্ত্র ডাকাত দল ঘরে প্রবেশ করে।

ডাকাতরা ঘরে প্রবেশের পর প্রথমে বাড়ির কেয়ারটেকারকে মারধরের পর হাত-পা বেঁধে ফেলে রাখে। এরপর ঘরের প্রত্যেকটি কক্ষের জিনিসপত্র তছনছ করে লুটপাট চালায়। এসময় ডাকাতরা নগদ ৪০ হাজার টাকা, ১ ভরি স্বর্ণ ও মূল্যবান জিনিসপত্রসহ ২ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুটে নেয়। এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ প্রিটন সরকার জানান, ঘরে কেয়ারটেকার ছাড়া কেউ না থাকায় সংঘবদ্ধ চোরের দল জানালা কেটে ঘরে প্রবেশ করে ১ ভরি স্বর্ণ ও সামান্য কিছু নগদ টাকা নিয়ে গেছে বলে শুনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ঘটনায় জড়িতদেরকে চিহ্নিত করে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এছাড়া এ ঘটনায় অভিযোগ দিলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

;

হুন্ডি ব্যবসায়ীদরে দৌরত্ম্য প্রতিরোধে সুপারিশ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

 

হুন্ডি ব্যবসায়ীদরে দৌরত্ম্য প্রতিরোধে ও বৈধ পথে রেমিটেন্সে বাড়াতে সচেতনার পদক্ষেপ নিতে সুপারশি করেছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক র্কমসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।

বৃহস্পতবিার (১৮ এপ্রলি) জাতীয় সংসদ ভবনে দ্বাদশ জাতীয় সংসদে প্রথম বৈঠক এই সিদ্ধান্ত হয়।

বৈঠকে সভাপতিত্ব করনে ইমরান আহমদ এমপি। কমিটির সদস্য আব্দুল মোতালবে, মহিউদ্দিন আহম্মেদ, মো. মাজহারুল ইসলাম, মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লা এবং শাম্মী আহমদে বৈঠকে অংশগ্রহণ করনে।

বৈঠকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়রে কার্যক্রম সর্ম্পকে উপস্থাপন ও বর্তমানে বিদেশে জনশক্তি প্রেরণের হার এবং রেমিটেন্সে প্রবাহ বিষয়ে প্রতিবেদনসহ বিস্তারিত আলোচনা হয়।

বৈঠকে বিদেশে কর্মরত জনবল বৃদ্ধির জন্য বায়ারসহ সংশ্লিষ্টদের সাথে আলোচনা চলমান রয়েছে বলে জানানো হয়। হুন্ডি ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম্য প্রতিরোধে করণীয় এবং বৈধপথে রেমিটেন্স প্ররেণে সচেতনতা বৃদ্ধির পদক্ষপে গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

এছাড়া, বিদেশগামী জনবলকে সময়োপযোগী প্রশিক্ষণ প্রদান, লোন প্রাপ্তিতে সহায়তা এবং বিদেশে শ্রমিক মৃত্যুজনিত সমস্যা নিরসনে জন্য র্সবােচ্চ সুবিধা নিশ্চিত করারও সুপারশি করা হয়।

বৈঠকে বিদেশে জনশক্তি প্রেরণে নতুন নতুন শ্রমবাজার অভিবাসন সংক্রান্ত নীতিমালা অনুযায়ী বিশ্বের সকল শ্রম চাহদিা দেশে যুুক্তি সংগত অভিবাসন ব্যয়ে জনশক্তি উদ্যোগ গ্রহণের অনুরোধ করা হয়।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব, জনশক্তি র্কমসংস্থান ও প্রশিক্ষণ বুর‍্যে এর মহাপরিচালক, বিভিন্ন বিভাগ ও সংস্থা প্রধানসহ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

;

প্রত্যেকের উচিত শেখ হাসিনাকে সহায়তা করা: গণপূর্ত মন্ত্রী



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, মানিকগঞ্জ
ছবি: বার্তা ২৪.কম

ছবি: বার্তা ২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী র.আ.ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যেমন তার লিডারশিপের মাধ্যমে একটি পরাধীন দেশকে স্বাধীন করে দিয়েছেন, ঠিক তেমনি তার কন্যা শেখ হাসিনা দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। যিনি এই দেশটাকে যেভাবে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন, আমাদের প্রত্যেকের উচিত তাকে সহায়তা করা।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) দুপুরে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার জাগীর ইউনিয়নের ম্যাক্স ইন্ডাস্ট্রির এএসি ব্লক এন্ড প্যানেলস কারখানা উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমরা এখন অনেক ভালো অবস্থানে দাঁড়িয়ে আছি। কি ছিলো পাকিস্তানের আমলে? শূন্য থেকে আজকে এই অবস্থানে এসেছি। এ অবস্থানে আসার পেছনে একটি মাত্র কারণ জনগণের সাথে সরাসরি সম্পৃক্ততা ও গুড লিডারশিপ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নবীরুল ইসলাম, রাজউকের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল সিদ্দিকুর রহমান(অবঃ), হাউজিং এন্ড বিল্ডিং রিসার্চ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক আশরাফুল আলম, গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মোহাম্মদ শামীম আখতার, ম্যাক্স ইন্ডাস্ট্রির চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার গোলাম মোহাম্মদ আলমঙ্গীর, মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক রেহানা আখতার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুজন সরকার।

;