আশুলিয়ায় পুকুরে ভাসছে নারী শ্রমিকের মরদেহ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সাভার (ঢাকা)
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সাভারের আশুলিয়ায় একটি পুকুরে রেবেকা (৩৩) নামে এক পোশাক শ্রমিকের মরদেহ ভাসতে দেখে থানায় খবর দিয়েছে এলাকাবাসী।

রোববার (২৮ জুন) বিকেলে আশুলিয়ার ধলপুর হাবুডাঙ্গা হ্যাচারীর মোড় এলাকার একটি পুকরে তার মরদেহ ভাসতে দেখে এলাকাবাসী।

রেবেকা মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানার মুন্সিকান্দি গ্রামের নবু শেখের মেয়ে। তিনি স্থানীয় ডেকো নামে একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন।

মৃত রেবেকার মেয়ে মুন্নি (১২) জানায়, তার বাবা মফিজুল ফেরি করে বিভিন্ন এলাকায় লুঙ্গি বিক্রি করতো। তিনি ঢাকার মিরপুরে থাকতেন। রেবেকার কাছে সহজে আসতো না। গত ১ সপ্তাহ আগে রেবেকা মিরপুর থেকে মফিজুলকে ধলপুর হাবুডাঙ্গা হ্যাচারীর মোড়ে ডেকে আনে। পরে পারিবারিক কলহে জড়িয়ে মফিজুল আবার চলে যায়। গতকাল শনিবার রাত ৯টার দিকে রেবেকা আবার তার স্বামী মফিজুলের খোঁজে গেলে আর ফিরে আসে না। পরে আজ বিকেলে তাদের ভাড়া বাসার সামনের একটি পুকুরে রেবেকার মরদেহ ভাসতে দেখে এলাকাবাসী। রেবেকার মেয়ে মুন্নির দাবি তার বাবায় তার মাকে হত্যা করেছে। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী মফিজুল পলাতক রয়েছে।

আশুলিয়া থানার ডিউটি অফিসার জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপ-পরিদর্শক এমদাদকে পাঠানো হয়েছে।

   

বার্তা২৪.কমে প্রতিবেদন: সেই অর্পিতার অস্ত্রোপচারের টাকা দিলেন ডিসি



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম ব্যুরো
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

অসুস্থ মেয়ে অর্পিতা দাশের অস্ত্রোপচারের জন্য বহু কষ্টে ৫০ হাজার টাকা জমিয়েছিলেন মা সুগন্ধা দাশ। যত্ন করে সেই টাকাটা রেখেছিলেন আলমারির ড্রয়ারে। কিন্তু একদিন আগে আগুনে অন্য সবকিছুর সঙ্গে পুড়ে ছাই হয়ে যায় সেই টাকাও। এতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মেয়ের অস্ত্রোপচার কীভাবে করবেন, সেই চিন্তায় পোড়া ঘরের সামনে কেঁদেই চলেছিলেন চল্লিশোর্ধ্ব এই স্বামীহারা নারী। মায়ের সেই দুঃখের গল্প তুলে ধরেছিল বার্তা২৪.কম।

সেই প্রতিবেদনটি ছড়িয়ে পড়তেই নানা দিক থেকে অর্পিতাকে সহযোগিতা করতে অনেকেই এগিয়ে আসতে চান। এই প্রতিবেদককে ফোন করেও বহুজন অর্পিতার পাশে দাঁড়ানোর কথা বলেন। তবে অর্পিতার আপাতত আর সহযোগিতা লাগছে না। কেননা, পুড়ে যাওয়া ৫০ হাজার টাকা অর্পিতার মায়ের হাতে তুলে দিয়েছেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান। পাশাপাশি তিনি অর্পিতার চিকিৎসার বিষয়েও উদ্যোগ নেবেন বলে তার মাকে আশ্বস্ত করেছেন।

জানতে চাইলে জেলা প্রশাসক বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘বন্দর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মেয়ের অস্ত্রোপচারের জন্য অনেক কষ্টে ৫০ হাজার টাকা জমিয়েছিলেন মা সুগন্ধা দাশ। কিন্তু আগুনে সেই টাকাটা পুড়ে যায়। আমরা গণমাধ্যমে খবর দেখার পর এই মাকে মেয়ের চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ৫০ হাজার টাকা তুলে দিয়েছি। পাশাপাশি আমি বন্দর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও কথা বলব, যাতে কম খরচে কীভাবে অর্পিতার চিকিৎসার ব্যবস্থা করা যায়।’

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে ফিরিঙ্গিবাজার ওয়ার্ডের টেক পাড়া ও এয়াকুব নগরে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যান জেলা প্রশাসক। এসময় তিনি অর্পিতার মাসহ ক্ষতিগ্রস্ত জনসাধারণের মাঝে মানবিক সহায়তা তুলে দেন।

২০১৭ সালে স্বামী পরিমল দাশকে হারান সুগন্ধা। এরপর থেকে ছেলে ও মেয়ের কথা ভেবে আর বিয়েমুখী হননি এই নারী। বড় ছেলের বয়স মাত্রই ২০। তিনি অবশ্য এখনো তেমন কিছু করেন না। আর ১৬ বছরের মেয়ে অর্পিতা নবম শ্রেণিতে পড়ছে পাথরঘাটা বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে। বন্দর হাসপাতালে দৈনন্দিন ভিত্তিতে কাজ করা মায়ের আয়েই চলছিল অর্পিতাদের সংসার। এর মধ্যে অর্পিতা অসুস্থ হয়ে পড়ায় আরও বিপাকে পড়েছিলেন মা। তবে জেলা প্রশাসকের সহায়তা পাওয়ার পর আপাতত তার সেই দুশ্চিন্তা কমে গেছে।

জেলা প্রশাসক অর্থ সহায়তা তুলে দেওয়ার সময় তাই আবেগ ধরে রাখতে পারেননি সুগন্ধা দাশ। তিনি এ সময় কেঁদে ফেলেন। সুগন্ধা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধামন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘অনেক কষ্টে মেয়ের অস্ত্রোপচারের জন্য টাকাটা জমিয়েছিলাম। কিন্তু আগুন আমার সবকিছুই ছাই করে দিয়েছে। এখন আমাকে ডিসি মহোদয় পুড়ে যাওয়া ৫০ হাজার টাকা সহায়তা করেছেন। এ জন্য প্রধানমন্ত্রী ও ডিসি মহোদয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা। আর যে সাংবাদিক ভাইয়েরা আমার দুর্দশার বিষয়টি সবার সামনে তুলে ধরেছেন তাদের ঋণও শোধ করতে পারব না।’

;

উচ্চশিক্ষা বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ হওয়া জরুরি: রাষ্ট্রপতি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন বলেছেন, উচ্চশিক্ষা বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ হওয়া খুবই জরুরি। শিক্ষার্থীরা যাতে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিজেদের যোগ্য হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারে, সে লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে যুগোপযোগী কারিকুলাম প্রণয়ন করতে হবে।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নবনিযুক্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ কথা বলেন।

উচ্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আনুষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা কার্যক্রম প্রসারে কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেবে বলে আশা ব্যক্ত করেন রাষ্ট্রপতি।

সাক্ষাৎকালে উপাচার্য চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিকসহ সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন।

শিক্ষার্থীরা যাতে দেশের মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতা, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যসহ সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করতে পারে সে লক্ষ্যে উদ্যোগ নেওয়ার কথাও বলেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন।

সাক্ষাৎকালে রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব মো. ওয়াহিদুল ইসলাম খান, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাহউদ্দিন ইসলাম ও রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন উপস্থিত ছিলেন।

;

থানায় হামলা, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাসহ ৯ জন রিমান্ডে



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বগুড়া
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার মাঝিড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা নুরুজ্জামান নুরুসহ তার ৯ সহযোগীকে ৬ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) বগুড়ার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মনিরুজ্জামান তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

বগুড়া জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ইনচার্জ মোস্তাফিজ হাসান এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শাজাহানপুর থানায় হামলা করে আসামি ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা এবং পরে গ্রেফতারকৃতদের হেফাজত থেকে উদ্ধার হওয়া বিদেশি পিস্তল ও মাদক উদ্ধারের ঘটনায় আরেকটি মামলায় মঙ্গলবার আদালতে রিমান্ড শুনানি দিন ধার্য্য ছিল।

গোয়েন্দা পুলিশের ইনচার্জ মোস্তাফিজ হাসান জানান, দুইটি মামলায় সাত দিন করে ১৪ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছিল। আদালত শুনানি শেষে তিন দিন করে দুই মামলায় ৬ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড শুনানি কালে গ্রেফতারকৃতদেরকে আদালতে হাজির করা হয়।

তারা হলেন, শাজাহানপুর উপজেলার মাঝিড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের (সাময়িক অব্যাহতি প্রাপ্ত) সাধারণ সম্পাদক নুরুজ্জামান নুরু, তার সহযোগী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি সাইদুর রহমান খোকন, স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী সাদ্দাম হোসেন রবিন, রমজান আলী, বোরহান উদ্দিন, সেরাজুল ইসলাম, আমিনুল ইসলাম, মিতুল, এবং ওহাবুজ্জামান।

উল্লেখ্য, গত ৬ এপ্রিল রাত ৯ টার দিকে শাজাহানপুর থানা পুলিশ চাকুসহ স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মিঠুন মিয়াকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। রাত ১০ টার দিকে নুরুজ্জামান নুরুর নেতৃত্বে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীরা শাজাহানপুর থানায় হামলা করে কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের মারপিট করে আটক মিঠুনকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। আসামি ছিনিয়ে নিতে ব্যর্থ হয়ে তারা মহাসড়ক অবরোধ করে।সেখান থেকেও পুলিশের উপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। থানায় হামলা এবং মহাসড়কে ইটপাটকেল নিক্ষেপে পুলিশের ৮ জন সদস্য আহত হন। ওই রাতেই পুলিশ নুরুজ্জামান নুরুসহ ৯ জনকে গ্রেফতার করে এবং তাদের হেফাজত থেকে ১৫ রাউন্ডগুলিসহ দুইটি বিদেশি পিস্তল, এক কেজি গাঁজা ও তিন বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। এসব ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে শাজাহানপুর থানায় দুই মামলা দায়ের করা হয়।মামলা দুইটি জেলা গোয়েন্দা পুলিশ ( ডিবি) তদন্ত করছেন।

এদিকে নুরুজ্জামান নুরু গ্রেফতারের পর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের পক্ষ থেকে এক বিজ্ঞপ্তিতে নুরুজ্জামান নুরুকে শাজাহানপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেয়া হয়।

;

ভালুকায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম, ময়মনসিংহ
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ময়মনসিংহের ভালুকায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মারা গেছেন। নিহত মেহেদী হাসান রুবেল (৩০) বিরুনীয়া ইউনিয়নের গোয়ারী গ্রামের ফিরুজের ছেলে এবং একই ইউনিয়নের ছাত্রলীগের আহ্বায়ক।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) সকালে উপজেলার বিরুনীয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

বিরুনীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছামছুল হোসাইন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, মেহেদী হাসান রুবেল সকালে নিজের মৎস্য খামারে কাজ করার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে গুরুতর আহত হয়। পরে পরিবারের লোকজন খোঁজ পেয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে জরুরী বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বিরুনীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছামছুল হোসাইন বলেন, এ ঘটনা এলাকায় শোকে ছায়া নেমে এসেছে।

;