সাড়ে তিন মাস পর বেনাপোল বন্দরে রফতানি বাণিজ্য শুরু

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বেনাপোল (যশোর)
বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে রফতানি বাণিজ্য শুরু হয়েছে/ছবি: বার্তা২৪.কম

বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে রফতানি বাণিজ্য শুরু হয়েছে/ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

অবশেষে নানান প্রতিবন্ধকতা শেষে টানা সাড়ে তিন মাস পর দেশের সর্ববৃহৎ বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের মধ্যে রফতানি বাণিজ্য শুরু হয়েছে। এতে বন্দরে কর্মব্যবস্থতা ফিরেছে।

এর আগে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে গত ২২ মার্চ থেকে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ করে দেয় ভারত সরকার। পরে গত ৭ জুন শুরু হয় আমদানি বাণিজ্য। একই সময় রফতানি বাণিজ্য শুরু হওয়ার কথা থাকলেও ভারতীয় অংশে ব্যবসায়ীদের বাধার কারণে রফতানি হয়নি। অবশেষে রফতানি চালুর দাবিতে গত ১ জুলাই থেকে বাংলাদেশ অংশের ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা ভারত থেকে আমদানি বাণিজ্য বন্ধ রাখে।

রোববার (৫ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টায় করোনা সংক্রমণে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে ৫টি ট্রাক গার্মেন্টস পণ্য নিয়ে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে প্রবেশ করে। সোমবার সকাল থেকে স্বাভাবিক বাণিজ্য হবে বলে জানা গেছে।

দীর্ঘদিন পর সমঝোতার মধ্য দিয়ে রফতানি বাণিজ্য শুরু হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন ব্যবসায়ী ও বন্দর কর্তৃপক্ষ। আগামীতে বাণিজ্য আরো গতিশীল হবে বলেও সংশ্লিষ্টরা মতামত ব্যক্ত করেন।

বেনাপোল বন্দরের উপপরিচালক (ট্রাফিক) মামুন কবীর তরফদার বলেন, ভারতীয় পণ্যেও আমদানি শুরু হলেও বন্ধ ছিল রফতানি বাণিজ্য। রফতানি চালুর দাবিতে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা ভারতীয় পণ্যেও আমদানি বন্ধ রেখেছিল। এখন ভারতীয়রা বাংলাদেশি পণ্য নিচ্ছেন।

ভারতের পেট্রাপোল বন্দর স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চন্দ্র বলেন, করোনা সংক্রমণের কারণে এপথে বাংলাদেশি পণ্যের আমদানি বাণিজ্য বন্ধ ছিল। এখন রাজ্য সরকারের অনুমতিতে তারা রফতানি পণ্য গ্রহণ করছেন।

রফতানি পণ্য বহনকারী বাংলাদেশি ট্রাক শ্রমিক সাইদুল ইসলাম জানান, প্রায় সাড়ে তিন মাস যাবৎ তারা রফতানি পণ্য নিয়ে বেনাপোল বন্দরেও আটকে ছিলো। এতে তাদেরও অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। এখন বাণিজ্য চালু হওয়াতে কিছুটা হলেও তারা স্বস্তি পেয়েছেন।

আপনার মতামত লিখুন :