শুদ্ধি অভিযানকে যেকোনো মূল্যে সফল করতে হবে: কাদের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের/ ফাইল ছবি

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের/ ফাইল ছবি

  • Font increase
  • Font Decrease

শুদ্ধি অভিযানকে যেকোনো মূল্যে সফল করতে নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, নেত্রী যে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন সে অভিযানকে যেকোনো মূল্যে সফল করতে হবে।

শনিবার (১৬ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের জাতীয় সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনার সৎ সাহস আছে দাবি করে ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, দুর্নীতিবাজদের না বলুন, মাদকসেবীদের না বলুন, চাঁদাবাজদের না বলুন, টেন্ডারবাজদের না বলুন, ভূমিদস্যুদের না বলুন। এটাই হচ্ছে শেখ হাসিনার শুদ্ধি অভিযান। সৎ সাহস আছে বঙ্গবন্ধুর কন্যার। শুরু করেছেন নিজের ঘর থেকে শুদ্ধি অভিযান। আমরা তাকে স্যালুট করি।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত রয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সকাল ১১টায় আওয়ামী লীগ সভাপতি সম্মেলন স্থলে এসে উপস্থিত হলে জাতীয় সংগীতের সুরে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এরপর সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক ও সদস্য সচিব এবং বিশেষ অতিথিদের সঙ্গে নিয়ে শান্তির প্রতীক পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন ঘোষণা করেন শেখ হাসিনা।

প্রধান অতিথিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহ্বায়ক নির্মল রঞ্জন গুহ ও সদস্য সচিব গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু। এ সময় সাথে ছিলেন সংগঠনের সিনিয়র সহ সভাপতি মঈন উদ্দিন মঈন ও সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আলীম বেপারী। অভ্যর্থনা উপ কমিটির পক্ষ থেকে সহ-সভাপতি মতিউর রহমান মতি ও সাংগঠনিক সম্পাদক সুব্রত পুরকায়স্থ ক্রেস্ট দেন। এ সময় সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহ্বায়ক ও সদস্য সচিব উপস্থিত ছিলেন। এরপর প্রধান অতিথিকে উত্তরীয় পরিয়ে দেন দুই নেত্রী মাহফুজা বেগম সাঈদা এবং কাজী শাহানারা ইয়াসমিন।

শিল্পকলা একাডেমীর শিল্পগোষ্ঠীর পরিবেশনায় দলীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। দলীয় সংগীত পরিবেশনার পর একে একে থিম সং পরিবেশনার সাথে নৃত্য পরিবেশন থেকে শুরু করে প্রখ্যাত কন্ঠশিল্পী মমতাজ বেগমের গানে গানে সুরের মূর্ছনায় মেতে ওঠেন সম্মেলন স্থলে আসা নেতাকর্মীরা।

প্রথম অধিবেশনের পর বিকেলে সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশন ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশনে কাউন্সিল অধিবেশন হবে। সেখানেই সংগঠনের পরবর্তী সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হবে। একই সঙ্গে ঘোষণা করা হবে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নাম।

আপনার মতামত লিখুন :