হ্যাটট্রিকের কথা ভুলে গিয়েছিলেন কামিন্স!



স্পোর্টস ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ক্রিকেটে ছক্কা কিংবা চারের হ্যাটট্রিক হরহামেশাই দেখা গেলেও উইকেটের হ্যাটট্রিক হাতে গোনা। সেই হাতে গোনাদের কাতারেই এবার নাম লিখিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার পেসার প্যাট কামিন্স। দ্বিতীয় অজি ও সপ্তম বোলার হিসেবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে হ্যাটট্রিক করার কীর্তি গড়েছেন তিনি। অথচ, এমন কীর্তি গড়তে যাচ্ছেন যেই বলে সেই বলটি করার আগ পর্যন্ত; এমন রেকর্ড গড়তে পারেন তা মনেই ছিল না তার। ভুলে গেছেন হ্যাটট্রিক বল এটা! কামিন্স বলেছেন সেই গল্পই।

বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচে ইনিংসের ১৮তম ওভারের শেষ দুটি বলে পরপর মাহমুদউল্লাহ ও মেহেদী হাসানকে আউট করেন কামিন্স। এরপর ২০তম ওভারের প্রথম বলেই সাজঘরে ফেরান দারুণ ছন্দে থাকা তাওহীদ হৃদয়কে। যার সুবাদে হ্যাটট্রিক পূরণ হয় কামিন্সের হ্যাটট্রিক।

যা তাকে নিয়ে গেছে হ্যাটট্রিক করা বোলারদের অভিজাত ক্লাবে। নিজের ক্যারিয়ারের প্রথম হ্যাটট্রিক করে চতুর্থ অজি বোলার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতি এই কীর্তি গড়েছেন কামিন্স। এবারের বিশ্বকাপে যা প্রথম। অথচ, এমন কীর্তি গড়ার বিষয়টি ভুলেই বসেছিলেন কামিন্স। তাই আলাদা করে বাড়তি গুরুত্ব ছিল না এই বলটি করা নিয়ে। কিংবা হ্যাটট্রিকের দেখা পেতে ফিল্ডিং সেট করা নিয়ে।

নিজের ক্যারিয়ারের প্রথম হ্যাটট্রিক নিয়ে কামিন্স ম্যাচশেষে বলেন, ‘জুনিয়র পর্যায়ে আমার কয়েকটি হ্যাটট্রিক ছিল কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার হয়ে কখনও এটা পাওয়া হয়নি। টি-টোয়েন্টিতে অ্যাগার ও এলিসদের ক্লাবে নাম লেখাতে পেরে খুশি। ছেলেরা আমাকে তাদের ক্লাবে স্বাগত জানিয়েছে। তবে বেশি ভালো লেগেছে খেলাটি জিততে পেরে। তাছাড়া আমাদের নেট রান রেটও বেশ ইতিবাচক।’

এমন কথার পর সংবাদ সম্মেলনে এসেও হ্যাটট্রিক নিয়ে কথা বলেছেন কামিন্স। হ্যাটট্রিক নিয়ে সেখানে তিনি বলেন, ‘আমি আসলে জানতাম না যে আমি হ্যাটট্রিক করেছি। কারণ যখন আগের ওভারটি করেছি তখন স্ক্রিনে ভেসে উঠেছিল। কিন্তু যখন আমার পরের ওভারটি আসে তখন আমি হ্যাটট্রিকের বিষয়টি পুরোপুরি ভুলে গিয়েছিলাম। পরে যখন মার্কাস স্টয়নিস দৌড়ে এসে উল্লাস শুরু করল; তখন বিষয়টি মাথায় আসে, ওহ এটা তো ভুলেই গিয়েছিলাম। যা হোক চমৎকার অনুভূতি এটা।’

কোপাকে ‘অপেশাদার টুর্নামেন্ট’ বললেন কানাডা কোচ 



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

কোপার এবারের আসরের শুরু থেকেই আয়জকদের বিভিন্ন বিষয়ে ঘাটতি নিয়ে চলে আসছে সমালোচনা। আর্জেন্টাইন কোচ লিওনেল স্কালোনি অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন মাঠের ঘাস নিয়ে। এরপর উরুগুয়ে কোচ মার্সেলো বিয়েলসা তো সরাসরি এমন অভিযোগ জানিয়েছিলেন, মাঠ নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে মানা করেছে আয়োজকরা। তবে যুক্তরাষ্ট্রের এই আসরটি সবচেয়ে বেশি সমালোচনায় এলো উরুগুয়ে-কলম্বিয়ার মধ্যকার সেমি-ফাইনাল ম্যাচের পর গ্যালারিতে মারামারির ঘটনাকে কেন্দ্র করে। 

সেই মারামারির ঘটনার পর ম্যাচ ব্রডকাস্টে উরুগুয়ে ডিফেন্ডার হিমিনেজ বলেছিলেন, ‘তারা (কর্তৃপক্ষ) থামিয়ে দেওয়ার আগেই আমার বিষয়গুলো নিয়ে কিছু বলা উচিত। কারণ তারা পরে কিছু বলতে দেবে না। তারা চায় না এই বিপর্যয়ের ব্যাপারে আমরা কিছু বলি।’ এমনকি এটিও জানিয়েছিলেন সেই গ্যালারিতে ছিল তাদের পরিবারের সদস্যরাও এবং সেখান ছিল না কোনো নিরাপত্তা কর্মী। 

ঘটনাটির পর এক বিবৃতিতে মারামারির বিষয়টি নিয়ে তদন্তে নামার কথা জানায় কনমেবল। আর্জেন্টাইন গণমাধ্যমের সূত্রমতে, কনমেবলের তদন্তের তালিকায় আছেন ১০ জন ফুটবলার। স্বাভাবিকভাবেই সেই লিস্ট উরুগুয়ের ফুটবলারদের। এতেই আলোচিত এই আসরে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচের আগে খেলোয়াড়দের পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন তাদের কোচ বিয়েলসা। এদিকে কানাডা কোচ জেসে মার্শ কোপাকে তো অপেশাদার টুর্নামেন্টই বলে বসলেন। 

তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে রোববার বাংলাদেশ সময় ৬টায় নামবে উরুগুয়ে ও কানাডা। সেই ম্যাচকে সামনে রেখে গতকাল সংবাদ সম্মেলনে এসেছিলেন দল দুটি কোচ। সেখানে মারামারির ঘটনা প্রসঙ্গে বিয়েলসা বলেন, ‘নিষেধাজ্ঞা ফুটবলারদের বিরুদ্ধে নয়, বরং যারা এমনটা করতে বাধ্য করেছে, তাদের বিরুদ্ধে হওয়া উচিত। এটা অপমানজনক।’ 

এদিকে কানাডা কোচ মার্শকেও সংবাদ সম্মেলনে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল কলম্বিয়া সমর্থক-উরুগুয়ে ফুটবলারদের সেই মারামারির ঘটনা নিয়ে। সেখানে এই মার্কিন কোচ বলেন, ‘আমি (বিয়েলসার সংবাদ সম্মেলন) পুরোটা দেখিনি। তবে তার কিছু মন্তব্য দেখেছি। কিছু বিষয়ের সঙ্গে আমি একমত। টুর্নামেন্ট আমার কাছে পেশাদার মনে হয়নি। এটির ব্যবস্থাপনায় অনেক সমস্যা আছে।’

;

টানা দ্বিতীয়বারের মতো উইম্বলডনের ফাইনালে জোকোভিচ-আলকারাজ 



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

উইম্বলডনের আগের আসরে রেকর্ড ২৫তম গ্র্যান্ড স্লামের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন টেনিস বিশ্বের অন্যতম মহাতারকা নোভাক জোকোভিচ। তবে ২০২৩ সালের ১৭ জুলাইয়ের সেই ফাইনালে ৪ ঘণ্টা ৪২ মিনিটের লড়াই শেষে এই সার্বিয়ান তারকাকে থামিয়ে প্রথমবারের মতো উইম্বলডন জিতেছিল ২০ বছর বয়সী তরুণ কার্লোস আলাকারাজ। 

বছর ঘুরে আবারও উইম্বলডনের ফাইনালে হতে যাচ্ছে গত আসরের পুনরাবৃত্তি। রোববার ফাইনালে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে সেই জোকোভিচ আর আলাকারাজই। 

সেন্টার কোর্টে গতকাল সেমিতে দানিল মেদভেদেভকে ৩-১ সেটে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠে যায় আলকারাজ। এদিকে দিনের আরেক সেমিতে লরেনৎসো মুসেত্তিকে সরাসরি সেটে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছে যান ৩৭ বছর বয়সী জোকোভিচ। 

গতবছরও সেমিতে মেদেভেদেভকে হারিয়েই ফাইনালে উঠেছিলেন আলকারাজ। এবারও হয়েছে তার পুনরাবৃত্তি। এবং ফাইনালে শিরোপা ধরে রাখার মিশনের শেষ লড়াইয়েও আগের আসরের ফাইনালিস্ট জোকোভিচের সঙ্গেই লড়তে হবে বয়সে তার থেকে ১৭ বছরের ছোট এই তরুণ স্প্যানিশ তারকাকে। 

এদিকে সব মিলিয়ে এটি জোকোভিচের ৩৭তম গ্র্যান্ড স্লাম ফাইনাল। আগের ৩৬ বারের ফাইনালে ২৪টিতেই জিতে মার্গারেট কোর্টের রেকর্ড ২৪টি গ্র্যান্ড স্লামের কীর্তিতে ভাগ বসিয়েছেন জোকোভিচ। এবার তাই ইতিহাস গড়ার সামনে দাঁড়িয়ে এই সার্ব। আলাকারাজকে হারালেই ২৫তম গ্র্যান্ড স্লাম জিতে মার্গারেট কোর্টকে ছাড়িয়ে শিরোপার বিচারে এককভাবে শীর্ষে উঠে যাবেন জোকোভিচ।   

;

মরকেলকে ভারতের বোলিং কোচ হিসেবে চান গম্ভীর 



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সব জল্পনা-কল্পনা উড়িয়ে গত ৯ জুলাই গৌতম গম্ভীরকেই ভারতীয় দলের প্রধান কোচ বানায় গৌতম গম্ভীর। ভারতীয় এই সাবেক তারকা ক্রিকেটার দায়িত্ব নিয়েই বলেছিলেন রোহিত-কোহলিদের দায়িত্বে নেওয়ার পর বেতনাদির চুক্তি হচাপিয়ে তার চিন্তা সাপোর্টিং স্টাফ খোঁজাতে। গম্ভীর যেন এগোচ্ছেন সেই পথেই। ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোর সূত্রমতে, কেকেআর একাডেমির প্রধান ও সাবেক ক্রিকেটার অভিষেক নায়ারকে সহকারী কোচ হিসেবে নিতে পারেন গম্ভীর। এবার জানা গেল বোলিং কোচ হিসেবে পছন্দের তালিয়ায় সবার ওপরে সাবেক প্রোটিয়া পেসার মরনে মরকেলকে রেখেছেন তিনি। 

খবরটি ক্রিকেটবিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজের। তাদের এক প্রতিবেদনের সূত্রমতে জানা যায়, মরকেলকে বোলিং কোচ হিসেবে ভারতের দলে ভেড়ানোর জন্য বিসিসিআইয়ের নিকট অনুরোধ করেছেন গম্ভীর। এমনকি মরকেলের সঙ্গে ইতিমধ্যে বিসিসিআইয়ের প্রাথমিক আলাপও হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে ক্রিকবাজ। 

মরকেলের সঙ্গে এর আগেও কাজ করেছেন গম্ভীর। আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের মেন্টর হবার আগে লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টের হয়ে দুই আসরে কাজ করেছেন তিনি। সেখানেই ফ্রাঞ্চাইজিটির বোলিং কোচ ছিলেন মরকেল।

প্রোটিয়াদের হয়ে তিন ফরম্যাটেই মাত মাতিয়েছেন মরকেল। তার এক যুগের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে খেলেছেন ৮৬টি টেস্ট, ১১৭টি ওয়ানডে ও ৪৪টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। 

এদিকে মরকেল ছাড়াও ভারতের বোলিং কোচ হিসেবে শোনা গেছে আরও কয়েক নাম। তবে সেই নামগুলো দেশটির সাবেক ক্রিকেটারদের। সেই তালিকার আছেন লক্ষ্মীপতি বালাজি, বিনয় কুমার ও জহির খান। 

;

টিভিতে যা দেখবেন আজ



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জিম্বাবুয়ে-ভারত সিরিজের চতুর্থ টি-টোয়েন্টি আজ (শনিবার)। এছাড়াও টিভিতে যা যা থাকছে।

৪র্থ টি-টোয়েন্টি

জিম্বাবুয়ে-ভারত

বিকেল ৫টা, সনি স্পোর্টস টেন ৫

উইম্বলডন (নারী এককের ফাইনাল)

ক্রেইচিকোভা-পাওলিনি

সন্ধ্যা ৭টা, স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট ১

লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ

জাফনা-ক্যান্ডি

রাত ৮টা, টি স্পোর্টস

মেজর লিগ ক্রিকেট

লস অ্যাঞ্জেলেস-সান ফ্রান্সিস্কো

রাত ১টা, সনি স্পোর্টস টেন ১

;