Barta24

বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

যা শোনালেন আঁখি আলমগীর..

যা শোনালেন আঁখি আলমগীর..
আঁখি আলমগীর
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট


  • Font increase
  • Font Decrease

বৈশাখী টিভিতে ঈদ উপলক্ষে প্রচারিত হলো ‘গানে গানে ঈদ আনন্দ’।

অনুষ্ঠানের তৃতীয় এপিসোড মাতিয়েছেন কন্ঠশিল্পী আঁখি আলমগীর।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/29/1535563208170.jpg
আঁখি আলমগীর

এছাড়াও তিনি ছিলেন নাগরিক টিভি’র ‘গানের মেলা’ অনুষ্ঠানে।

যা যা শোনালেন ‘গানে গানে ঈদ আনন্দ’ অনুষ্ঠানে, নজর বুলিয়ে নেয়া যাক।

‘জোর কা ঝাটকা’, শওকত আলী ইমনের লেখা ও সুরের এই গানটি দিয়েই শুরু হয় অনুষ্ঠান।

তাতেই নেচে ওঠে মঞ্চ যেন।

পরের গানটি ‘জল পড়ে পাতা নড়ে’।

কবির বকুলের লেখা এবং শওকত আলী ইমনের সুর।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/29/1535563389445.jpg
আঁখি আলমগীর

আঁখি আলমগীর ‘শ্যাম পিরিতি’ গাইলেন তৃতীয় গান হিসেবে।

গানটির গীতিকার এবং সুরকার শওকত আলী ইমন।

অনেক পছন্দের মানুষ তিনি, বললেন আঁখি আলমগীর।

ঈদ যেহেতু, রিদমিক গান বেশি শুনতে চায় লোকজন।

সেজন্য জে.কে’র লেখা এবং এসআই শহীদের সুরে শুরু করলেন চতুর্থ গান, ‘দে দে দোলা’।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/29/1535563654938.jpg
আঁখি আলমগীর

পরের গানটির গীতিকার রবিউল ইসলাম জীবন, সুরকার শওকত আলী ইমন।

কথা এমন- ‘রঙেরও ঘুড়িটা উড়িয়া উড়িয়া, পুবালী বাতাসে ঘুরিয়া ঘুরিয়া, খোঁজে মন, তোমাকে সারাক্ষণ’।

চলচ্চিত্রের গানও গাইলেন আখিঁ আলমগীর, গানে গানে ঈদ আনন্দ অনুষ্ঠানে।

ছয় নাম্বার গান এটি।

গীতিকার গাজী মাজহারুল আনোয়ার এবং সুরকার রুনা লায়লা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/29/1535563740744.jpg
আঁখি আলমগীর

‘গল্পকথা’ গানটি নায়ক আলমগীর পরিচালিত ‘একটি সিনেমার গল্প’ চলচ্চিত্রের।

গানটি যেন পাল্টে ফেললো অনুষ্ঠানের পরিবেশ, একটা বিষণ্ণতা চারিদিকে।

উপস্থাপিকার কথায়ও ফুটে উঠলো সেই রেশ।

আখিঁ ধরলেন পরের গান।

‘বোকা মন’ অ্যালবামের টাইটের ট্রাক ‘বোকা মন’।

গানটি এসেছে রবিউল ইসলাম জীবনের কলম থেকে, সুর করেছেন জে.কে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/29/1535563790275.jpg
আঁখি আলমগীর

অষ্টম গানটির সুরকার আবিদ রনি, লিখেছেন মেহেদী হাসান কিরণ।

আঁখি বললেন-

কিরণ ভাই হচ্ছে একজন ভিডিও মেকার এবং এই একটা গানই উনি জীবনে লিখেছেন এবং এই একটা গানই আমি গেয়েছি। গানটি খুবই মিষ্টি এবং রোমান্টিক। গানের একটা দুইটা লাইনে উনি ইংরেজী এবং হিন্দী নিয়েছেন। খুব সুন্দর করে লিখেছেন গানটা।

নবম গান হিসেবে আঁখি গাইলেন তারই মা খসরু বেগমের লেখা গান।

সুর করেছেন জে.কে।

‘ওই বাঁশির সুরে মন যে বলে, বাঁশরিয়া কই?’- এমন কথার গানটি যেন মঞ্চে ফিরিয়ে আনলো আবারও তুমুল উদ্যোম।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/29/1535563824684.jpg
আঁখি আলমগীর

এরপর আখিঁ ধরলেন প্রণব ঘোষ-এর সুর এবং কামরুজ্জামান কাজলের লেখা একটি মেলোডিয়াস গান।

‘গানে গানে ঈদ আনন্দ’ অনুষ্ঠানে আঁখি শোনালেন একটি অপ্রকাশিত গানও।

এটি ঈদ উপহার দর্শকদের জন্য।

‘এলো এক নতুন প্রহর, খোলা এই আকাশ তলে; হাসিখুশি মন যে সবার, মিশে যায় সাগর জলে।’

এমন কথার গানটি লিখেছেন রবিউল ইসলাম জীবন এবং সুরকার জে.কে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/29/1535563873879.jpg
আঁখি আলমগীর

এরপর বারোতম গান গাওয়া শুরু করলেন আঁখি, ‘কী জাদু করিলা বন্ধু রে’।

দেলোয়ার আরজুদা শরীফ-এর গীতিকথায় এবং রাজেশ ঘোষ-এর সুরে অনুষ্ঠানের সর্বশেষ গান গাইলেন আঁখি।

শেষ হলো অনুষ্ঠান।

থেকে গেলো রেশ।

আরও দীর্ঘ সময় ধরে এমনই প্রাণবন্ত থাকুক আখিঁ আলমগীর, ভক্তরা এর চেয়ে বেশি কিছু চাননা নিশ্চয়ই।

পুরো অনুষ্ঠানটি দেখুনঃ

আপনার মতামত লিখুন :

শুভ জন্মদিন প্রিন্স মাহমুদ

শুভ জন্মদিন প্রিন্স মাহমুদ
প্রিন্স মাহমুদ, ছবি: সংগৃহীত

'আজ জন্মদিন তোমার' গানটি জন্মদিনে বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত গান। গানটির কথা ও সুর করছেন প্রিন্স মাহমুদ। সেই দুই দশকের বেশি সময় ধরে বাংলা গানের জগতকে সমৃদ্ধ করা প্রিন্স মাহমুদের জন্মদিন আজ।  

বাংলাদেশের খুলনায় জন্ম নেন তিনি। বাংলা গানের এই কিংবদন্তী গীতিকার নব্বই দশক থেকে বাংলাদেশে ব্যান্ড শিল্পীদের একক এবং যৌথ অ্যালবামের গান লেখা, সুর করা এবং কম্পোজিশনের কাজ করেছেন। এর বাইরে ১৯৯৫ সালে 'শক্তি' অ্যালবামের মাধ্যমে মিশ্র শিল্পীর গানের অ্যালবাম প্রকাশ শুরু করেন তিনি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/17/1563350263913.jpg
'দ্যা ব্লজ' ব্যান্ডের ভোকাল ও গিটারিস্ট হিসেবে কাজ শুরু করেন প্রিন্স মাহমুদ 

 

গানের ভুবনে প্রিন্সের পথ চলা শুরু হয় আশির দশকের একেবারে শেষ প্রান্তে 'দ্যা ব্লজ' ব্যান্ডের ভোকাল ও গিটারিস্ট হিসেবে। এরপর ৯০ দশকের শুরুতে প্রিন্স গঠন করেন 'ফ্রম ওয়েস্ট' নামক একটি ব্যান্ড। সে সময় ব্যান্ড দলটির লিডার এবং মূল ভোকাল ছিলেন প্রিন্স মাহমুদ।

দুই দশক ধরে অসংখ্য জনপ্রিয় গান উপহার দিয়েছেন প্রিন্স মাহমুদ। সেই তালিকায় আছে বাংলাদেশ, আজ জন্মদিন তোমার, মা (দশ মাস দশ দিন), বাবা, বেলা শেষে ফিরে এসে পাইনি তোমায়, পালাতে চাই, এত কষ্ট কেন ভালোবাসায়, বন্ধু ভেঙ্গে ফেল এই কারাগার, কিছু ভুল ছিল তোমার, কিছু আমার, মাটি হবো মাটি, মনরে মনরে তুই বড় বোকা, তুমি বরুণা হলে, জেলখানার চিঠি, ভুবন ডাঙার হাসি, নিমন্ত্রণ, আঙুল, তুই চাইলে হবো নদী ইত্যাদি। 

বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমের পক্ষে বাংলাদেশের সংগীতের কিংবদন্তী এই গীতিকারকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা।

সাভারের অলিগলিতে মোশাররফ করিম

সাভারের অলিগলিতে মোশাররফ করিম
মোশাররফ করিম, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

পথে চলতি মানুষদের হঠাৎ চোখ কপালে। সাইকেলে চেপে থাকা মানুষটি কে? কৌতুহল কাটতে অবশ্য সময় লাগেনা। মাথার ওপর ড্রোন, ফ্রেমে ধরে রাখা দুটি ক্যামেরা আর লাইট। পরিচালকের অ্যাকশন শব্দে সাইকেলে চেপে বসেন মোশাররফ করিম। গলির পাশে দোতলা বাড়ির ছাদের আড়াল থেকে চিরকুটের মতো প্রেমপত্র ছুড়ে মারেন সাফা কবির। 

এমন দৃশ্যের প্রস্তুতি আর অভিনয় থেকে শুরু করে পরিচালকের ওকে নেক্সট শর্টের আওয়াজে ভিড় বাড়তে থাকে। তপু খানের পরিচালনায় ঈদের বিশেষ নাটক 'ডিল ডান কালাঁচান' নাটকের শুটিংয়ের সুবাদে মোশাররফ করিম ও সাফা কবিরের প্রেম ভালোবাসার রসায়ন এভাবেই সাভারের স্থানীয়রা দেখছিলেন।

কেউ পাশে দাড়িয়ে নাটকের শুটিং দেখছেন আবার কেউ সেফলি তোলার আবদার নিয়ে হাজির হচ্ছে। কাউকে ফিরিয়েও দিচ্ছেন না। বেশ সাদরে কাছে টেনে নিয়ে সেলফি তুলে ক্যামেরার সামনে দাঁড়াচ্ছেন তিনি। পুরান ঢাকা মতো সরু অলিগলি আর পুরান দিনের বাড়িঘরে সজ্জিত ঐতিহ্যের নগরী বলে পরিচিত সাভারের দক্ষিণপাড়া মহল্লার বিভিন্ন স্পটে চলছে এই নাটকের শুটিং।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/17/1563348536965.jpg
শুটিংয়ের ফাঁকে মোশাররফ করিম 

 

নাটকে পেশায় মোশাররফ করিম দলিল লেখক হলেও তার ভবিষ্যৎবাণী ফলে যায় শতভাগ। এভাবেই এলাকায় ‘বাজীগর’ হিসেবে পরিচিতি পায় তার চরিত্র। এভাবেই এগিয়ে যায় নাটকের গল্প।

নাটকে মোশারফ করিমের বিপরীতে প্রথমবারের মতো জুটি বেধেছেন সাফা কবির।

মোশারফ করিম  বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, প্রথম বার সাভারে শুটিং করছি।অসাধারণ জায়গা। মনে হয় এখানেই ঘরবাড়ি বানিয়ে থাকি। বিশেষ করে এখানকার মানুষগুলো চমৎকার। বিভিন্ন সেটে শুটিংয়ের প্রয়োজনে তারা যে ধরনের সহযোগিতা করেছেন তা সত্যিই প্রশংসার।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/17/1563348553985.jpg
সাফা কবির ও মোশাররফ করিম 

 

সাফা কবির  বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, তপু খানের অসাধারণ গল্প ও লোকেশনে নাটকটিতে অভিনয় করতে পেরে খুব ভালো লাগছে। মোশারফ করিমের সাথে জুটি বেঁধে অভিনয় করায় শুটিং সময়টাও দারুণ উপভোগ করছি। আশা করি দর্শকদের ভালো লাগবে।

নির্মাতা তপু খান বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, সাভারে আমি দীর্ঘ ছয় বছর কাটিয়েছি। গল্পের প্রয়োজনে  সাফা কবির ও মোশারফ করিমকে যুক্ত করা হয়েছে। নাটকে আরও অভিনয় করেছেন স্মরণ সাহা। আসছে ঈদে নাটকটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভিতে প্রচারিত হবে।

 

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র