বর্ষাকালে ত্বকের যত্নে কী করবেন?

বর্ষায় ত্বকের যত্ন।

দমবন্ধ গরমে স্বস্থি আনতেই আগমন হয় বর্ষার।

বর্ষায় আবহাওয়া স্যাঁতস্যাঁতে হবার সঙ্গে প্রভাব পড়ে ত্বকের উপরেও। খেয়াল করে দেখবেন, আবহাওয়ার এই পরিবর্তনের ফলে ত্বকের ধরণেও পরিবর্তন দেখা দেয়। এই সময় খুব স্বাভাবিকভাবে ত্বকে কিছু সমস্যাও তৈরি হয়। ভালো খবর হলো, এই পরিবর্তন নিয়ে চিন্তিত হবার কিছু নেই।

তবে সঠিকভাবে নিয়মিত ত্বকের পরিচর্যা করার ব্যাপারে হেলাফেলা করা যাবে না একেবারেই। ত্বককে সুস্থ ও উজ্জ্বল রাখতে সহজ কিছু পরিচর্যাই যথেষ্ট।

আরো পড়ুন: বর্ষাকালে কাপড় শুকানো নিয়ে ঝামেলা?

সাধারণত ত্বক তিন ধরণের হয়ে থাকে- শুষ্ক, তৈলাক্ত ও মিশ্র। আজকের ফিচারে তিন ধরণের ত্বকের জন্যেই বর্ষাকালীন যত্ন নিয়ে আলোচনা করা হল।

বর্ষাকালীন ত্বকের যত্ন:

১. প্রতিদিন ৩-৪ বার মুখ ধোয়ার অভ্যাস করতে হবে। শুষ্ক ত্বকের ক্ষেত্রে ১-২ বার মুখ ধোয়াই যথেষ্ট। মুখ পরিষ্কার  রাখতে ক্ষারবিহীন ফেসওয়াশ ব্যবহার করতে হবে।

২. মুখের রোমকূপে যেন ময়লা জমতে না পারে সেজন্য এক দিন পরপর স্ক্রাবার ব্যবহার করতে হবে।

৩. স্ক্রাবার ব্যবহারের পর অ্যালকোহল মুক্ত টোনার ব্যবহার করতে হবে। যেন ত্বকের রোমকূপ ছোট হয়ে যায়। তৈলাক্ত ও মিশ্র ত্বকের জন্য উন্মুক্ত রোমকূপ ক্ষতিকর।

৪. বর্ষাকালে অনেকেই সানস্ক্রিন ব্যবহারে বিরতি দেন। যেটা করা উচিৎ নয়। বর্ষাকালেও হুটহাট তীব্র রোদের আলোতে ত্বকে রোদেপোড়া ভাব তৈরি হতে পারে।

আরো পড়ুন: সানস্ক্রিন ব্যবহারে করণীয়

৫. খুব ভারী মেকআপ করা থেকে বিরত থাকতে হবে। নিতান্তই যদি মেকআপ করার প্রয়োজন হয় তবে ওয়াটার প্রুফ মেকআপ পণ্য ব্যবহার করতে হবে।

৬. ত্বকের ঔজ্জ্বল্য ধরা রাখতে লোশন ঘরানার সিরাম ব্যবহার করতে হবে। এতে ত্বক উজ্জ্বল থাকার পাশাপাশি কোমল থাকবে।

৭. বর্ষাকালে অবশ্যই ব্লিচিং করা থেকে বিরত থাকতে হবে। এমন স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়ায় যা ত্বকের উপর মারাত্বক নেতিবাচক প্রভাব ফেলে দেয়।

৮. ঠোঁটের জন্য ব্যবহার করতে হবে মিল্ক ক্রিম। যদি ঠোঁট শুষ্ক হয়ে ফেটে যায় তবে নারিকেল তেল ব্যবহার করতে হবে। চেষ্টা করতে হবে লিপস্টিক ব্যবহার যথাসম্ভব কমিয়ে দিতে।

আরো পড়ুন: লিপবাম কেনার আগে যে বিষয়গুলো জানা প্রয়োজন

মুখের ত্বকের যত্নের সাথে হাত ও পায়ের প্রতিও যত্নশীল হতে হবে। অন্যান্য সময়ের মতো বর্ষাকালেও নিয়মিত পেডিকিউর ও মেনিকিউর করতে হবে। বিশেষত বাইরে থেকে বাসায় ফিরেই হাত ও পা ভালোভাবে ধুয়ে নিতে হবে। নইলে বাইরের কাদা ও ময়লায় হাত ও পায়ের ত্বক অল্প সময়ের ভেতর নিস্প্রভ হয়ে উঠবে।

এমন সহজ ও সাধারণ কিছু নিয়ম মেনে চললেই বর্ষাকালীন সময়ে ত্বক থাকবে সুস্থ। তবে ত্বকে কোন গুরুত্বর সমস্যা দেখা দিলে অবশ্যই চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের দ্বারস্থ হতে হবে।

লাইফস্টাইল এর আরও খবর