কয়েকটি জাপানি কবিতা

বাংলা ভাষান্তর : কল্যাণী রমা
অলঙ্করণ কাব্য কারিম

অলঙ্করণ কাব্য কারিম

  • Font increase
  • Font Decrease

ইংরেজি অনুবাদ : কেনেথ রেক্সরথ


এ সময় বৃষ্টির, এ সময় তুষারের
আমি ঘুমহীন রাত কাটাই
ভোরের বেলা জমে ওঠা
নীহারকণার দিকে তাকিয়ে
যা তোমার প্রেমের মতো কোমল।

২.
আমি একটা অ্যাজেলিয়া ফুল তুলে
বাড়ি নিয়ে এলাম।
এখন যখন ফুলটার দিকে নিবিষ্ট মনে তাকিয়ে থাকি,
তার টকটকে লাল রঙে
আমি আমার প্রেমিকের
পোশাকের রঙ দেখি।

মূল : IZUMI SHIKIBU


তোমার দিকে
স্বপ্নের পথ বেয়ে যেতে নিয়ে, আমার পা
কখনো থেমে থাকে না। কিন্তু বাস্তবের তোমার একটা ঝলক
হবে এইসব অনেক রাতের
ভালোবাসার মূল্য।

২.
এই চাঁদহীন রাতে
তুমি এসো না।
ঘুম ভেঙে তোমাকে চাই।
আমার বুকে দীর্ঘশ্বাস, আমার বুকে আলোকচ্ছটা।
আমার হৃৎপিণ্ড পুড়ে যাচ্ছে।

মূল : ONO NO KOMACHI


আমার হৃৎপিণ্ড শুন্য,
সব অনুকম্পা হয়েছে শান্ত,
তবুও কেঁপে কেঁপে উঠছি, হেমন্তের
গোধুলিতে যেভাবে একটা কাদাখোঁচা পাখি
উঠে আসে আর উড়ে যায়।

মূল : Saigyō


গোধূলিবেলায়
পথ খুঁজে পাওয়া কঠিন।
চাঁদ ওঠবার জন্য অপেক্ষা করো,
তবে তোমার চলে যাওয়া দেখতে পাব।

মূল : OYAKEME, A GIRL OF BUZEN


আলো ফোটার সময়
সাদা তুষার ঝরে পড়ে
ইওশিনোর গ্রামটার ওপর
ভোরবেলার চাঁদের
আলোর মতো।

মূল : SAKANOE NO KORENORI


পাহাড়ের গ্রামটায়
বসন্তের গোধূলিবেলা ঘনিয়ে আসে।
আমি এগিয়ে যেতেই
সন্ধ্যায় মন্দিরের ঘণ্টার
গমগম শব্দে
চেরিফুলের পাপড়ি ছড়িয়ে পড়ে।

মূল : THE MONK ¬NO̅IN


বসন্তের গভীর, সংকীর্ণ গিরিখাতে
স্বচ্ছ বৃষ্টিতে
পাপিয়া গান শুরু করে
পাহাড়ের স্তব্ধতায়।

মূল : ONOE NO SHIBAFUNE


ধীরে ধীরে অন্ধকার হয়ে যাওয়া
নারুমি সৈকতে, কেঁদে কেঁদে ফেরা টিট্টিভ পাখি
কাছাকাছি ঘন হয়ে আসে, পাখায় পাখা ঘষে,
যখন চাঁদ ঢলে পড়ে
উঁচু হয়ে হয়ে ওঠা ঢেউয়ের পিছনে।

মূলঃ FUJIWARA NO SUEYOSHI


সারাদিন আমি নিড়ানি দিয়ে আগাছা তুলি।
রাতে ঘুমাই।
সারা রাত আবার আমি নিড়ানি চালাই
স্বপ্নের ভিতর দিনের সব আগাছা।

মূল : ANONYMOUS FOLKSONG


প্রেমে পুড়তে পুড়তে সিকেডা পোকা
কেঁদে যায়।
জোনাক পোকা ছাই হয়
গোপন ভালোবাসায়।

মূল : ANONYMOUS

আপনার মতামত লিখুন :