বগুড়ায় ছাত্রদলের হামলায় চার পুলিশ আহত, আটক ১৪

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বগুড়া
ছাত্রদলের লাঠির আঘাতে মাথা ফেটে যায় পুলিশ সদস্য পারভেজ মিয়ার।

ছাত্রদলের লাঠির আঘাতে মাথা ফেটে যায় পুলিশ সদস্য পারভেজ মিয়ার।

  • Font increase
  • Font Decrease

বগুড়ায় ছাত্রদলের হামলায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপারসহ চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ সময় ছাত্রদলের নেতা কর্মীরা পুলিশের অস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে । এঘটনায় পুলিশ ছাত্রদলের ১৪ নেতা কর্মীকে আটক করেছে।

বুধবার (১ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১২টায় বগুড়া শহরের শহীদ খোকন পার্কে এঘটনা ঘটে।

আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন- বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী, সহকারী উপপরিদর্শক ( এএসআই) আশরাফুল, কনস্টেবল মামুন ও পারভেজ। আহতরা বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

বগুড়ায় পুলিশের ওপর হামলা ছাত্রদলের

এরমধ্যে মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত কনস্টেবল পারভেজকে বগুড়া পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বেলা ১১টা থেকে শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে শহীদ খোকন পার্কে সমবেত হয়। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী খোকন পার্কে গিয়ে দেখতে পান স্যান্ডেল এবং জুতা পায়ে বেশ কিছু নেতা কর্মী শহীদ মিনারের ওপরে উঠেছেন। এসময় তিনি তাদেরকে শহীদ মিনার থেকে নেমে দলীয় কার্যালয়ে যেতে বলেন। এসময় ছাত্রদলের নেতা কর্মীরা পুলিশের ওপর চড়াও হয়। এতে পুলিশের চার সদস্য আহত হন। পরে অতিরিক্ত পুলিশ পৌঁছে ছাত্রদলের নেতা কর্মীদেরকে ছত্রভঙ্গ করে দেন। পরে দলীয় কার্যালয়ের সামনে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি পালন করা হয়। এঘটনার পর শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। কর্মসূচি শেষে ফেরার পথে পুলিশ ১৪ জনকে আটক করে।

পুলিশের ওপর ছাত্রদলের হামলা

এদিকে এ ঘটনায় ছাত্রদলের পক্ষ থেকে কোন বিবৃতি বা বক্তব্য দেওয়া হয়নি। অধিকাংশ নেতা কর্মী মোবাইল ফোন বন্ধ করে আত্মগোপন করেছেন।

সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী বার্তা২৪.কমকে বলেন, শহীদ মিনারে স্যান্ডেল পায়ে ওঠা দেখে তাদেরকে নামতে বলা হয়। এসময় তারা পুলিশের ওপর চড়াও হয় এবং অস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এসময় রাইফেলের একটি অংশ বিশেষ খোয়া যায়।

আপনার মতামত লিখুন :