ঝিনাইদহের দুই শিক্ষার্থীর কৃষিভিত্তিক রোবট আবিষ্কার



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঝিনাইদহ
(বাঁ দিক থেকে) রোবট আবিষ্কারক দেবাশীষ ও বাপ্পী/ছবি: বার্তা২৪.কম

(বাঁ দিক থেকে) রোবট আবিষ্কারক দেবাশীষ ও বাপ্পী/ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ঝিনাইদহ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ইলেক্ট্রনিক্স বিভাগের দুই শিক্ষার্থী ‘স্মার্ট এগ্রো রোবট’ নামে কৃষিভিত্তিক রোবট আবিষ্কার করেছেন।

রোবট আবিষ্কারক দুই শিক্ষার্থী হলেন-বখতিয়ার আহম্মেদ বাপ্পী ও দেবাশীষ কুমার বিশ্বাস।

বখতিয়ার আহম্মেদ বাপ্পী বলেন, কৃষিক্ষেত্রে উৎপাদন খরচ কমানোর পাশাপাশি তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার বাড়াতে সহপাঠী দেবাশীষ কুমার বিশ্বাসকে নিয়ে গবেষণা শুরু করি। রোবটটি তৈরি করতে সময় লেগেছে ২ মাস ৭ দিন। খরচ হয়েছে ১০ হাজার টাকা।

রোবটটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘স্মার্ট এগ্রো রোবট’

দেবাশীষ কুমার বিশ্বাস বলেন, একজন কৃষক তার ফোনের মাধ্যমে এই রোবট চালাতে পারবেন। স্মার্টফোনের মাধ্যমে তিনি জমির আলে দাঁড়িয়ে মাঠের ভেতরে ঘুরিয়ে আনতে পারবেন। জমিতে পানির স্বল্পতা দেখা দিলে সেটি যাচাই করে জানাবে কৃষককে। সূর্যের আলো থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে চার্জ নেবে রোবটটি।

তিনি বলেন, রোবটটি সারিযুক্ত কৃষি জমিতে সার, কীটনাশক প্রয়োগ, সেচ প্রদান ও আগাছা দমন করবে স্বয়ংক্রিয়ভাবে। কৃষি ক্ষেত্রে রোবটটি কাজে লাগালে কৃষিতে নতুন মাত্রা যুক্ত হবে। ইতোমধ্যে ঝিনাইদহ, যশোর, মেহেরপুরসহ বিভিন্ন জেলার তথ্যপ্রযুক্তি মেলায় প্রদর্শন করা হয়েছে। অর্জন করেছে প্রথম স্থান। পরিবেশবান্ধব এই রোবটটি নিজেদের অর্থায়নে ছোট পরিসরে তৈরি করা হয়েছে। সহযোগিতা পেলে তা পূর্ণ রোবটে পরিণত করা সম্ভব।

রোবটটি তৈরি করতে সময় লেগেছে ২ মাস ৭ দিন

ঝিনাইদহ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আব্দুর রশিদ মল্লিক বলেন, এ ধরনের উদ্যোগকে আমরা সবসময় স্বাগত জানাই। আর সে কারণেই রোবট তৈরিতে শিক্ষার্থীদের সব ধরনের সহযোগিতা করা হয়েছে। এই রোবট ব্যবহারের মাধ্যমে কৃষকের উৎপাদন খচর কমবে সেই সঙ্গে বাড়বে ফসলের আবাদ।