মাদক মামলার বিচার কাজ ত্বরান্বিত করতে সব সেক্টরকে কাজ করতে হবে



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুষ্টিয়া
মাদক আইন ২০১৮ এর বাস্তবায়নে প্রতিবন্ধকতা ও দূরীকরণের উপর এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত, ছবি: বার্তা২৪.কম

মাদক আইন ২০১৮ এর বাস্তবায়নে প্রতিবন্ধকতা ও দূরীকরণের উপর এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ অরূপ কুমার গোস্বামী বলেছেন, ‘মাদক মামলার বিচার কাজ ত্বরান্বিত করতে সব সেক্টরকে এক যোগে কাজ করতে হবে।’

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকালে কুষ্টিয়া চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবনে এক সম্মেলন কক্ষে মাদক আইন ২০১৮ এর বাস্তবায়নে প্রতিবন্ধকতা ও দূরীকরণের উপর এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছে। সমাজের সর্বস্তর থেকে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হলে মাদক কারবারিরা নিজেদের গুটিয়ে নিতে বাধ্য হবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এ জন্য সবাইকে একজোট হয়ে কাজ করতে হবে। দেশে মাদকের ভয়াবহ আগ্রাসন ঠেকাতে সরকারের নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের পাশাপাশি উচ্চ আদালত থেকেও দিকনির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মুন্সী মো. মশিয়ার রহমানের সভাপতিত্বে এ সময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন- বিজিবির সেক্টর কমান্ডার কর্নেল জিয়া সাদাত খান, অতিরিক্তি পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান, স্পেশাল জেলা ও দায়রা জজ আশরাফুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রেজাউল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ তৌহিদুল ইসলাম, সৈয়দ হাবিবুল ইসলাম, মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক শিরীন আক্তার, অ্যাডভোকেট শ্রাবন্তী মুখার্জি প্রমুখ।

ব্ল্যাস্টের সহযোগিতায় জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর এই কর্মশালার আয়োজন করে।

এ সময় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।