ঠাকুরগাঁওয়ে অজ্ঞাত রোগে মৃত্যু, ঘটনাস্থল পরিদর্শনে মেডিকেল টিম



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঠাকুরগাঁও
ঘটনাস্থল পরিদর্শনে ৪ সদস্য বিশিষ্ট মেডিকেল টিম, ছবি: বার্তা২৪.কম

ঘটনাস্থল পরিদর্শনে ৪ সদস্য বিশিষ্ট মেডিকেল টিম, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় অজ্ঞাত রোগে দুই গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। আরো তিনজন অসুস্থ হয়ে আছেন। এঘটনায় ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসেছেন ঢাকা থেকে ৪ সদস্য বিশিষ্ট একটি মেডিকেল টিম।

মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) ৪ সদস্য বিশিষ্ট একটি মেডিকেল টিম নিহতদের বাড়িতে গিয়ে তাদের সাথে কথা বলেন এবং তথ্য সংগ্রহ করেন। সেই সাথে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা তিনজনের সাথেও কথা বলেছে টিমটি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন,ঠাকুরগাঁওয়ের সিভিল সার্জন ডা. মাহফুজার রহমান সরকার, ঢাকা রোগতত্ত্ব বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডাক্তার ওমর কাইয়ুম, কাজী তাহমিনা করিম, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট কাজী মাসুম, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট মনির উদ্দীন ও বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার মো. আবুল কাশেম।

ঠাকুরগাঁও সিভিল সার্জন ডা. মাহফুজার রহমান বার্তা২৪.কমকে জানান, আজকে ঢাকা থেকে যে টিমটি এসেছে তারা ইতিমধ্যে চিকিৎসাধীন রোগীদের সাথে কথা বলেছে। তাদের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করেছেন। বর্তমানে ঘটনাস্থলে এসে এই টিমটি বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করছে। এরপর তারা এই তথ্য ও নমুনাগুলো ঢাকায় নিয়ে গিয়ে পরীক্ষা করবেন। পরীক্ষা শেষে রিপোর্ট দিলে বুঝা যাবে মৃত্যুর রহস্য।

অজ্ঞাত রোগে নিহতরা হলেন- বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার সনগাঁও গ্রামের হাফিজুল ইসলামের স্ত্রী মিনা (৩৫) ও একই পরিবারের হাজিরুল ইসলামের স্ত্রী পুশিনা (৩২)।

অসুস্থ অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন মৃত গিয়াস উদ্দীনের স্ত্রী হাজেরা বেগম (৩৪), মফিজুল ইসলামের স্ত্রী আলিয়া (৩২) ও নিহত মিনা বেগমের মেয়ে তানজিনা।

পরিবারের সদস্যরা জানান, শুক্রবার রাতে হঠাৎ করেই মারা যায় হাফিজুলের স্ত্রী মিনা। এরপর শনিবার রাতে হাজিরুলের স্ত্রী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে বালিয়াডাঙ্গী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসা নেওয়ার পরে তাকে বাসায় নিয়ে আসা হলে রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে তিনিও মারা যান। পরে পরিবারের আরও তিন সদস্য অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদের ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।