মাইকিং করে করোনার ঔষধ বিক্রি, ভুয়া ডাক্তারের কারাদণ্ড

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নেত্রকোনা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলায় মাইকে প্রচার দিয়ে করোনাভাইরাসের ভুয়া ঔষধ বিক্রির অপরাধে এক ভুয়া ডাক্তার ও তার এক সহযোগীকে দুই বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) সন্ধ্যায় কেন্দুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আল ইমরান রুহুল ইসলাম মেডিকেল এবং ডেন্টাল কাউন্সিল আইনে ভুয়া ডাক্তারকে দুই বছর ও ভোক্তা অধিকার আইনে সহযোগীকে দুই বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, কথিত ভুয়া ডাক্তার ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলার আশরাফুল হায়দারের ছেলে রাশেদুল ইসলাম এবং সহযোগী ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মধুপুর গ্রামের হাদিস মিয়ার ছেলে রুবেল (২৭)।

এ বিষয়ে কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামানের সাথে কথা হলে তিনি জানান, দণ্ডপ্রাপ্ত দুই ব্যক্তি কেন্দুয়া উপজেলার গন্ডা ইউনিয়নের পাহাড়পুর গ্রামের ঈদগাহ মাঠে মাইকে প্রচার দিয়ে করোনাভাইরাসের চিকিৎসক সেজে ভেজাল ঔষধ বিক্রি করছিল। খবর পেয়ে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

পরে সন্ধ্যায় ইউএনও কার্যালয়ে তাদেও হাজির করা হলে ভ্রাম্যমাণ আদালত ভুয়া ডাক্তার ও তার সহযোগীকে দুই বছর করে কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়। দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের শুক্রবার (১৩ মার্চ) নেত্রকোনা আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ হবে বলেও জানান ওসি।

আপনার মতামত লিখুন :