পঞ্চগড়ে বাদাম চাষে ব্যস্ত কৃষক

মোহাম্মদ রনি মিয়াজী, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, পঞ্চগড়
বাদামের বিজ বপন করছে কৃষক/ছবি: বার্তা২৪.কম

বাদামের বিজ বপন করছে কৃষক/ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

পঞ্চগড়ের মাটি বেলে দোআঁশ ও উর্বর হওয়ায় বিভিন্ন আবাদের জন্য বেশি উপযোগী। এ জেলায় ধান, গম, ভুট্টা, মরিচ, টমেটো, পাট, তিলসহ বাদামের ব্যাপক ফলন হওয়ায় কৃষকেরা এসব আবাদের দিকে ঝুঁকছে। তবে গত কয়েক বছর থেকে বাদামের ব্যাপক চাহিদা ও দাম পাওয়ায় কৃষকরা বাদাম চাষে বেশি আগ্রহী হচ্ছেন।

এ জেলার যেসব উঁচু জমিতে কোন আবাদই হতো না সেসব জমিতে বাদাম চাষ করে কৃষকরা ভালো ফলন ও দাম পেয়ে বাদাম চাষের দিকে ঝুঁকছেন। এ জেলার সদর, আটোয়ারী, দেবীগঞ্জ ও বোদা উপজেলার বাদাম চাষ হলেও তেঁতুলিয়া উপজেলায় বাদাম চাষ হতো না। তবে গত কয়েক বছর ধরে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের এই উপজেলায় বাদাম চাষ শুরু হয়েছে।

কৃষাণীরাও বাদামের বীজ বপনের কাজে ব্যস্ত

শুক্রবার (১৩ মার্চ) সকালে জেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে কৃষক-কৃষাণীরা বাদামের বীজ বপনে ব্যস্ত সময় পার করছে। শুধু জমিতে বীজ বপন নয় বাদামের বীজ সংগ্রহ করতে কৃষকরা হাট-বাজারেও ভিড় করছেন।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে এ পর্যন্ত প্রায় ১২ হাজার হেক্টর জমিতে বাদাম চাষ হয়েছে। এখন জেলার ৫ উপজেলায় বাদাম হচ্ছে।

এ বিষয়ে জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলার কৃষক রহিদুল ইসলাম জানান, স্বল্প খরচে বাদামের চাষ করে গত বছর ভাল দাম পাওয়ায় চলতি মৌসুমে বেশি করে বাদামের চাষ করছি। আশা করি আবহাওয়া ভাল থাকলে লাভবান হব।

বাদামের বীজ কিনতে বাজারে ভিড় করছেন চাষিরা

একই কথা জানান, সদর উপজেলার কালিয়াগঞ্জ এলাকার কৃষাণী মিরা রানী। তিনি জানান, বাদামের বীজ বপনের সময় হওয়ায় বাড়ির সব কাজ শেষ করে স্বামীর কাজে সহযোগিতা করছি। ফলন ও লাভ ভালো হওয়ায় প্রতি বছর আমরা বাদামের চাষ করি।

এদিকে পঞ্চগড় জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ আবু হানিফ বার্তা২৪.কমকে জানান, চলতি মৌসুমের ইতোমধ্যে বাদামের বীজ বপন শুরু হয়েছে। এ জেলার মাটি উর্বর ও উপযোগী হওয়ায় স্বল্প খরচে ফলন ভাল পাওয়ায় কৃষকরা দিন দিন বাদাম চাষে ঝুঁকছে। কৃষি বিভাগ থেকে আমরা কৃষকদের বিভিন্ন সেবা ও পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছি।

আপনার মতামত লিখুন :