করোনা সম্পর্কে জানেন না বেদে পল্লীর বাসিন্দারা

গনেশ দাস, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বগুড়া
কাজ না থাকায় বেদে পল্লীর পুরুষরা বসে তাস খেলছেন।

কাজ না থাকায় বেদে পল্লীর পুরুষরা বসে তাস খেলছেন।

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনা ভাইরাস কী সে সম্পর্কে জানেন না বগুড়ার বেদে পল্লীর বাসিন্দারা। তাদেরকে বোঝানোর জন্য কেউ ওই পল্লীতে যানও না। তবে এই টুকু তারা বোঝেন যে কোনো এক ভাইরাসের প্রভাবে তাদের ব্যবসায়ে ভাটা পড়েছে।

আর এ কারণে নিজেরাও খেতে পারছেন না, শিশুরাও রয়েছে অনাহারে। সামনের ১০ দিন কী খেয়ে বেঁচে থাকবেন এই চিন্তা বেদে পল্লীর বাসিন্দাদের চোখে মুখে।

বগুড়া শহরতলীর পূর্ব পালশায় গত দুই সপ্তাহ ধরে ৭০টি বেদে পরিবার বসবাস করছে।

বুধবার (২৫ মার্চ) সকালে তাদের পল্লীতে গিয়ে দেখা যায় করুণ চিত্র। বেদেদের ব্যবসায়ে ভাটা পড়ায় অলস সময় কাটছে পুরুষদের। কাজ না থাকায় পুরুষরা বসে তাস খেলছেন। আর বেদে নারীরা সাপ নিয়ে শহরে ঘুরে ঘুরে ৫-১০ টাকা করে সাহায্য তুলে তাই দিয়ে সংসার চালাচ্ছেন। শিশুরা ক্ষুধার জ্বালায় কান্না করছে।

বগুড়ার বেদে পল্লী।

বেদে পরিবারের সদস্য সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘আমরা যাযাবর মানুষ। সরকারি সব ধরনের সুযোগ সুবিধা থেকে আমরা বঞ্চিত। বেদেদের মূল পেশায় অনেক আগেই ভাটা পড়েছে। এখন পুরুষ সদস্যরা ইমিটেশনের চেইন, মালা বিক্রি করেন। তাবিজ কবজে মানুষের বিশ্বাস কমে যাওয়ায় সেগুলো বিক্রি নাই বললেই চলে।’

করোনা ভাইরাস প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘করোনা ভাইরাস সম্পর্কে আমরা কিছু জানি না। এ সম্পর্কে কেউ কিছু আমাদের বলেও নাই। তবে কী একটা ভাইরাসের কারণে আমাদের ব্যবসায়ে ভাটা পড়েছে। যেহেতু এই ভাইরাস সম্পর্কে আমরা কিছু জানি না তাই আতঙ্ক কাজ করছে না।’

বেদেদের সরদার সবুজ খান বলেন, ‘আমাদের নির্দিষ্ট কোনো ঠিকানা না থাকায় এবং অপরিচিত হওয়ায় পুরুষ সদস্যদের কেউ দিনমজুরের কাজে নিতে চান না।’

আপনার মতামত লিখুন :