হাতে প্ল্যাকার্ড, মুখে সচেতনতার বার্তা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নাটোর
হাতে প্ল্যাকার্ড, মুখে সচেতনতার বার্তা

হাতে প্ল্যাকার্ড, মুখে সচেতনতার বার্তা

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশের ক্রান্তিকালে বারবার ত্রাতা হিসেবে আবির্ভূত হয় দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনী। জাতীয় দুর্যোগ আর সংকটলগ্নে মানবতার সেবায় সেনাবাহিনীর প্রচেষ্টা প্রশংসিতও হয়েছে বারবার। এবারও করোনা মোকাবিলায় সামাজিক দূরত্ব সৃষ্টিসহ জনসচেতনায় মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনী।

বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) সকাল থেকে নাটোর শহরসহ আশপাশের এলাকায় টহল শুরু করে সেনাবাহিনী। তবে এবার সেনাবাহিনী তার চিরাচরিত টহলের পাশাপাশি প্ল্যাকার্ড-মাইক হাতে রাস্তার মোড়ে মোড়ে নেমে মানুষকে ঘরে থাকার আহ্বান জানাচ্ছে।

দুপুরে শহরের বগুড়া বাসস্ট্যান্ড এলাকায় একদল সেনা সদস্য পায়ে হেঁটে টহল শুরু করে। এসময় তাদের হাতে ছিলো প্ল্যাকার্ড। প্ল্যাকার্ডে লেখা স্লোগান ছিলো- ঘন ঘন হাত ধুই/করোনা থেকে নিরাপদ রই, আতঙ্ক না ছড়াই/সতর্ক থাকতে সাহায্য করি, বিদেশ থেকে এসেছি যারা/কোয়ারেন্টাইনে থাকবো তারা। এসব স্লোগানগুলোই মাইক দ্বারা ঘোষণা করা হয়।

নাটোর জেলায় দায়িত্বপ্রাপ্ত সেনাবাহিনী দলের প্রধান মেজর কামরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, তারা জনগণকে ঘরে থাকতে সচেতনতা সৃষ্টির উপর সবচেয়ে জোর দিয়েছেন। এই সংকটময় মুহূর্তে মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী।

এদিকে নাটোর জেলা প্রশাসনের ১৫টি ভ্রাম্যমাণ আদালত সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতে একযোগে মাঠে নেমেছে।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শরীফ শাওন বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালত জনসমাগম এবং আড্ডাস্থল থেকে সাধারণ মানুষদের সরিয়ে দিচ্ছে। পাশাপাশি নিজ নিজ ঘরে অবস্থান করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছে।

নাটোরের জেলা প্রশাসক মো. শাহরিয়াজ জানান, ১৫টি মোবাইল কোর্টের মধ্যে নাটোর শহরে ৪টি এবং সাতটি উপজেলায় ১১টি ভ্রাম্যমাণ আদালত কাজ করছে।

আপনার মতামত লিখুন :