সেনাবাহিনীর টহলে জনশূন্য বাজারসহ অভ্যন্তরীণ সড়ক



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, লক্ষ্মীপুর
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে সেনাবাহিনী ও পুলিশ সদস্যদের নিয়ে টহল পরিচালনা করা হয়, ছবি: বার্তা২৪.কম

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে সেনাবাহিনী ও পুলিশ সদস্যদের নিয়ে টহল পরিচালনা করা হয়, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কমাতে লক্ষ্মীপুরে সঙ্গরোধ নিশ্চিত করতে সেনাবাহিনীর টহল অব্যাহত আছে। নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে শুক্রবার (২৭ মার্চ) রায়পুর উপজেলার বিভিন্ন হাটবাজারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রাজীব হোসেন ও শারমীন সুমির নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় সেনাবাহিনীর টহলের বার্তা পেয়ে বিভিন্ন হাটবাজার ও উপজেলা অভ্যন্তরীণ সড়কগুলো জনশূন্য হয়ে পড়ে।

সূত্র জানায়, রায়পুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাবরিন চৌধুরীর নির্দেশনায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে সেনাবাহিনী ও পুলিশ সদস্যদের নিয়ে টহল পরিচালনা করা হয়। বাসাবাড়ি বাজার, বাবুরহাট বাজার, মধ্য বাজার, খাসেরহাট বাজার, হায়দরগঞ্জ বাজার ও মিতালি বাজারসহ উপজেলার প্রত্যেকটি ইউনিয়নে টহল দেওয়া হয়েছে। এ সময় তারা জনগণকে সতর্ক করে প্রয়োজন ছাড়া বাসাবাড়ি থেকে বের না হওয়ার জন্য মাইকিং করেন। করোনা সংক্রমণ রোধে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

সবাইকে ঘরে থাকতে মাইকিং করা হয়

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, পণ্যবাহী ট্রাকছাড়া মোটরসাইকেলসহ সকল ধরণের যানবাহন চলাচল বন্ধ। ওষুধের ফার্মেসি, মুদি ও কাঁচা পণ্যের দোকান ছাড়া চায়ের দোকানসহ অন্যসব প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। এরমধ্যে মুদি ও কাঁচা পণ্যের দোকান সন্ধ্যা ৬টার আগে বন্ধের নির্দেশনায় জেলাব্যাপী মাইকিং করে প্রচারণা চালানো হচ্ছে।

লক্ষ্মীপুর জেলা সিভিল সার্জন আবদুল গাফ্ফার বলেন, ‘এখনো পর্যন্ত জেলায় কোনো করোনা রোগী শনাক্ত হয়নি। এছাড়া সঙ্গরোধ নিশ্চিত করতে ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে সেনাবাহিনীর টহল চলছে। বাড়িতে সঙ্গরোধে থাকা ব্যক্তিদেরকে স্থানীয় স্বাস্থ্যকর্মীদের দিয়ে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।’