ক্রেতা না পেয়ে টমেটো ফেলেই চলে গেলেন বৃদ্ধ চাষি!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নাটোর
ফেলে যাওয়া  টমেটো ছাগলে খাওয়ার ছবি ফেসবুকে ভাইরাস হয়/ছবি: সংগৃহীত

ফেলে যাওয়া টমেটো ছাগলে খাওয়ার ছবি ফেসবুকে ভাইরাস হয়/ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নাটোরের নলডাঙ্গা হাটে ক্রেতা না পেয়ে প্রায় ১০ কেজি টমেটো রাস্তায় ফেলে চলে গেছেন হাফিজ উদ্দীন নামে এক বৃদ্ধ চাষি (৬০)। ফেলে দেওয়া সেই টমেটো খেয়েছে কতগুলো ছাগল। এই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

শনিবার (২৮ মার্চ) নলডাঙ্গা বাজারে সাপ্তাহিক হাট বন্ধ করা হলে ওই বৃদ্ধ চাষি টমেটোগুলো নলডাঙ্গা ব্রিজের পাশে ফেলে রেখে চলে যান।

জানা যায়, শনিবার দুপুরে নলডাঙ্গা হাটে জনসমাগমের একটি ছবি প্রকাশ করে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন কিছু ব্যক্তি। বিষয়টি জানতে পেরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাকিব আল রাব্বি নলডাঙ্গা হাটে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এক প্রতিষ্ঠান ও তিন ব্যক্তিকে ৮ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করেন। তিনি অল্প সময়ের মধ্যে হাট শেষ করে ব্যবসায়ীদের ফিরে যেতে নির্দেশ দিলে সবাই চলে যান। এতে অনেক ব্যবসায়ী তাদের পণ্যে নিয়ে ফিরে যান। ফিরে যাবার সময় বৃদ্ধ হাফিজ উদ্দীনও তার টমেটোগুলো ব্রিজের পাশে ফেলে চলে যান।

নলডাঙ্গা হাটের পাইকারী বিক্রেতারা জানান, সপ্তাহে শনি ও মঙ্গলবার দুদিন বসা এই হাটে পাইকারি ও খুচরা দরে সস্তায় সবজি বিক্রি হয়। মূলত স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত সবজিই এই হাটে বিক্রি করা হয়। পরিবহন বন্ধ থাকায় শনিবার সবজি কিনতে অনেক পাইকারই আসেনি এখানে। তাছাড়া হাট সংক্ষিপ্ত করার নির্দেশনা দেয়ায় টমেটো, বেগুন, করলা, মিষ্টাকুমড়াসহ বেশ কিছু সবজি কম দামে খুচরা ব্যবসায়ীদের কাছে চাষিরা বিক্রি করে চলে যান। গত হাটে (মঙ্গলবার) ৫ থেকে ৭ টাকা কেজি টমেটো বিক্রি হয়েছে এখানে। তখন বিক্রি ছিলো। শনিবার ২ টাকা কেজিতেও টমেটো কেনার ব্যাপারে ক্রেতাদের আগ্রহ ছিলো না।

জেলা পরিষদ সদস্য রইস উদ্দীন জানান, নলডাঙ্গায় ব্যাপক পরিমাণে শাক-সবজি উৎপাদিত হয়। বাজারে সরবরাহ বাড়লে দাম পড়ে যাওয়া নতুন কোনো ঘটনা নয় এখানে। তখন অনেক চাষিই পরিবহন খরচ বাঁচাতে সবজি ফেলে চলে যান, যা বৃদ্ধ ব্যবসায়ী করেছেন।

আপনার মতামত লিখুন :