এলাকাবাসীর স্বেচ্ছাশ্রমে শ্যামগঞ্জে জীবাণুনাশক স্প্রে

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, গৌরীপুর (ময়মনসিংহ)
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ময়মনসিংহ ও নেত্রকোনা জেলার সীমান্তবর্তী গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যিক এলাকা শ্যামগঞ্জ। প্রায় ৫০ হাজার লোকের বসবাস এখানে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে আশেপাশের এলাকায় জীবাণুনাশক ছিটানো হলেও শ্যামগঞ্জে সরকারি কোনো উদ্যোগ নেয়া হয়নি। তাই করোনা প্রতিরোধ ও শ্যামগঞ্জবাসীকে নিরাপদ রাখতে সচেতন বাসিন্দারা নিজেরাই টাকা সংগ্রহ করে স্বেচ্ছাশ্রমে জীবাণুনাশক ছিটানোর উদ্যোগ নিয়েছে।

রোববার (২৯ মার্চ) বিকালে স্বপ্ন সমবায় সমিতির সহায়তায় ও এলাকাবাসীর স্বেচ্ছাশ্রমে ময়মনসিংহ-নেত্রকোনা মহাসড়কের শ্যামগঞ্জ বাজারের এক কিলোমিটার এলাকায় জীবাণুনাশক ছিটানো হয়। এসময় সড়কের আশেপাশের দোকানগুলোতেও জীবাণুনাশক ছিটানো হয়।

স্থানীয় বাসিন্দা গোবিন্দ বণিক বলেন, করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধ ও জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে আমরা দশ দিন স্বেচ্ছাশ্রমে জীবাণুনাশক ছিটানোর উদ্যোগ নিয়েছি। এই কাজে অনেকেই সহযোগিতা করছেন। সবার সহযোগিতা পেলে আমাদের কাজ আরো সহজ হয়ে যাবে।

আরেক বাসিন্দা তিলক রায় টুলু বলেন, শ্যামগঞ্জ আঞ্চলিক বাজার থেকে প্রতিবছর নেত্রকোনা ও ময়মনসিংহ প্রশাসন বিপুল পরিমাণ রাজস্ব আদায় করে। কিন্তু শ্যামগঞ্জবাসীর সুরক্ষায় প্রশাসন কোনো উদ্যোগ নেয়নি। তাই স্বেচ্ছাশ্রমে আমরা জীবাণুনাশক ছিটাচ্ছি পাশাপাশি জনগণকে সচেতন করছি। আশা রাখি প্রশাসন এ বিষয়ে নজর দিবেন।

জীবাণুনাশক ছিটনোয় স্বেচ্ছাশ্রমে অংশ নেন বেলায়েত হোসেন মনোজ, মফিদুল ইসলাম অসীম, মিল্টন খান, জয়ন্ত রায়, টুটন খান, মামুন আকন্দ, সৌরভ, অপূর্ব, লিটন কুমার রায় পল্টু প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :