সেপটিক ট্যাংকের বিস্ফোরণ, ছেলের পর মায়ের মৃত্যু



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নারায়ণগঞ্জ
সেপটিক ট্যাংকের বিস্ফোরণ

সেপটিক ট্যাংকের বিস্ফোরণ

  • Font increase
  • Font Decrease

নারায়ণগঞ্জ শহরের বাবুরাইল এলাকায় সেপটিক ট্যাংকের বিস্ফোরণে ৮ মাস বয়সী এক শিশুর পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মায়ের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এর আগে গত ২৭ মার্চ ভোরে বিস্ফোরণে ৮ মাস বয়সী এক শিশু নিহত হয়। গুরুতর আহত হয় শিশুটির পরিবারের আরও ৪ জন। নিহত গৃহবধূ ফেরদৌসী বেগম বাবুরাইল বটতলা এলাকার স্থানীয় ইট বালুর ব্যবসায়ী তোফাজ্জল হোসেনের স্ত্রী।

বর্তমানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে রয়েছেন, তোফাজ্জল হোসেন (৫০) তার মেয়ে হালিমা বেগম (১১) ও ছেলে মোহাম্মদ হোসেন (৯)।

স্বজনরা জানান, গত ২৭ মার্চ ভোরে বাড়ির সেপটিক ট্যাংক বিস্ফোরণ হলে দেয়াল ধসে পড়ে। এতে দেয়াল চাপা পড়ে পরিবারের পাঁচজনই গুরুতর আহত হন। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আট মাসের শিশু আহাম্মদ মারা যায়। আজ সকালে শিশুটির মা ফেরদৌসী বেগমও চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

স্থানীয়দের অভিযোগ, এই এলাকার সড়কের নিচে গ্যাস পাইপের লিকেজ থেকেই তোফাজ্জল হোসেনের বাড়ির সেপটিক ট্যাংকের বিস্ফোরণ হয়েছে। একই কারণে পাশের একটি ভবনের সেপটিক ট্যাংকও বিস্ফোরণ হয়েছে তবে তাতে কেউ হতাহত হননি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) আব্দুল হাই জানান, সেপটিক ট্যাংক বিস্ফোরণের ঘটনায় আহত মায়ের মৃত্যুর মৌখিকভাবে খবর পেয়েছি। বিষয়টি বিস্তারিত ভাবে খোঁজ নিচ্ছি।