ঝিনাইদহে করোনা প্রতিরাধে দুই চিত্রশিল্পীর স্বেচ্ছাশ্রম



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঝিনাইদহ
ঝিনাইদহে করোনা প্রতিরাধে দুই চিত্রশিল্পীর স্বেচ্ছাশ্রম

ঝিনাইদহে করোনা প্রতিরাধে দুই চিত্রশিল্পীর স্বেচ্ছাশ্রম

  • Font increase
  • Font Decrease

মহামারি করোনাভাইরাসে ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। বাংলাদেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা কম হলেও দেশজুড়ে যেন চলছে অঘোষিত লকডাইন। ঝিনাইদহেও এর ব্যতিক্রম নয়। বন্ধ রয়েছে জেলার সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, দোকান পাট। তবে খোলা রয়েছে মুদি দোকান, ফার্মেসি ও কিছু কাঁচাবাজার।

এতো কিছুর পরও করোনার সংক্রমণ থেকেই যাচ্ছে। এই সংক্রমণ রোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে কাজ করে চলেছেন দুইজন চিত্রশিল্পী নিধির বিশ্বাস ও শাহীন চারুদেশ। গত ২ দিন ধরে শহরের পুরাতন ডিসি কোর্ট এলাকা, পায়রা চত্বর, আরাপপুর, প্রেরণা একাত্তর চত্বর, নতুন হাটখোলাসহ বিভিন্ন স্থানে দোকানের সামনে বৃত্ত এঁকে চলেছেন। দোকান বা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আসা ক্রেতাদের সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে ৩ ফিট দূরে দূরে বৃত্ত আঁকা হয়েছে। বৃত্ত’র মধ্য থেকে ক্রেতারা তাদের পণ্যসামগ্রী কিনছেন।

দোকানের সামনে বৃত্ত আঁকছেন দুই চিত্রশিল্পী

সচেতনতামূলক এই কর্মসূচিতে খুশি শহরবাসী। শহরের পুরাতন ডিসি কোর্ট এলাকার একটি দোকানে আসা ক্রেতা বশির উদ্দিন বলেন, দোকানের সামনে বৃত্ত আঁকার কারণে আমরাও সচেতন হয়েছি। কেননা অন্যান্য সময় দোকানে গেলে একে অন্যের কাছাকাছি থাকতাম। সেই অভ্যাস এখনও পরিবর্তন হয়নি। বৃত্ত দেখে করোনার কথা মনে করে আমরা তা মেনে চলছি। এ ধরনের উদ্যোগ জেলার অন্যান্য উপজেলায় গ্রহণ করা হলে কিছুটা হলেও করোনা প্রতিরোধ করা সম্ভব।

এ ব্যাপারে চিত্রশিল্পী নিধির বিশ্বাস বলেন, অফিস-আদালত, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কারণে আমার মত অন্যান্য চিত্রশিল্পীদের আয়ও কমে গেছে। বাড়িতে বসে ছিলাম। হঠাৎ মনে হলো মানুষের উপকারে কিছু করতে হবে, সেই ভাবনা থেকেই চালু থাকা প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের সামনে বৃত্ত আঁকা শুরু করেছি। আর আমাদের এই কাজে সহযোগিতা করেছেন ঝিনাইদহের জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ।