পদ্মা সেতুর পিয়ারের কাজ শেষ হচ্ছে মঙ্গলবার

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, মুন্সীগঞ্জ
পদ্মা সেতুর সর্বশেষ পিয়ারের নির্মাণ কাজ/ছবি: বার্তা২৪.কম

পদ্মা সেতুর সর্বশেষ পিয়ারের নির্মাণ কাজ/ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ হচ্ছে পদ্মা সেতুর সর্বশেষ পিয়ারের নির্মাণ কাজ। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যেও ২৪ ঘণ্টা চলছে সেতুর কাজ।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সেতুর ৪২তম পিয়ারের কাজ শেষ হতে যাচ্ছে। সেতুর অন্যতম চ্যালেঞ্জিং কাজ ছিল পদ্মা নদীতে পিয়ার তৈরি করা। ৪২টি পিয়ারের মধ্যে সর্বশেষ ২৬ নম্বর পিয়ারের কাজ শেষ হচ্ছে মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে।

পদ্মা সেতু প্রকল্প সহকারী প্রকৌশলী মোঃ হুমায়ুন কবির এ খবর বার্তা২৪.কমকে নিশ্চিত করে বলেন, পদ্মা সেতুর সর্বশেষ ৪২তম পিয়ার, পি-২৬, এর কংক্রিটিং এর কাজ দুপুর ১২টায় শুরু হয়েছে। কংক্রিটিংয়ের কাজ শেষ হতে ১০ ঘণ্টার মতো সময় লাগবে। অর্থাৎ আজ রাত ১০ টার দিকে শেষ হয়ে যাবে সেতুর সবগুলো পিয়ার।

তিনি আরও বলেন, মূল সেতুর ৪২টি পিয়ার ছাড়াও মাওয়া প্রান্তের ভায়াডাক্টে ৪৪টি পিয়ার ও জাজিরা প্রান্তের ভায়াডাক্টে ৪৭টি পিয়ার আছে। সব মিলিয়ে ১৩৩টি পিয়ারের কাজ শেষ হতে যাচ্ছে আজ। সংশোধিত প্রোগ্রাম অনুযায়ী সেতুর শেষ পিয়ার করার লক্ষ্য ছিল ২০২০ সালের ৩০ এপ্রিল।

তিনি বলেন, এ সকল পিয়ার সম্পূর্ণ করতে বেশ কিছু নতুন টেকনোলোজি ব্যবহৃত হয়েছে যা আগে কখনো এখানে হয়নি।

গত শনিবার (২৮ মার্চ) সকালে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে পদ্মা সেতুর ২৭তম স্প্যান বসানো হয়। ফলে দৃশ্যমান হয় সেতুর ৪০৫০ মিটার। বর্তমানে ৩৯টি স্প্যান আছে প্রকল্প এলাকায়। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। মূল সেতু নির্মাণের কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদী শাসনের কাজ করছে চীনের আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন।
এদিকে

বাংলাদেশ সেনা বাহিনীর কঠোর নিরাপত্তায় চলছে সেতুর কাজ। বিভিন্ন ভাগে ভাগ করে সেনা বাহিনীর ২৪ ঘণ্টা চলছে মহড়া। প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সেতু নির্মাণ এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়। মূলত বিদেশিদের নিরাপত্তা দিতেই এমন ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :