প্রতিবন্ধী দিবসে জ্যোতি সিনহার চলচ্চিত্র



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি : সংগৃহিত

ছবি : সংগৃহিত

  • Font increase
  • Font Decrease

রূপা যখন শহরজীবনে সম্পর্ক-চাকরি নানা বিষয়ে সমস্যায় জর্জরিত, সে নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেয়, এমন সময় আলো নামের একটি মেয়ের টেক্সট আসে মেসেঞ্জারে। সে বলে, তার দুঃখের কাছে পৃথিবীর আর সব দুঃখ তুচ্ছ। রূপা আর আলোর মধ্যে একটা ভার্চুয়াল গভীর সম্পর্ক গড়ে ওঠে। আলোর করুণ গল্প শুনে রূপা ভুলে যায় নিজের জীবনের যন্ত্রণা। একদিন রূপা চলে যায় আলোর কাছে। দুজনে মিলে মুক্তির স্বাদ খুঁজে পায়। কিন্তু এর মধ্যে রূপার সংকটগুলো বাধা হয়ে দাঁড়ায়। শেষ পর্যন্ত রূপা কি পারবে আলোর জীবনে প্রকৃত সহযাত্রী হয়ে থাকতে?

মানবিকতার টানাপড়েনের এমন গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘আলো আমার আলো’ নামের মুক্তদৈর্ঘ্য সিনেমা। আলো নামের একটি পঙ্গু মেয়ের সত্যিকারের গল্প নিয়ে। সেখানে জ্যোতি সিনহা অভিনয় করছেন রূপা চরিত্রে। আলোর ভূমিকায় অভিনয় করছেন অপর্ণা বন্দনা। এতে আরো অভিনয় করেছেন মণি বড়ুয়া, বিলকিস বেগম, বিধান সিংহ সহ আরো অনেকেই। কাহিনিচিত্রটির গল্প, চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় শুভাশিস সিনহা। প্রযোজক উত্তম কুমার সিংহ।

সিনেমাটিতে কলকাতার প্রখ্যাত শিল্পী মৌসুমী ভৌমিক গান করেছেন। আগামী ৩ ডিসেম্বর বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবসে বঙ্গ ড্রামার ইউটিউব চ্যানেলে কাহিনিচিত্রটি প্রকাশিত হবে।

   

ক্যানসার নয়, দাঁতের চিকিৎসায় সিঙ্গাপুরে সাবিনা ইয়াসমিন



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ক্যানসার নয়, দাঁতের চিকিৎসা করাতে সিঙ্গাপুরে দেশের কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন।

এর আগে, খবর ছড়ায় ওরাল ক্যানসারে আক্রান্ত সাবিনা ইয়াসমিন। বিষয়টি সাবিনা ইয়াসমিনের নজরে আসলে শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় এক অডিও বার্তায় তিনি বিভ্রান্তিকর তথ্য না ছড়ানোর অনুরোধ করেন।

তিনি বলেন, অযথা কেউ বিভ্রান্তিমূলক তথ্য সামজিক যোগাযোগ মাধ্যম বা গণমাধ্যমে দিয়ে জাতিকে বিভ্রান্তিকর পরিস্থিতিতে ফেলবেন না। যা আমার এবং পৃথিবীর আনাচে কানাচে ছড়িয়ে থাকা ভক্তদের জন্য কষ্টকর।

তিনি আরও বলেন, সিঙ্গাপুরে চেকাপে এসে আমার দাঁতের একটা সমস্যা দেখা যায়। চিকিৎসক আমাকে সেটা রিমুভ করতে বলেন। তারই প্রেক্ষিতে গত ৭ ফেব্রুয়ারি ছোট একটা সার্জারির মাধ্যমে তা সম্পন্ন হয়। বর্তমানে ডাক্তারের অবজারভেশনে আছি। এরপর ডাক্তার যা বলেন যেভাবে ওষুধ দেন বা যা করতে বলেন সেভাবেই আমি চলবো ইনশাআল্লাহ। সবার দোয়া নিয়ে দেশে ফিরে আসবো।

এর আগে ২০০৭ সালে ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিলেন দেশের কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন। সে সময় চিকিৎসা নিয়ে ক্যানসার জয় করে গানে নিয়মিত হয়েছিলেন তিনি।

পাঁচ দশকেরও বেশি সময় ধরে গানের ভুবনে বিচরণ করছেন সাবিনা ইয়াসমিন। উপমহাদেশের বিখ্যাত দুই কণ্ঠশিল্পী কিশোর কুমার ও মান্না দে’র সঙ্গেও গান গেয়েছেন সাবিনা ইয়াসমিন।

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের গানের পাশাপাশি তিনি দেশাত্মবোধক গান থেকে শুরু করে উচ্চাঙ্গ, ধ্রুপদী, লোকসঙ্গীত ও আধুনিক বাংলা গানসহ বিভিন্ন ধারার নানান আঙ্গিকের সুরে গান গেয়ে নিজেকে দেশের অন্যতম সেরা সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। চলচ্চিত্রের গানে কণ্ঠ দিয়ে তিনি ১৪টি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেছেন। শিল্পকলার সঙ্গীত শাখায় অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার তাকে ১৯৮৪ সালে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক রাষ্ট্রীয় সম্মাননা একুশে পদক এবং ১৯৯৬ সালে সর্বোচ্চ বেসামরিক রাষ্ট্রীয় সম্মাননা স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত করে।

সাবিনা শৈশব থেকে গানের তালিম নেয়া শুরু করেন। তিনি সাত বছর বয়সে প্রথম মঞ্চানুষ্ঠানে অংশ নেন এবং খেলাঘর নামে একটি বেতার অনুষ্ঠানে ছোটদের গান করতেন। ১৯৬২ সালে নতুন সুর চলচ্চিত্রে রবীন ঘোষের সুরে ছোটদের গানে অংশ নেন। চলচ্চিত্রে পূর্ণ নেপথ্য সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে তার আত্মপ্রকাশ ঘটে ১৯৬৭ সালে আগুন নিয়ে খেলা চলচ্চিত্রের মধ্য দিয়ে। ১৯৭২ সালে অবুঝ মন চলচ্চিত্রের ‘শুধু গান গেয়ে পরিচয়’ গানে কণ্ঠ দিয়ে তিনি প্রথম জনপ্রিয়তা অর্জন করেন।

এ শিল্পীর উল্লেখযোগ্য গানগুলোর মধ্যে রয়েছে: সব সখীরে পার করিতে, এই পৃথীবির পরে, মন যদি ভেঙে যায়, ও আমার রসিয়া বন্ধুরে, জীবন মানেই যন্ত্রণা, জন্ম আমার ধন্য হলো মা গো, সব ক’টা জানালা খুলে দাও না, ও আমার বাংলা মা, মাঝি নাও ছাড়িয়া দে, সুন্দর সুবর্ণ, একটি বাংলাদেশ তুমি জাগ্রত জনতার প্রভৃতি।

সাবিনা ইয়াসমিন শেষ প্লেব্যাক করেছেন প্রয়াত চিত্রনায়িকা ও নির্মাতা কবরী পরিচালিত ‘এই তুমি সেই তুমি’ ছবির ‘দুটি চোখে ছিল কিছু নীরব কথা’ শিরোনামের একটি গানে। ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে গানটিতে কণ্ঠ দেন তিনি। এ ছাড়া কবরীর ‘এই তুমি সেই তুমি’ ছবির চারটি গানে সুরও দেন তিনি। এর মাধ্যমে ক্যারিয়ারে প্রথমবার তিনি সুরকার হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন।

;

প্রধানমন্ত্রীর ওপর এবার অ্যানিমেশন সিনেমা



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
অ্যানিমেশন সিনেমা ‘হাসিনা: দি আনটোল্ড স্টোরি’র পোস্টার

অ্যানিমেশন সিনেমা ‘হাসিনা: দি আনটোল্ড স্টোরি’র পোস্টার

  • Font increase
  • Font Decrease

ছয় বছর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে প্রামাণ্যচিত্র ‘হাসিনা : আ ডটারস টেল’ নির্মাণ করেছিলেন পিপলু আর খান। এবার তাকে নিয়ে নির্মিত হতে যাচ্ছে থ্রিডি অ্যানিমেশন সিনেমা, নাম ‘হাসিনা: দি আনটোল্ড স্টোরি’। এটি নির্মাণ করছেন রাতুল বিশ্বাস।

তিনি জানান, সিনেমাটি নির্মিত হবে নাল স্টেশন স্টুডিও থেকে। তত্ত্বাবধানে থাকছে আইসিটি বিভাগ। আর সিনেমাটি নিয়ে ইতিমধ্যেই তিনি দেখা করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সঙ্গে। মন্ত্রী আশ্বাস দিয়েছেন, সিনেমাটি নির্মাণ করতে সর্বোচ্চ সহায়তা করবে আইসিটি বিভাগ।

‘হাসিনা: দি আনটোল্ড স্টোরি’ সিনেমার গল্প শুরু হবে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় থেকে। দেখা যাবে প্রধানমন্ত্রীর ২০৪১ সালের পরিকল্পনা পর্যন্ত।
নির্মাতার কথায়, ‘প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে লেখা নানা বই থেকে আমরা চিত্রনাট্য তৈরির চেষ্টা করছি। তবে চিত্রনাট্য চূড়ান্ত করা হবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে। কারণ, তিনিই সবচেয়ে ভালো জানেন, সেই সময়ে কী ঘটেছিল, কীভাবে ঘটেছিল, কেমন ছিল তার মানসিক অবস্থা।’

রাতুল বলেন, ‘এই সিনেমার গল্প আমরা হয়তো সবাই জানি। কিন্তু ভিজ্যুয়ালটা দেখেনি অনেকেই। সিনেমাটি নির্মিত হবে উন্নতমানের টেকনোলজি দিয়ে। যেমনটা হয় হলিউডে। সিনেমা দেখে যেন মনে হয়, এটা রিয়েল শুট করা। এখানে থাকবে এআই প্রযুক্তির ব্যবহার। আমরা এমন একটি প্রজেক্ট নির্মাণ করতে চাই, যা দিয়ে আন্তর্জাতিক বাজারে লড়তে পারি। আমাদের প্রধান লক্ষ্য সিনেমাটি দিয়ে অস্কারে ফাইট দেওয়া।’

এদিকে, সম্প্রতি প্রকাশ করা হয়েছে সিনেমার টিজার। ১ মিনিট ৩৫ সেকেন্ডের ভিডিওতে দেখা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে।

জানা গেছে, ‘দি আনটোল্ড স্টোরি’র ব্যাপ্তি হবে প্রায় তিন ঘণ্টা। এটি ডাবিং করা হবে বাংলা, হিন্দি ও ইংরেজি ভাষায়। সব ঠিক থাকলে আগামী ২০২৫ সালে প্রেক্ষাগৃহে সিনেমাটি মুক্তি দিতে চান নির্মাতা। এর সহপরিচালক হিসেবে আছেন আরটিবি রুহান, মিউজিকের দায়িত্বে আছেন সালমান জেইম।

;

এখনই মধুচন্দ্রিমায় যাচ্ছেন না রাকুল



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বিয়ের আসরে রাকুল প্রীত সিং ও জ্যাকি ভগনানি

বিয়ের আসরে রাকুল প্রীত সিং ও জ্যাকি ভগনানি

  • Font increase
  • Font Decrease

২১ ফেব্রুয়ারি ধুমধাম করে বিয়ে করেছেন বলিউড অভিনেত্রী রাকুল প্রীত সিং ও নির্মাতা–অভিনেতা জ্যাকি ভগনানি। বিয়ের পর নব দম্পতি কবে মধুচন্দ্রিমায় যাবেন, তা নিয়ে জোর চর্চা বিটাউনে। তাদের মধুচন্দ্রিমার পরিকল্পনা ফাঁস করেছেন রাকুলের শ্বশুর নির্মাতা বাশু ভগনানি।

বার্তা সংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জ্যাকি ও রাকুলের বিয়ের প্রসঙ্গে বাশু ভগনানি বলেছেন, ‘সব ঐতিহ্য বজায় রেখে বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। বিয়েতে উপস্থিত সবাই দারুণ খুশি ছিলেন। নানা কারণে অনেকে বিয়েতে উপস্থিত থাকতে পারেননি। তাদের জন্য নিজের বাড়িতে এক বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করব বলে ভেবেছি।’

বিয়ের আসরে রাকুল প্রীত সিং ও জ্যাকি ভগনানি

পুত্র ও পুত্রবধূর মধুচন্দ্রিমার পরিকল্পনা ফাঁস করে এই খ্যাতনামা চিত্রনির্মাতা বলেন, ‘এপ্রিলে ওরা মধুচন্দ্রিমায় যাওয়ার পরিকল্পনা করেছে।’
এপ্রিলে মুক্তি পাবে অক্ষয় কুমার ও টাইগার শ্রফ অভিনীত ছবি ‘বড়ে মিয়াঁ ছোটে মিয়াঁ’।

বিয়ের আসরে রাকুল প্রীত সিং

মজার ছলে বাশু বলেছেন, ‘আমি ওদের বলেছি ছবিটি যেদিন মুক্তি পাবে, তার পরদিনই মধুচন্দ্রিমায় উড়ে যেতে। এক মাসের জন্য মধুচন্দ্রিমা উদ্যাপন করে আসতে বলেছি।’

বিয়ের আসরে রাকুল প্রীত সিং ও জ্যাকি ভগনানির পরিবার

জ্যাকি ও বাশু ভগনানির পূজা এন্টারটেইনমেন্ট প্রযোজিত ‘বড়ে মিয়াঁ ছোটে মিয়াঁ’ ছবিটি ঈদ উপলক্ষে মুক্তি পেতে চলেছে। সম্ভবত এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে অক্ষয় কুমার এবং টাইগারের এই অ্যাকশন-কমেডি ছবিটি বড় পর্দায় মুক্তি পাবে। ছবিটি পরিচালনা করতে চলেছেন পরিচালক আলী আব্বাস জাফর।

বিয়ের মন্ডপে রাকুল প্রীত সিং ও জ্যাকি ভগনানি
;

ইনারিতুর ছবিতে ডিক্যাপ্রিওর পর টম ক্রুজ



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বাফটা অ্যাওয়ার্ডে ইনারিতু, টম ক্রুজ ও লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও

বাফটা অ্যাওয়ার্ডে ইনারিতু, টম ক্রুজ ও লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও

  • Font increase
  • Font Decrease

‘বার্ডম্যান’-এর বছর খানেক পর বিশ্বখ্যাত মেক্সিকান নির্মাতা আলেহান্দ্রো গঞ্জালেস ইনারিতু নির্মাণ করেন তার দ্বিতীয় ইংরেজি ভাষার ছবি ‘দ্য রেভিন্যান্ট’। যা সাড়া ফেলে দিয়েছিলো বিশ্বজুড়ে। সেই ছবিতে অভিনয় করেছিলেন হলিউড সুপারস্টার লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও। এই ছবিটিই তাকে এনে দিয়েছিল প্রথমবার সেরা অভিনেতা হিসেবে অস্কার অ্যাওয়ার্ড। ‘দ্য রেভিন্যান্ট’ সিনেমাটির জন্য ইনারিতু নিজেও পেয়েছিলেন একাধিক অস্কার।

আবার ইনারিতুর ছবি নিয়ে দর্শক নড়েচড়ে বসেছেন। কারণ, তার নতুন ছবিতে নাকি অভিনয় করতে যাচ্ছেন হলিউডের আরেক সুপারস্টার টম ক্রুজ। ডেডলাইন অনলাইন ভার্সনের একটি প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়।

টম ক্রুজ

টম ক্রুজকে নিয়ে ইনারিতুর ছবিটি নিয়ে কোনো তথ্যই আর দেয়া হয়নি। জানা গেছে, প্রি-প্রোডাকশন থেকেই সম্পূর্ণ গোপনীয়তা রক্ষা করে হচ্ছে ছবির কাজ।

তবে শোনা যাচ্ছে, নতুন এই ছবির মাধ্যমে দশ বছর পর ইনারিতুর সাথে যৌথভাবে চিত্রনাট্য তৈরী করতে এক হয়েছেন নিকোলা জিয়াকোবোন এবং আলেক্সান্দ্র দিনালারি জুনিয়র। এরআগে ইনারিতুর প্রথম ইংরেজি ছবি ‘বার্ডম্যান’ এর চিত্রনাট্য করেছিলেন তারা।

‘দ্য রেভিন্যান্ট’ সিনেমাটির জন্য ইনারিতু পেয়েছিলেন একাধিক অস্কার

‘দ্য রেভিন্যান্ট’ করার পর দীর্ঘদিন সিনেমা করেননি ইনারিতু। চলে যান আড়ালে। বছর পাঁচেক পর ২০২২ সালে তিনি ফিরে আসেন মেক্সিকান সিনেমা ‘বারদো’ নিয়ে। টম ক্রুজকে নিয়ে সিনেমা নির্মাণের কথা সত্যি হলে এটি হতে যাচ্ছে ইনারিতুর তৃতীয় ইংরেজি ভাষার ছবি।

 

;