ইয়াং স্টার সিজন-২ চ্যাম্পিয়ন অন্তু



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ইয়াং স্টার সিজন-২ বিজয়ীরা

ইয়াং স্টার সিজন-২ বিজয়ীরা

  • Font increase
  • Font Decrease

আরটিভির লোকগানের রিয়েলিটি শো ‘বাংলার গায়েন’ ও ‘বাংলার গায়েন ইউএসএ’ এবং তরুণ সংগীত শিল্পীদের অংশগ্রহণে রিয়েলিটি শো ‘ইয়াং স্টার’ ও ‘ইয়াং স্টার ইউএসএ’র বিপুল জনপ্রিয়তার ধারাবাহিকতায় এবার আয়োজন করা হয় ‘ইয়াং স্টার সিজন-২’। অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করেছিল প্রায় ১৭ হাজার প্রতিযোগী। তাদের মধ্য থেকে বাছাইকৃত ৩ হাজার, ৩শ, ৮৫ জন প্রতিযোগীকে বাছাই করা হয়। তাদের নিয়ে আয়োজন করা হয়েছে চরধহড় জড়ঁহফ এর। পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন রাউন্ডগুলো শেষ করে সেরা ৬জন প্রতিযোগীকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় গ্র্যান্ড ফিনালে।

আরটিভির সাড়া জাগানো রিয়েলিটি শো ইয়াং স্টার সিজন-২ এর চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন ঢাকার জাহিদ অন্তু, রানার্সআপ হয়েছেন অনিক সূত্রধর। ২য় রানার্সআপ হয়েছেন যৌথভাবে আদিবা কামাল এবং অঙ্কিতা মল্লিক। বিজয়ীদের প্রাইজমানি হিসেবে দেওয়া হয়েছে যথাক্রমে তিন লাখ, দুই লাখ ও এক লাখ টাকার চেক। রাজধানীর ৯৫ তেজগাঁও মাল্টিমিডিয়া স্টুডিওতে ধারণকৃত গ্র্যান্ড ফিনালে আয়োজনটি গতকাল ৩০ নভেম্বর রাত ৮টায় আরটিভির পর্দায় সম্প্রচার হয়।

গ্র্যান্ড ফিনালে আয়োজনে আরটিভির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক রহমান বলেন, ‘আজ এই গ্র্যান্ড ফিনালে পর্বে যারা প্রতিযোগিতা করছে তাদের সবাই আমাদের কাছে যোগ্য। সম্মানিত বিচারকগণ তাদের মধ্য থেকে শ্রেষ্ঠ নির্বাচন করবেন। বাংলাদেশের এতো তরুণ শিল্পীদের প্রতিভা দেখে আমি খুবই আনন্দিত। এই শিল্পীরাই আগামীর বাংলাদেশ। তারাই বাংলা গানকে বিশ্ব দরবারে আরো প্রসার ঘটাবে।’

‘ইয়াং স্টার সিজন-২’এর বিচারক প্যানেল

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড.হাসান মাহমুদ এমপি বলেন, ‘বাংলা গান নিয়ে আরটিভির এ ধরণের একাধিক প্রতিযোগিতা রয়েছে যেগুলো দেশের পাশাপাশি বিদেশেও বাংলা গানের চর্চাকে প্রাণ দিয়েছে। আমি তাদের এ আয়োজনে অভিভূত। আরটিভিকে আমার আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা। সামনের দিনগুলোতে আরটিভির এধরণের কার্যক্রম চালু থাকবে বলে আমার প্রত্যাশা।’

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদানের পাশাপাশি বিজয়ীদের হাতে পদক তুলে দেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মোঃ আশরাফ আলী খান খসরু এমপি, সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী জনাব কে এম খালিদ এমপিসহ আমন্ত্রিত বিশেষ অতিথিবৃন্দ।

সেরা ৬জনের ফাইনাল পারফর্মেন্সের সাথে গান করেছেন ইমরান মাহমুদুল ও দিলশাদ নাহার কণা।

‘ইয়াং স্টার সিজন-২’এর সেটে তারকারা

‘ইয়াং স্টার সিজন-২’এর বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন জাতীয় চলচিত্র পুরষ্কারপ্রাপ্ত সুরকার ও সংগীত পরিচালক ইমন সাহা, জাতীয় চলচিত্র পুরষ্কারপ্রাপ্ত গীতিকবি কবির বকুল এবং বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী সানিয়া সুলতানা লিজা। আয়োজনটির উপস্থাপনা করেছেন ইমতু রাতিশ ও রুহানি সালসাবিল লাবণ্য। স্টাইলিস্ট কোরিওগ্রাফার আসাদ খান।

   

তৃতীয় বিয়ে সারলেন কমেডিয়ান থেকে সাংসদ কাঞ্চন



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
কাঞ্চন-শ্রীময়ী দম্পতি

কাঞ্চন-শ্রীময়ী দম্পতি

  • Font increase
  • Font Decrease

পরকীয়ার অভিযোগ, বয়সের ফারাক নিয়ে প্রচুর সমালোচনাকে উপেক্ষা করে শ্রীময়ী চট্টরাজের মাথায় সিঁদুর পরিয়ে দিলেন অভিনেতা কাঞ্চন মল্লিক। শুরু হলো জীবনের তৃতীয় ইনিংস। সাত পাকে বাঁধা পড়লেন দুজন। শুভদৃষ্টি, মালাবদল থেকে শুরু করে বিয়ের সব নিয়ম পালন করে শ্রীময়ী চট্টরাজ থেকে মিসেস মল্লিক হলেন অভিনেত্রী।

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো বলছে, গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ কলকাতার এক ব্যাঙ্কোয়েটে বসে তাদের বিয়ের আসর। ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান মেনেই চার হাত এক হয়েছে দুজনের। বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন পরিবার-পরিজনসহ আত্মীয়স্বজন।

বর-কনের সাজসজ্জাতেও বাঙালিয়ানার ছাপ স্পষ্ট। নিজের ডিজাইন করা লাল টুকটুকে বেনারসি, সোনার গয়না আর ফুলের সাজে দারুণ দেখাচ্ছিল নতুন বউকে। অন্যদিকে কাঞ্চন মল্লিকও সেজেছেন ধুতি-পাঞ্জাবিতে। কাঞ্চনের পোশাক কেমন হবে, তা-ও ঠিক করেছেন শ্রীময়ী। বিয়ের বেশ কিছু ছবি এরই মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

কাঞ্চন-শ্রীময়ী দম্পতি

এর আগে গত শুক্রবার হয়ে যায় তাদের আইবুড়ো ভাত। তৃতীয় দফায় আইবুড়ো ভাত খাওয়ায় সমালোচিত হয়েছিলেন কাঞ্চন মল্লিক। তাকে নিয়ে যেন হাসির রোল পড়ে নেট দুনিয়ায়। কিন্তু কাঞ্চন কিংবা শ্রীময়ীর কেউই এসবের কিছু তোয়াক্কা করেছেন বলে মনে হয় না। পাশাপাশি গায়েহলুদ, মেহেদি—সব নিয়মই মেনেছেন এই জুটি।

৬ মার্চ কলকাতার একটি হোটেলে তাদের রিসেপশন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

কাঞ্চন-শ্রীময়ী দম্পতি

সাবেক স্ত্রী পিঙ্কি ব্যানার্জির সঙ্গে পাকাপাকি বিচ্ছেদের কিছুদিন পরই ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে আইনি বিয়ে সেরেছিলেন কাঞ্চন-শ্রীময়ী। গতকাল সন্ধ্যায় সব সমালোচনাকে সরিয়ে দিয়ে পাকাপাকিভাবে কাঞ্চনকে আপন করে নিলেন শ্রীময়ী।

;

দুনিয়াতে এর চেয়ে ভাল দর্শক দেখি নাই : অমিতাভ রেজা



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
জাপানের ওসাকা এশিয়ান চলচ্চিত্র উৎসবে নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী ও প্রযোজক আসাদুজ্জামান

জাপানের ওসাকা এশিয়ান চলচ্চিত্র উৎসবে নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী ও প্রযোজক আসাদুজ্জামান

  • Font increase
  • Font Decrease

জাপানের ওসাকা এশিয়ান চলচ্চিত্র উৎসব ২০২৪-এ প্রদর্শিত হয়েছে নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরীর সিনেমা ‘রিকশা গার্ল’। গতকাল শুক্রবার ওসাকার সিনে রেবেল উমেদা সিনেমা হলে ছবিটি দেখানো হয়।

গত ২৯ ফেব্রুয়ারি সিনেমাটি নিয়ে জাপানে গেছেন নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী ও সিনেমাটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান হাফ স্টপ ডাউন-এর প্রযোজক আসাদুজ্জামান।

গতকাল সকালে ফেসবুকে অমিতাভ রেজা লিখেছেন, ‘প্রথম দিনের স্ক্রিনিং শেষ হলো। দুনিয়াতে এর চেয়ে ভাল দর্শক আমি কোথাও দেখি নাই, প্রায় তিনশো দর্শক, পুরো সিনেমাটা নিঃশব্দে শুধু দেখলো, তারপর এন্ড টাইটেলের শেষ কার্ডটা পর্যন্ত অপেক্ষা করলো করতালি দেবার জন্য। সিনেমা দেখার এ এক অদ্ভুত সংস্কৃতি তাদের, এই জন্যই হয়তো জন্মেছে একটা ওজু বা মিজুগুচি।’

গত শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া এই উৎসব শেষ হবে ১০ মার্চ। আগামী সোমবার সিনেমাটির আরেকটি প্রদর্শনী রয়েছে। ‘রিকশা গার্ল’ সিনেমার জাপানি ভাষার সাবটাইটেল করেছেন জাপানের ২২ শিক্ষার্থী।

‘রিকশা গার্ল’ সিনেমার পোস্টারে নভেরা

নাইমা নামের এক কিশোরীর জীবনযুদ্ধ ঘিরে আবর্তিত হয়েছে এ ছবির গল্প। শিল্পী নভেরা রহমান সিনেমাতে নাইমা চরিত্রে অভিনয় করেছেন। ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন চম্পা, মোমেনা চৌধুরী, নরেশ ভূঁইয়া, অ্যালেন শুভ্র প্রমুখ।

ছবিটির চিত্রনাট্য লিখেছেন নাসিফ ফারুক আমিন ও শর্বরী জোহরা আহমেদ। বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘রিকশা গার্ল’ সিনেমার প্রযোজকেরা হলেন জিয়াউদ্দিন আদিল, ফরিদুর রেজা সাগর ও এরিক জে অ্যাডামস।

জার্মান ও বেলজিয়ামে পুরস্কৃত হয়েছে ‘রিকশা গার্ল’। এপ্রিলে সিনেমাটা বাংলাদেশের সিনেমা হলে মুক্তির কথা রয়েছে।

;

প্রায় দেড় দশক পর রুনা লায়লা



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
রুনা লায়লা

রুনা লায়লা

  • Font increase
  • Font Decrease

শেষ কবে বাংলাদেশ বেতারের জন্য গান গেয়েছেন, তা মনে করতে পারছিলেন না উপমহাদেশের প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী রুনা লায়লা। তবে এটুকু জানালেন, ১২ থেকে ১৪ বছরের কম হবে না। এবার বাংলাদেশ বেতারের জন্য নতুন গানে কণ্ঠ দিলেন রুনা লায়লা। গত ২৯ ফেব্রুয়ারি আগারগাঁওয়ের ট্রান্সক্রিপশন সার্ভিসের স্টুডিওতে ‘ও বৃষ্টি তুমি’ শিরোনামের গানটিতে কণ্ঠ দেন তিনি। সুমন সরদারের লেখা গানটির সুর করেছেন সাদেক আলী।

রুনা লায়লা বললেন, ‘আমার বাদ্যযন্ত্রী দলের একজন সাদেক আলী। তিনি বলছিলেন, একটি গানের সুর করেছেন। আমাকে দিয়ে সেই গানটি গাওয়াতে চান। এরপর আমি গানটি শুনি। শোনার পর আমারও ভীষণ ভালো লেগেছে। ভাবলাম, ভালো লেগেছে যেহেতু, গানটি গাই। গানটি গাইবার পরও তৃপ্ত। গানটি প্রচারের পর শুনলে সবার ভালো লাগবে, এমনটা আশা করছি।’

রুনা লায়লা

বাংলাদেশের প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী রুনা লায়লা মাঝে বেশ কিছুদিন লন্ডনে মেয়ের কাছে বেড়াতে গিয়েছিলেন। সম্প্রতি দেশে ফিরে ব্যস্ত হয়েছেন। বিভিন্ন আয়োজনে তার উপস্থিতি দেখা যাচ্ছে। গানটি গাইতে গিয়ে বেতারের পরিবেশের মুগ্ধতা প্রকাশ করেছেন রুনা লায়লা।

তার ভাষায়, ‘আমি শেষ যখন গানটিতে কণ্ঠ দিই, তখনো দেখেছি, স্টুডিও ছোট। এখনকার স্টুডিও আকারে যেমন বড়, তেমনি বেশ আধুনিকও হয়েছে। আর এত দিন পর বেতারে গিয়ে সবার আন্তরিকতায় আমি মুগ্ধ হয়েছি। এত অসাধারণভাবে স্বাগত জানিয়েছে, তা ভীষণ অনুপ্রাণিতও করেছে।’

;

‘নাটু-নাটু’ গানে পা মেলালেন বলিউডের তিন খান



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
মঞ্চে ৩ খান একসাথে নাচলেন / ছবি:ফেমিনা

মঞ্চে ৩ খান একসাথে নাচলেন / ছবি:ফেমিনা

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারতের জামনগরে এখন তারকাদের মেলা বসেছে। মার্চের ১ এবং ২ তারিখ অনন্ত আম্বানি এবং রাধিকা মার্চেন্ট এর প্রাক-বিবাহ অনুষ্ঠানে বিশ্বের বড় বড় ব্যক্তিত্বরা একত্রিত হয়েছেন। ধুমধাম অনুষ্ঠানে পালন করা হচ্ছে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান। অনেকেই আগে ধারণা করে বলেছিল, এই বিয়ের অনুষ্ঠান ইতিহাস রচনা করবে। তাদের ভবিষৎবাণীই সত্যি হওয়ার প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে।  

বিয়ে শুরু হওয়ার আগেই ভক্তরা অবাক হয়ে যাচ্ছে বিয়ের আয়োজন দেখে। প্রথম দিন পপ-তারকা রিহানা মঞ্চে উত্তাপ ছড়িয়েছিলেন। এবার মঞ্চ মাতালেন ভারতের বলিউড ইন্ডাস্ট্রির তিন রত্ন। শাহরুখ খান, সালমান খান, আমির খানকে একসাথে মঞ্চে দেখা ভক্তদের জন্য কোনো স্বপ্নের চেয়ে কম ছিল না।

২ মার্চ রাতে অনন্ত আম্বানি এবং রাধিকা মার্চেন্টের প্রাক বিবাহ অনুষ্ঠানে অবিশ্বাস্যভাবে ভক্তদের এত বছরের সেই স্বপ্ন পূরণ হলো। অস্কারপ্রাপ্ত গান নাটু নাটুতে একত্রে তাল মেলালেন বলিউডের ৩ জন ‘খান’। যদিও একসাথে নাচের স্টেপ করতে হিমশিম খাচ্ছিলেন ৩ জন। শেষে তিন বন্ধু নিজেদের সিনেমার জনপ্রিয় নাচের মুদ্রা পরিদর্শন করলেন স্টেজে।

প্রথমে সালমান খান কাধ থেকে রুপালি স্কার্ফ খুলে জনপ্রিয় ‘জাওয়ানি ফির না আয়ে’ গানে নাচ করে। তাল মেলায় বাকি দুই তারকা। রেডি সিনেমার ‘ধিংকা-চিকা’ গানের স্টেপও করেন তারা। এরপর ৩ জন একসাথে আমির খান থ্রি ইডিয়েট সিনেমার ‘অল ইজ ওয়েল’ সিনেমার স্টেপ করে। শেষে শাহরুখের ‘লুঙ্গি-ডান্স‘ গানে তাল মেলায় তিন সুপার স্টার। তিন বন্ধুকে এই সময় বেশ মজা করে সময় কাটাতেও দেখা যায়। 

মঞ্চে এই প্রথমবার তিন এই সুপারস্টার একসাথে পারফর্ম করেছেন। একসময় শাহরুখ খান, সালমান খান, আমির খান-কে একত্রে দেখা অসম্ভব ব্যাপার ছিল। মনমালিন্যের কারণে তাদের বন্ধুত্ব নষ্ট হয়ে গিয়েছিল। তাই তারা একত্রে কোথাও কাজ করতেন।

অনেকেই এর আগে তাদের এক প্রোজেক্টে একসাথে কাজ করানোর চেষ্টা করছিলেন। কিন্তু তা, কখনোই সম্ভব হয়নি। শাহরুখ খানের বিখ্যাত সিনেমা ‘ওম শান্তি ওম’-্এর টাইটেল ট্র্যাকে একত্রিত হয়েছিলেন ৪০ জন বলি তারকা। সেখানে সালমান থাকলেও, ছিলেন না আমির। পরিচালক ফারা খান জানিয়েছিলেন, সেই গানের শ্যুটিংয়ের জন্য কয়েক দফা তারিখে বদলেও শেষমেশ সময় দেননি আমির খান। ভক্তদের মধ্যে তখন থেকেই ৩ খান তারকাকে একত্রে দেখতে না পারার আফসোস ছিল। এতদিনে তা দূর হলো!

২ মার্চ রাতের অনুষ্ঠানে শাহরুখ খান এবং সালমান খান একরকম পোশাক পরেছিলেন। এই ব্যাপারটিও ভক্তদের মন ছুঁয়ে গিয়েছিল।             

;