কান থেকে বিতর্কের ঝড় তুলেছে ট্রাম্পের বায়োপিক



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

কান ফিল্ম ফেস্টিভালের মতো মর্যাদাসম্পন্ন আসরে দেখানো হলো ডোনাল্ড ট্রাম্পের বায়োপিক। এই বায়োপিকের নাম ‘দ্য অ্যাপ্রেন্টিস’। আলি আব্বাসির পরিচালনায় তৈরি ছবিটি গত ২০ মে দেখানো হয় কানে।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের নাম থাকবে, আর সেখানে বিতর্ক থাকবে না; তা কী হয়! তাইতো তার বায়োপিকের একটি দৃশ্য নিয়ে চলছে তুমুল বিতর্ক!

এই সিনেমায় ট্রাম্পের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন সেবাস্টিয়ান স্ট্যান। আর তার প্রথম স্ত্রী ইভানার চরিত্রে অভিনয় করলেন বুলগারিয়ান অভিনেত্রী মারিয়া বাকালোভা। ১৯৭৬ সালে ইভানার সঙ্গে ট্রাম্পের দেখা হয়। আর ২০২২ সালে ইভানার মৃত্যু হয়। ট্রাম্পের তিন সন্তান ডোনাল্ড জুনিয়র, ইভাঙ্কা ও এরিকের মা ইভানা।

সিনেমায় দেখানো হয় প্রথম স্ত্রীকে ধর্ষণ করছেন ট্রাম্প। আর এতেই তুমুল চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ট্রাম্পের সঙ্গে ডিভোর্সের মামলা চলাকালীন ধর্ষণের অভিযোগ এনেছিলেন তিনি। পরে যদিও সেই অভিযোগ তুলে নেন।

বায়োপিকে দেখানো হয়েছে ট্রাম্পের ভুঁড়ি নিয়ে কটাক্ষ করেছেন ইভানা। আর তা সহ্য করতে না পেরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ধর্ষণ করেন স্ত্রীকে। এই ঘটনা সামনে আসতেই নির্মাতাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থার হুঁশিয়ারি দিয়েছে ট্রাম্পের টিম। সিনেমাটিকে তারা ‘আবর্জনা’ এবং ‘মানহানি’ বলে অভিহিত করেছেন। রেগে গিয়েছেন ট্রাম্পের অনুরাগীরাও। অবশ্য, পরিচালক আলি আব্বাসির বক্তব্য, কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া আগে দর্শক বা ট্রাম্পের অনুগামীরা যাতে পুরো সিনেমাটি ভালো করে দেখেন।

   

সোনাক্ষী-জহিরের বিয়েতে ‘ধর্ম’ কতোটা বাধা হবে?



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
জাহির ইকবাল ও সোনাক্ষী সিনহা / ছবি : ইন্সটাগ্রাম

জাহির ইকবাল ও সোনাক্ষী সিনহা / ছবি : ইন্সটাগ্রাম

  • Font increase
  • Font Decrease

বলিউডপাড়ার গুঞ্জন সত্যি হলে রাত পোহালেই বিয়ের পীড়িতে বসবেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী সোনাক্ষী সিনহা। পাত্রও বলিউডের মানুষ, একজন উঠতি অভিনেতা। সোনাক্ষী সিনহা আর জাহির ইকবালের প্রেম নিয়ে কম লেখালেখি হয়নি গণমাধ্যমে!

একাধিক গণমাধ্যম এও বলছে, আগামীকাল রবিবার (২৩ জুন) বিয়ে করছেন তারা। এই জুটির ধর্মীয় পরিচয় আলাদা হওয়ায় শুরুতে শোনা যাচ্ছে নানা গুঞ্জন!

সোনাক্ষী সিনহা / ছবি : ইন্সটাগ্রাম

বিশেষ করে, অনেকের প্রশ্ন, মুসলিম পাত্র জাহিরকে বিয়ের পর কি সনাতনী সোনাক্ষী ধর্ম পরিবর্তন করে ইসলাম গ্রহণ করবেন? এসব প্রশ্নের খোলাখুলি উত্তর দিয়েছেন সোনাক্ষীর হবু শ্বশুর ইকবাল রতংশী।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে জাহিরের বাবা জানিয়েছেন, সোনাক্ষী ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করবেন না বিয়ের পর। একই সঙ্গে তিনি ফ্রি প্রেস জার্নালকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানিয়ে দিয়েছেন যে তারা সোনাক্ষী জাহিরের বিয়েতে না কোনো মুসলিম আচার পালন করবেন না হিন্দু আচার। সইসাবুদ করে বিয়ে করবেন তারা।

জাহির ইকবাল / ছবি : ইন্সটাগ্রাম

তিনি জোর দিয়ে আরও বলেন, ‘আমার ছেলে ধর্ম বদলাচ্ছে না এটা নিশ্চিত। এটা মনের মিলনের অনুষ্ঠান। ধর্মের এখানে কোনও কাজ নেই।’ তিনি জানিয়েছেন ঈশ্বর এক, হিন্দুরা ঠাকুর বলে আর মুসলিমরা আল্লাহ। ব্যাপারটা একই। তাই এসব নিয়ে তিনি ভাবিত নন। জানান তার আশীর্বাদ সবসময় জাহির এবং সোনাক্ষীর সঙ্গে থাকবে।

সোনাক্ষী সনাতনী অন্যদিকে বর জাহির মুসলিম- তাহলে কোন রীতিতে হবে তাদের বিয়ে? এ বিষয়ে দুই পরিবারের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়, জাহিরের বাড়িতে রবিবার (২৩ জুন) দুপুরে আইনি বিয়ে সারবেন তারা। ‘বিশেষ বিবাহ আইন ১৯৫৬’ অনুসারে হবে সেই বিয়ে।

সোনাক্ষী সিনহা / ছবি : ইন্সটাগ্রাম

এদিকে মেয়ের বিয়ে নিয়ে সোনাক্ষীর বাবা বর্ষিয়ান অভিনেতা শত্রুঘ্ন সিনহা টুঁ শব্দটি করেননি! তবে শেষ সময়ে এসে মেয়ের বিয়ের আয়োজনে খুব ভালোভাবেই যুক্ত হলেন। আনন্দ আয়োজনে পরিবারের সবাইকে নিয়ে অংশ নিচ্ছেন শত্রুঘ্ন! এমনকি শুক্রবার মেয়ের মেহেদী অনুষ্ঠানেও সক্রিয় ছিলেন তিনি।

শত্রুঘ্ন সিনহার এক ঘনিষ্ট বন্ধু শশী রঞ্জন ইটাইমসকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, সোনাক্ষী সিনহা যাকে ভালোবাসে তাকেই বিয়ে করতে চলেছেন। সকলেই অংশ নিচ্ছেন, শত্রুঘ্নর ভাই আসছে আমেরিকা থেকে। ওদের বিয়ের রেজিস্ট্রি জাহির ইকবালের বাড়িতে অনুষ্ঠিত হবে। এটা আমাদের সবার জন্য দারুণ আনন্দের একটা মুহূর্ত।

সোনাক্ষী সিনহা ও জাহির ইকবাল / ছবি : ইন্সটাগ্রাম

সাত বছর ধরে প্রেম করছেন সোনাক্ষী সিনহা ও জাহির ইকবাল। ২০২২ সালে ‘ডাবল এক্সএল’ ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছিলেন সোনাক্ষী ও জাহির। সালমান খানের এক পার্টিতে কাছাকাছি আসেন তারা। কাকতালীয়ভাবে সালমানের হাত ধরেই দুজনেই বলিউডে পা রাখেন।

;

ভক্তকে খুনের মামলায় জেলে কন্নড় সুপারস্টার



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
দর্শন থুগুদিপা

দর্শন থুগুদিপা

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারতের কন্নড় সিনেমার সবচেয়ে জনপ্রিয় অভিনেতাদের একজন দর্শন থুগুদিপা। এক ভক্তকে নৃশংসভাবে হত্যা মামলায় এই তারকা অভিনেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গত ৯ জুন বেঙ্গালুরু শহরের এক নালা থেকে রেণুকা স্বামী নামের এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তার আগের দিন কর্ণাটকের চিত্রদুর্গার বাড়ি থেকে তুলে এনে রেণুকাকে নৃশংসভাবে হত্যা করে লাশ নালায় ফেলে খুনিরা। সিনেমার কাহিনিকেও হার মানানো এই হত্যা মামলার তদন্ত করতে গিয়ে অভিনেতা দর্শনের নাম আসে।

ভক্তকে নৃশংসভাবে হত্যা মামলায় দর্শন থুগুদিপাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ

রেণুকা এক ফার্মেসি কোম্পানিতে চাকরি করতেন। ৩৩ বছর বয়সী রেণুকা চিত্রনায়ক দর্শনের একজন পাঁড় ভক্ত ছিলেন।

গত ১২ জুন অভিনেতা দর্শনকে গ্রেপ্তার করে বেঙ্গালুরু পুলিশ। তাকে গ্রেপ্তারের খবর প্রকাশ্যে আসার পর রীতিমতো হইচই পড়ে যায়।

দর্শনের কথিত প্রেমিকা ও কন্নড় অভিনেত্রী পবিত্র গৌড়া

অভিনেতা দর্শন কেন ভক্তকে খুন করতে গেলেন? ঘুরেফিরে এই প্রশ্নই সামনে আসছে। পুলিশের ধারণা, দর্শনের কথিত প্রেমিকা ও কন্নড় অভিনেত্রী পবিত্র গৌড়াকে ইনস্টাগ্রামে আপত্তিকর বার্তা পাঠিয়েছেন রেণুকা। এ কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে তাকে খুনের পরিকল্পনা করেন দর্শন!

এই হত্যা মামলায় এ পর্যন্ত অভিনেতা দর্শন, অভিনেত্রী পবিত্র গৌড়াসহ ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে দর্শনসহ চারজনকে পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়েছে। হেফাজতের মেয়াদ শেষে আজ শনিবার বিকেলে আদালতে তোলা হবে তাঁকে। অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বেঙ্গালুরু কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হতে পারে।

দর্শন থুগুদিপা

অভিযোগের বিষয়ে দর্শন থুগুদিপার আইনজীবী রঙ্গনাথ রেড্ডি বিবিসিকে বলেন, ‘এটি একটি ভিত্তিহীন অভিযোগ। দর্শনের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে কোনো প্রমাণ নেই।’

৬০টির বেশি কন্নড় সিনেমায় অভিনয় করেছেন দর্শন। প্রতি সিনেমায় ২০০ থেকে ২৫০ মিলিয়ন রুপি পারিশ্রমিক নেন তিনি। কন্নড় সিনেমার একজন বড় তারকা হওয়ায় তার প্রচুর ভক্ত রয়েছে।

দর্শনের বিরুদ্ধে নির্যাতনের মামলা করেছিলেন স্ত্রী বিজয়ালক্ষ্মী

এর আগে ২০১১ সালে দর্শনের বিরুদ্ধে নির্যাতনের মামলা করেছিলেন স্ত্রী বিজয়ালক্ষ্মী। সেই মামলায় চার সপ্তাহ কারাগারে ছিলেন দর্শন। পরে স্ত্রী মামলা তুলে নেওয়ার পর ছাড়া পেয়েছিলেন।

;

দেখুন অভিনেত্রী চমকের বিয়ের দুটি সাজ



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বিয়ের সাজে চমক

বিয়ের সাজে চমক

  • Font increase
  • Font Decrease

অল্প সময়ে টিভি নাটকের ইন্ডাস্ট্রিতে জায়গা করে নিয়েছেন অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক। সাবলিল অভিনয় এবং অপরূপা সুন্দরীতো তিনি বটেই! সঙ্গে যুক্ত হয়েছে তার বুদ্ধিদীপ্ত কথাবার্তা। মাঝে সহশিল্পীদের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে তৈরী করেছেন বিতর্ক। সব মিলিয়ে বর্তমানে টিভি পর্দার অন্যতম চর্চিত অভিনেত্রী চমক।

অনেকেই বলে থাকেন নায়িকারা বিয়ে করে ফেললে চাহিদা কমে যায়। বিশেষ করে চমকের মতো উঠতি অভিনেত্রীর বেলায় সে কথা আরও হলফ করে বলা হয়। তবে কিছু অভিনেত্রী বিয়ের পরও ভালো কাজের মাধ্যমে নিজের অবস্থান ধরে রাখতেও সক্ষম হয়েছেন। তা ভেবেই হয়তো পুরোপুরি জ্বলে ওঠার আগেই বিয়ের পীড়িতে বসলেন চমক।

স্বামীর সঙ্গে বিয়ের সাজে চমক

চমক এখন শ্রীলংকায়। সেখান থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে একের পর এক নতুন আপডেট দিচ্ছেন তার ব্যক্তিগত জীবনের। 

আংটি বদলের খবরটিই প্রথম প্রকাশ্যে আনেন চমক। এরপরই তিনি জানান তার শ্রীলংকা যাওয়ার খবর। সেখান থেকে নিজের গায়ে হলুদের ছবি প্রকাশ করেন। ফলে অনেকেই ধরে নিয়েছিলেন যে চমক বোধ হয় ডেস্টিনেশন ওয়েডিং করতে শ্রীলংকা গিয়েছেন। 

শ্রীলংকায় হানিমুনে গেছেন চমক

কিন্তু আজ চমক যে ছবিগুলো প্রকাশ করলেন তাতে আসল ঘটনাটি প্রকাশ হলো। মূলত এই অভিনেত্রীর বাগদান ও বিয়ে বাংলাদেশেই হয়েছে। এবং সেটি খুবই সাদামাটাভাবেই হয়েছে। জমক একটি লাল সুতি শাড়ি পরে বিয়ে করেছেন! তাও একটি মাদ্রাসায় গিয়ে।

নিকাহ অনুষ্ঠানে চমক

শুধু তাই নয়, তিনি জানিয়েছেন, মাত্র ৯ টাকা দেনমোহরে বিয়ে সেরেছেন এ অভিনেত্রী।

স্বামীর সঙ্গে বিয়ের সাজে চমক

শনিবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি পোস্টে চমক লিখেছেন, ‘আমার জন্ম তারিখ ৯, তাই সংখ্যাটি আমার লাকি নাম্বার। কাজেই আমরা মাত্র নয় টাকা দেনমোহরের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারণ আমরা বিশ্বাস করি, অর্থ কখনও দাম্পত্য জীবনের ভিত্তি হতে পারে না। আমরা এটাও বিশ্বাস করি, আমাদের ভালোবাসা কিংবা একসঙ্গে থাকার হিসাবটা টাকা দিয়ে কখনও পরিমাপ করা যাবে না।’

মাদরাসার ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে বিয়ের খাবার সেরেছেন

ক্যাপশনে অভিনেত্রী আরও লিখেছেন, ‘খুবই সাদামাটাভাবে বিয়ের আয়োজন সারা হয়েছে। কয়েকজন আন্তরিক সুখী মানুষদের নিয়েই এই আয়োজন। মাদরাসার ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে খাবার সেরেছি। যতটা ছিমছাম রাখা যায় আরকি। আমাদের পরিবারের পক্ষ থেকে আপনাদের প্রতি নিরন্তর ভালোবাসা রইলো।’

বিয়ের সাজে চমক

বিয়ে সাদামাটা করলেও হানিমুন কাটাতে বরকে নিয়ে তিনি শ্রীংলকায় অবস্থান করছেন এখন। এবং নিজের টাকাতেই এই হানিমুন করছেন বলে জানিয়েছেন গণমাধ্যমকে!

চমকের গায়ের দিন স্বামীর সঙ্গে হলুদের ছবি

জানা গেছে, চমকের বর আজমান নাসির পেশায় একজন ব্যবসায়ী। তার গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়ায়। ব্যবসার পাশাপাশি অভিনয়ও করেছেন তিনি। চমকের সঙ্গে তার স্বামীকে দেখা গেছে ‘দ্য লাস্ট হানিমুন’ নাটকে।

চমকের গায়ে হলুদের ছবি

উল্লেখ্য, চমক ২০১৭ সালে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় রানারআপ হয়ে শোবিজ অঙ্গনে পা রাখেন। লেখাপড়া শেষে ২০২০ সালে ছোট পর্দার অভিনয় শুরু করেন তিনি। কাজ করেছেন ওটিটিতেও।

;

শুধু ভিউ নয়, ‘দুষ্টু কোকিল’ মানুষের মনেও জায়গা করেছে: কনা



মাসিদ রণ, সিনিয়র নিউজরুম এডিটর, বার্তা২৪.কম
কনা ও ‘তুফান’ ছবিতে মিমি চক্রবর্তী ও শাকিব খান

কনা ও ‘তুফান’ ছবিতে মিমি চক্রবর্তী ও শাকিব খান

  • Font increase
  • Font Decrease

‘তুফান’ সিনেমায় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পী দিলশাদ নাহার কনা’র গাওয়া ‘দুষ্টু কোকিল ডাকে রে কু কু কু কু’ গানটি প্রকাশের আগেই দর্শকের মনে জায়গা করে নিয়েছে! পুরো গানটি প্রকাশ হয় ছবি মুক্তির বেশ কদিন পর। এক দিনেই অফিসিয়াল দুটি চ্যানেলে এই গানের ভিউ অতিক্রম করে ৫ মিলিয়ন। এই গান ও সমসাময়িক বিষয়ে বার্তা২৪.কমের সঙ্গে কথা বলেছেন কনা। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন মাসিদ রণ

দিলশাদ নাহার কনা / ছবি : ফেসবুক

এক দিনে ‘দুষ্টু কোকিল’-এর ভিউ ৫ মিলিয়ন! কেমন লাগছে?


সত্যি মেজাজ খুব ফুরফুরে! একেতো ঈদের আনন্দ, তার সঙ্গে আমার গান ‘দুষ্টু কোকিল’-এর জন্য এতো ভালোবাসা পাচ্ছি এটা তো দ্বিগুণ আনন্দের বিষয়। আমি বরাবরই বলে এসেছি গানের ভিউ দিয়ে কখনোই ভালো গান-মন্দ গান বিচার করা যায় না। কিন্তু ‘দুষ্টু কোকিল’ শুধু ভিউ নয়, মানুষের মনেও জায়গা করতে পেরেছে এটি আমার খুব ভালো লাগছে। কারণ ছবির ট্রেইলারে গানটির মাত্র এক লাইন মুক্তির পরই দর্শকের যে উন্মাদনা দেখেছি তাতেই বুঝে গেছি এই গানটি মানুষ পছন্দ করবে। ওই এক লাইনের অজস্র রিল টিকটকে ভরে যায় সোশ্যাল মিডিয়া। পুরো গান মুক্তির পর এরইমধ্যে দুটি চ্যানেলে মোট ৭ মিলিয়ন ভিউ অতিক্রম করেছে গানটি।

‘তুফান’ ছবিতে মিমি চক্রবর্তী ও শাকিব খান

গানটি রেকর্ডিংয়ের সময় কী বুঝেছিলেন এতো দ্রুত হিট হয়ে যাবে গানটি?


এতো দিনের অভিজ্ঞতায় এক ধরনের আমেজ কিন্তু রেকর্ডিংয়ের সময়েই আমরা পেয়ে যাই। এই গানটি গাওয়ার সময়েই কথা ও সুর সহজে আত্মস্থ হয়ে যায়। রেকর্ড করে আসার পরেও মনের অজান্তে গুনগুন করে গেয়ে ফেলতাম গানটি। তবে এতো দ্রুত একটি গান সুপারহিট হয়ে যাবে সেটি তখন ভাবতে পারিনি। কিন্তু ঈদের দুদিন পর যখন ‘তুফান’ সিনেমাটি হলে গিয়ে দেখলাম তখনই দর্শকের উত্তেজনা লক্ষ্য করি। আমি নিজেও পুরো গানটি তখন প্রথম দেখেছি দর্শকের সঙ্গে বসে। এরপর শুধু অপেক্ষা করছিলাম কখন ইউটিউবে পুরো গানটি ছাড়া হবে।

‘দুষ্ঠু কোকিল’ গানটি তো দারুণ হয়েছেই, সেই সঙ্গে ‘তুফান’-এর মতো ছবিতে গানটি ব্যবহার করার ফলে এতো দ্রুত আমরা এতো দারুণ রেসপন্স পেয়েছি। শাকিব খানের উপস্থিতি, মিমি চক্রবর্তীর পারফরমেন্স সবমিলিয়ে গানটি অন্যমাত্রা পেয়েছে। আমি সবচেয়ে খুশি যে, এতো সুন্দর একটি গান ভালো মানের একটি সিনেমায় ব্যবহার করা হয়েছে। এমন অনেকবার হয়েছে, দারুণ একটি গান করেছি কিন্তু সিনেমা দেখার পর মনে হয়েছে এই ছবিতে গানটি না থাকলেই ভালো হতো! তবে ‘তুফান’ ছবিটি দেখে দর্শক হিসেবে আমি এতোটাই উপভোগ করেছি যে এই ছবির অংশ হতে পেরেই নিজের কাছে খুব ভালো লেগেছে। ছবিটি সত্যি আন্তর্জাতিক সিনেমার ফিল দিয়েছে আমাকে।

দিলশাদ নাহার কনা / ছবি : ফেসবুক

গানটি তৈরীর পেছনের গল্প জানতে চাই...


‘দুষ্ঠু কোকিল’ গানটি গাইতে আমার কোন বেগ পেতে হয়নি। কারণ এটি খুব সহজ সরল কথার আমুদে সুরের একটি গান। তবে গানটি যেহেতু ড্যান্স নাম্বার, তাই এতে অনেক ধরনের এক্সপ্রেশনের ব্যাপার ছিল। সেটি ঠিকভাবে ডেলিভারি করতে পেরেছি বলে মনে হচ্ছে। নয়তো এতো মানুষের গানটি ভালো লাগতো না। গানটির সঙ্গে জড়িত প্রত্যেকের সঙ্গে আমার কাজের একটা বোঝাপড়া আছে। শাকিব খানের জন্য ‘দিল দিল’সহ বেশকিছু সুপারহিট গান করেছি। রায়হান রাফীর সঙ্গে তো তার প্রথম সিনেমা থেকে দারুণ দারুণ গান করার সুযোগ পাচ্ছি। আকাশ সেনের সঙ্গেও আমার কাজের কেমেস্ট্রি খুব ভালো। ‘রেশমি চুড়ি’ থেকে শুরু করে ‘দুষ্টু কোকিল’- অনেক ভালো গান আমরা একসঙ্গে করেছি। একটি সিনেমার জন্য গান যেভাবে খোঁজা হয় এই গানটিও সেভাবেই যুক্ত হয়েছে ‘তুফান’ ছবিতে। আমরা যে যার জায়গা থেকে বেস্ট এফার্টটুকু দেওয়ার চেষ্টা করেছি।

দিলশাদ নাহার কনা / ছবি : ফেসবুক

ঈদে তো আপনার নতুন আরেকটি গানও এসেছে...


হ্যাঁ। ‘লিভিং রুম সেশন’ নামের মিউজিক্যাল প্রজেক্টে একটি জনপ্রিয় ফোক গান করেছি। আমার গলায় দর্শক রোমান্টিক আধুনিক গানই বেশি শুনে থাকেন। সেদিক থেকে ‘আমার অন্তরায় আমার কলিজায়’ ফোক গানটি সবাইকে ভিন্নতা দেবে। গানটি করতে পেরে আমার খুব ভালো লেগেছে। কারণ এর সংগীতপরিচালক পাভেল আরিন অনেক সময় নিয়ে যত্ন করে কম্পোজিশন করেছেন। এই সেশনের আমেজটাই আলাদা। দারুণ একটি মিউজিক্যাল ফিল পাওয়া যায়। যদিও আমি এখনো গানটির প্রচার সেভাবে করতে পারিনি, কারণ সবাই ‘দুষ্টু কোকিল’ নিয়ে ব্যস্ত। শিগগিরই এই গানটির জন্যও প্রচারণা চালাবো। কারণ এটিও দারুণ একটি গান। আমি চাই আমার ভালো গানগুলো মানুষ শুনুক। আর ভালো গান হলে তা একটু সময় নিলেও মানুষের কাছে পৌঁছবেই এটা আমার বিশ্বাস।

দিলশাদ নাহার কনা / ছবি : ফেসবুক

ঈদ কিভাবে কাটালেন?


আমি তো বরাবরই ঈদ কাটাই পরিবারের সঙ্গে গ্রামের বাড়ি গাজীপুরে। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। ঈদের একদিন পরই চলে এসেছি ঢাকায়। এবার ঈদে বেশকিছু টিভি চ্যানেলেও আমার পারফরমেন্স ছিল। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো বিটিভির ঐতিহ্যবাহী অনুষ্ঠান ‘আনন্দমেলা’র গানটি। কারণ এখানে আমি রাগাশ্রয়ী নজরুলগীতি ‘মোর ঘুমঘোরে এলে মনোহর’ গেয়েছি। অনেকেই জানেন না যে আমার গানের চর্চা কিন্তু নজরুল সঙ্গীত দিয়েই। সেদিক থেকে অনেক দিন পর এই গানটি গাইতে পেরে ভালো লেগেছে। এছাড়া মোস্তফা কামাল রাজের ‘নয়নতারা’ নাটকে খুব সুন্দর একটি গান করেছি। দর্শক ভক্তদের সেই গানটিও শোনার আমন্ত্রণ থাকলো।

দিলশাদ নাহার কনা / ছবি : ফেসবুক
;