জুন মাসে সড়কে ঝরেছে ৫২৪ প্রাণ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জুন মাসে দেশে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে ৪৬৭টি। এতে নিহত হয়েছেন ৫২৪ জন এবং আহত হয়েছেন ৮২১ জন। নিহতের মধ্যে নারী ৬৮ জন, শিশু ৭৩ জন। এর মাঝে ১৯৭টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ২০৪ জন যা মোট নিহতের ৩৮ দশমিক ৯৩ শতাংশ।

দুর্ঘটনায় ১০৭ জন পথচারী নিহত হয়েছেন, যা মোট নিহতের ২০.৪১ শতাংশ। যানবাহনের চালক ও সহকারী নিহত হয়েছেন ৮৬ জন, অর্থাৎ ১৬.৪১ শতাংশ।

এই সময়ে ৮টি নৌ-দুর্ঘটনায় ৯ জন নিহত হয়েছেন এবং ৩ জন নিখোঁজ রয়েছেন। ১৮টি রেলপথ দুর্ঘটনায় ১৬ জন নিহত এবং ৪ জন আহত হয়েছেন।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের জুন মাসের সড়ক দুর্ঘটনাসংক্রান্ত প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। প্রতিবেদনটি সোমবার (০৪ জুলাই) প্রকাশ করা হয়।

নয়টি জাতীয় দৈনিক, সাতটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও ইলেকট্রনিক গণমাধ্যমের তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে রোড সেফটি ফাউন্ডেশন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মোটরসাইকেল চালক ও আরোহী ২০৪ জন (৩৮.৯৩%), বাসযাত্রী ২৪ জন (৪.৫৮%), ট্রাক-কাভার্ডভ্যান-পিকআপ-ট্রাক্টর-ট্রলি-লরি-ডাম্পার আরোহী ৩৯ জন (৭.৪৪%), মাইক্রোবাস-প্রাইভেটকার-জিপ যাত্রী ১৪ জন (২.৬৭%), থ্রি-হুইলার যাত্রী (ইজিবাইক-সিএনজি-অটোরিকশা-অটোভ্যান-লেগুনা-হিউম্যান হলার) ১০৬ জন (২০.২২%), স্থানীয়ভাবে তৈরি যানবাহনের যাত্রী (নসিমন-ভটভটি-মাহিন্দ্র-চান্দেরগাড়ি)১৩ জন (২.৪৮%) এবং বাইসাইকেল-প্যাডেল রিকশা-প্যাডেল ভ্যান আরোহী ১৭ জন (৩.২৪%) নিহত হয়েছেন।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ বলছে, দুর্ঘটনাগুলোর মধ্যে ১৫৯টি (৩৪.০৪%) জাতীয় মহাসড়কে, ১৭৪টি (৩৭.২৫%) আঞ্চলিক সড়কে, ৭২টি (১৫.৪১%) গ্রামীণ সড়কে এবং ৫৬টি (১২%) শহরের সড়কে এবং অন্যান্য স্থানে ৬টি ১.২৮% সংঘটিত হয়েছে।

দুর্ঘটনার বিভাগওয়ারী পরিসংখ্যান বলছে, ঢাকা বিভাগে দুর্ঘটনা ২৫.০৫%, রাজশাহী বিভাগে দুর্ঘটনা ১৫.৪১%, চট্টগ্রাম বিভাগে দুর্ঘটনা ১৬.৪৮%, খুলনা বিভাগে দুর্ঘটনা ১৪.৩৪%, বরিশাল বিভাগে দুর্ঘটনা ৯%, সিলেট বিভাগে দুর্ঘটনা ২.৭৮%, রংপুর বিভাগে দুর্ঘটনা ১০.৪৯% এবং ময়মনসিংহ বিভাগে দুর্ঘটনা ৬.৪২%, ঘটেছে।

ঢাকা বিভাগে সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে, ১১৭টি দুর্ঘটনায় ১৩৯ জন নিহত হয়েছেন। সিলেট বিভাগে সবচেয়ে কম ১৩টি দুর্ঘটনায় ১৪ জন নিহত হয়েছেন। একক জেলা হিসেবে ঢাকা জেলায় সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে। ২৯ টি দুর্ঘটনায় ৪১ জন নিহত হয়েছেন। সবচেয়ে কম রাঙ্গামাটি, মাগুরা, লালমনিরহাট ও সুনামগঞ্জ জেলায়। এই ৪টি জেলায় ৯টি সাধারণ মাত্রার দুর্ঘটনা ঘটলেও কোনো প্রাণহানি ঘটেনি।

রাজধানী ঢাকায় ১৪টি দুর্ঘটনায় ১৪ জন নিহত ও ৬ জন আহত হয়েছেন।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায়, নিহতদের মধ্যে পুলিশ সদস্য ৪ জন, বিমান বাহিনীর সদস্য ১ জন, বিজিবি সদস্য ৩ জন, স্কুল-কলেজ-মাদরাসার শিক্ষক ১৭ জন, চিকিৎসক ২ জন, পরমাণু শক্তি কমিশনের বিজ্ঞানী ২ জন ও প্রকৌশলী ২ জন, সাংবাদিক ৩ জন, আইনজীবী ২ জন, বিভিন্ন ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারী ৯ জন, এনজিও কর্মকর্তা-কর্মচারী ১১ জন, সমবায় উপপরিদর্শক ১ জন, বিআরডিবি কর্মকর্তা ১ জন, ঔষধ ও বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী বিক্রয় প্রতিনিধি ২১ জন, স্থানীয় পর্যায়ের বিভিন্ন ব্যবসায়ী ৩২ জন, পোশাক শ্রমিক ৬ জন, ইউপি সদস্য ২ জনসহ স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা ১৩ জন এবং দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৭৮ জন শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন।

সড়ক দুর্ঘটনায় জুন মাসে প্রতিদিন গড়ে ১৭ দশমিক ৪৬ জন নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনায় ১৮ থেকে ৬৫ বছর বয়সী কর্মক্ষম মানুষ নিহত হয়েছেন ৪১৩ জন, অর্থাৎ ৭৮.৮১ শতাংশ।

নৌযানে ভাড়া সমন্বয়ে আট প্রস্তাব ওয়ার্কিং কমিটির



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জ্বালানি তেলের দাম পুনর্নির্ধারণের পরিপ্রেক্ষিতে নৌযানে যাত্রী ভাড়া সমন্বয়ের লক্ষ্যে আটটি প্রস্তাব দিয়েছে ওয়ার্কিং কমিটি। কমিটি ১৯, ২২, ২৫, ৩০, ৩৫, ৪০, ৪২ অথবা ৫০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানোর জন্য সরকারের কাছে প্রস্তাব দিয়েছে।

সোমবার (৮ আগস্ট) রাতে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম খান সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে, দুপুরে সাত সদস্যের ওয়ার্কিং কমিটি গঠন করেন নৌ পরিবহন সচিব মো. মোস্তফা কামাল।

এর আগে, নৌপরিবহন সচিব জানিয়েছিলেন, মালিকদের প্রস্তাবিত ভাড়ার হার বেশি। এজন্য কমিটি করা হয়েছে। কেউ যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেজন্য কাজ করবে ওয়ার্কিং গ্রুপ। আজ কমিটি পুনরায় বসবে। যা ১০ তারিখের মধ্যে গেজেট প্রকাশ করা হবে।

তিনি আরও বলেন, প্রজ্ঞাপন হওয়ার আগ পর্যন্ত আগের ভাড়াতেই লঞ্চে যাত্রী পরিবহন করবে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-চলাচল (যাত্রী পরিবহন) সংস্থার পক্ষ থেকে লঞ্চ ভাড়া ১০০ ভাগ বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে। প্রস্তাবনা নিয়ে মালিক সমিতির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে।

প্রস্তাবে বলা হয়েছে, সরকার কর্তৃক জ্বালানি তেলের (ডিজেল) মূল্য লিটার প্রতি ৩৪ টাকা বৃদ্ধি করায় এবং বিশ্ববাজারে ডলারের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় বাংলাদেশের খোলা বাজারে মবিলের মূল্য ৫০ শতাংশ, প্লেট, এঙ্গেল, ইঞ্জিনের খুচরা যন্ত্রাংশ, ওয়েল্ডিং রড ও গ্যাস সহ স্প্রে পার্সের মূল্য প্রায় ২০০ গুণ বৃদ্ধি পাওয়ায় লঞ্চের বর্তমান যাত্রীভাড়া ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত দূরত্বের জন্য প্রতি কিলোমিটার ২.৩০ টাকার স্থলে ২.৩০ টাকা বৃদ্ধি করে ৪.৬০ টাকা এবং ১০০ কিলোমিটারের ঊর্ধ্বে প্রতি কিলোমিটার দূরত্বের জন্য বর্তমান ২.০০ টাকার স্থলে ২.০০ টাকা বৃদ্ধি করে ৪.০০ টাকা নির্ধারণ করা।

;

অসুবিধা না হলে আইজিপি যুক্তরাষ্ট্রে যেতে পারবেন: পররাষ্ট্রসচিব



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন

পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন

  • Font increase
  • Font Decrease

যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিতব্য পুলিশ প্রধানদের সম্মেলনে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে জাতিসংঘ। মার্কিন নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও বেনজীর আহমেদ নিউইয়র্কের এই সম্মেলনে যেতে পারবেন কি-না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, কোনো রকম অসুবিধা না হলে আইজিপি সম্মেলনে অংশ নিতে পারবেন।

সোমবার (৮ আগস্ট) রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে ঢাকা সফররত মার্কিন আন্তর্জাতিক সংস্থাবিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী মিশেল জে সিসনের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন তিনি।

পররাষ্ট্রসচিব বলেন, এ রকম জাতিসংঘের মিটিংয়ে যেতে গেলে একটি কনভেশন আছে। তবে অতীতে আমরা এ নিয়মের ব্যতিক্রমও দেখেছি। আগে থেকে বলা মুশকিল।

আইজিপি যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবেন কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, এ বিষয়ে আমরা এখনও যোগাযোগ করিনি। তবে সামনের দিনগুলোতে যোগাযোগ করব।

গত ৪ আগস্ট স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে বলা হয়েছে, ওই সম্মেলনে অংশ নেবেন বেনজীর আহমেদসহ ৬ সদস্যের প্রতিনিধি দল। আগামী ৩১ আগস্ট থেকে ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ সম্মেলন হবে। ৩০ আগস্ট তাদের ঢাকা ছাড়ার কথা রয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের নেতৃত্বে ৬ সদস্যের এই দলে আরও রয়েছেন- স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের যুগ্ম সচিব আবু হেনা মোস্তফা জামান, মন্ত্রীর একান্ত সচিব (উপসচিব) মু. আসাদুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক (অতিরিক্ত ডিআইজি) নাশিয়ান ওয়াজেদ ও সহকারী পুলিশ মহাপরিদর্শক (এআইজি) মোহাম্মদ মাসুদ আলম।

উল্লেখ্য, গত বছরের ডিসেম্বরে র‍্যাবের সাবেক মহাপরিচালক (ডিজি) ও বর্তমান আইজিপি বেনজীর আহমেদসহ ৭ কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয় মার্কিন পররাষ্ট্র ও রাজস্ব বিভাগ।

;

ঘাঘটে ভেসে যাচ্ছিল বৃদ্ধের মরদেহ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
ঘাঘটে ভেসে যাচ্ছিল বৃদ্ধের মরদেহ

ঘাঘটে ভেসে যাচ্ছিল বৃদ্ধের মরদেহ

  • Font increase
  • Font Decrease

 

রংপুরের পীরগাছায় ঘাঘট নদী থেকে খবির উদ্দিন(৮০) নামে এক বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন ছিলেন বলে দাবি করেছে পরিবারের লোকজন।

সোমবার(৮ আগস্ট) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেন পীরগাছা থানার ওসি মাসুমুর রহমান। এর আগে দুপুরে উপজেলার কৈকুড়ী ইউনিয়নের মকসুদ খাঁ গ্রামে ঘাঘট নদীর মান্নানের ঘাট এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়

নিহত খবির উদ্দিন পার্শ্ববর্তী মিঠাপুকুর উপজেলার জারুল্যাপুর সর্দারপাড়া গ্রামের মৃত বাসারত উল্ল্যার ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সকালে ঘাঘট নদীতে স্রোতে ভেসে যাচ্ছিল এক ব্যক্তির মরদেহ । এ সময় মরদেহটি মান্নানের ঘাট এলাকায় নদীর কিনারায় ভিড়িয়ে নেয় স্থানীয়রা। পরে তারা ৯৯৯ এ ফোন করে বিষয়টি জানালে দুপুরে অজ্ঞাত পরিচয়ের মরদেহটি উদ্ধার করে পীরগাছা থানা পুলিশ।  বিষয়টি জানাজানি হলে বিকেলে নিহতের ছেলে থানায় এসে পরিচয় সনাক্ত করেন।

নিহতের ছেলে রফিকুল ইসলাম বলেন, আমার বাবা মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। সকালেও পাশের বাড়ির লোকজনের সঙ্গে গল্পে মেতেছিলেন। কখন ঘাঘট নদীতে গেছেন আমরা বুঝতে পারিনি।

পীরগাছা থানার ওসি মাসুমুর রহমান বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

;

সখীপুরে জমি নিয়ে সংঘর্ষে ছোট ভাই খুন, পাঁচজন আটক



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, টাঙ্গাইল
সখীপুরে জমি নিয়ে সংঘর্ষে ছোট ভাই খুন, পাঁচজন আটক

সখীপুরে জমি নিয়ে সংঘর্ষে ছোট ভাই খুন, পাঁচজন আটক

  • Font increase
  • Font Decrease

টাঙ্গাইলের সখীপুরে জমি নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে মারামারির ঘটনায় ছোট ভাই ফালু মিয়ার (৬০) খুন হয়েছে।

সোমবার(০৮ আগস্ট) সকালে উপজেলার কামালিয়াচালা মধ্যে পাড়ায় এ সংঘর্ষ ঘটেছে। এ সময় ফালু মিয়ার স্ত্রী আজিবন (৫০), ছেলে রিপন মিয়া (২৮), প্রতিবেশী মুঙ্গল আলী (৫২) ও তার স্ত্রী হালিমা আক্তার (৩৮) আহত হয়ে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছে।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বড় ভাই বাবর আলী (৬৫) ও ছেলে নাজিম (৩৮) সখীপুর থানায় উল্টো ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা করতে আসলে রোকেয়া (২৭), রহিম (৪০) ও তাহেরা (৪০)সহ পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানিয়ে খুন হওয়ার বিষয়ে মামলা দেয়ার প্রস্তুতি চলছে বলে জানায় পুলিশ।

এলাকাবাসী জানায়, ক্রয়কৃত জমিতে কাটা তারের বেড়া দিয়ে ফালু ও তার ছোট ভাই টিপু বাড়ি নির্মান করে। সেই জমির কাটা তার ভেঙ্গে বড় ভাই বাবর আলী ও তার ছেলে নাজিম ২০/২৫ জনের একটি সংঘবদ্ধ চক্র নিয়ে জমি দখলের চেষ্টা চালায়। এ সময় বাঁধা দিতে গেলে সংবদ্ধ চক্রের দা, শাবলের আঘাতে ছোট ভাই ফালু মিয়া গুরুতর আহত হয়। তাকে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার সময় মারা যায়। এ সংঘর্ষে ফালুর মিয়া স্ত্রীর আজিবন নেছার হাত ভেঙ্গে যায়, তার ছেলে রিপনের মাথা ফেটে যায়। এ সময় প্রতিবেশী মুঙ্গল আলী ও তার স্ত্রী হালিমা গুরুতর আহত হয়ে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সখীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে।

;