ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ, তিন চাকার যান চলাচল বন্ধের দাবি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে জেলার বাস মালিক ও শ্রমিকরা।

ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে জেলার বাস মালিক ও শ্রমিকরা।

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে তিন চাকার যানবাহন চলাচল বন্ধের দাবিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিক্ষোভ মিছিল ও মহাসড়ক অবরোধ করেছে জেলার বাস মালিক ও শ্রমিকরা।

বুধবার (১ জুলাই) সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল-বিশ্বরোড় মোড়ে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। অবরোধের ফলে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে প্রায় আধা ঘণ্টা সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে করে মহাসড়কের দু'পাশে যানজট সৃষ্টি হয়।

সকালে জেলার সরাইল-বিশ্বরোড গোলচত্বর এলাকা থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিল থেকে মহাসড়কে তিন চাকার যানবাহন চলাচল বন্ধের দাবি জানিয়ে হাইওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দেয় নেতাকর্মীরা। এক পর্যায়ে বিক্ষোভকারীরা মহাসড়কে অবরোধ সৃষ্টি করে। অবরোধের কারণে মহাসড়কের দুপাশে যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে প্রশাসনকে ৭ দিনের আল্টিমেটাম দিয়ে অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয়া হলে মহাসড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হানিফ বলেন, উচ্চ আদালত থেকে মহাসড়কে তিন চাকার যানবাহন চলাচল নিষেধ করা হয়েছে। হাইওয়ে পুলিশকে ম্যানেজ করে অবাধে তিন চাকার যানবাহন মহাসড়কে চলাচল করছে। যার কারণে প্রতিদিন দুর্ঘটনা ঘটছে। এছাড়া করোনাভাইরাসের কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের কথা থাকলেও সিএনজি চালিত অটোরিকশাগুলো সেই নির্দেশনা মানছে না। তাই মহাসড়কে তিন চাকার যানবাহন চলাচল বন্ধে ৭ দিনের আল্টিমেটাম দেয়া হয়েছে। দাবি মানা না হলে আরও কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলেও জানান তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :