ইনিংস হার এড়াতে বাংলাদেশকে করতে হবে ২৪১

স্পোর্টস এডিটর, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
বিরাট কোহলি, ছবি: সংগৃহীত

বিরাট কোহলি, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

লাঞ্চ বিরতির পর বাংলাদেশের বোলাররা সাফল্য দেখান। লাঞ্চের পর প্রথম ওভারেই আবু জায়েদ রাহীর বলে বোল্ড রবিন্দ্র জাদেজা। ৮১ ওভারের সময় নতুন বল হাতে নিয়েই আরো বড় সাফল্য বাংলাদেশের। এবার এবাদতের বলে আউট বিরাট কোহলি। ফাইন লেগে দুর্দান্ত ক্যাচটা ধরেন তাইজুল ইসলাম। ১৩৬ রান করে বিরাট কোহলির আউটের পর ভারতের ইনিংস হুড়মুড়িয়ে পড়তে শুরু করে। এবাদত ও আল-আমিন তিনটি করে উইকেট পান।

শেষে ৯ উইকেটে ৩৪৭ রান তোলার পর ভারত তাদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে। কিন্তু ততক্ষণে ভারত এগিয়ে ছিল ২৪১ রানে। ম্যাচে ইনিংস হার বাঁচাতে হলে আগে দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশকে ২৪১ রান তুলতে হবে। আশঙ্কার কথা হলো এখন পর্যন্ত চলতি টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ স্কোর হলো ২১৩!

ইডেনের উইকেট ব্যাটিং সহায়ক কিন্তু নতুন গোলাপি বলে ভারতের ব্যাটসম্যানদের সামাল দেওয়া নেহাত সহজ কোনো কাজ নয়। তাছাড়া বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুটা করতে হচ্ছে পুরোপুরি ফ্লাডলাইটে। কৃত্রিম আলোয় গোলাপি বলের বিপক্ষে ব্যাটিংয়ের জন্য বাড়তি দক্ষতার প্রয়োজন হয়। তবে নভেম্বরে ইডেনের শিশির কিছুটা হলেও ভারতীয় বোলারদের জন্য সমস্যার তৈরি করতে পারে।

প্রথম ইনিংসের ব্যাটিং থেকে বাংলাদেশ ইতিবাচক কিছুই পায়নি। দ্বিতীয় ইনিংসে এখন ঘুরে দাঁড়ানোর সেই সম্ভাবনা এবং সুযোগকে কি কাজে লাগাতে পারবে মুমিনুল হকের দল?
এই প্রশ্নের উত্তরেই লেখা ইডেন টেস্টের ভাগ্য।

বিরাট কোহলি তার ২৭ নম্বর টেস্ট সেঞ্চুরির পর রানের গতি বাড়াতে ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাট চালান। আবু জায়েদ রাহীর এক ওভারে টানা চার বলে বাউন্ডারি হাঁকান তিনি। কিন্তু নতুন বল হাতে নিয়ে এবাদত হোসেন তাকে ফিরিয়ে দিলেন ১৩৬ রানে। ইন্দোরেও এবাদতের বলেই শূন্য রানে আউট হয়েছিলেন ভারত অধিনায়ক। ইডেনে বিরাট কোহলির উইকেটের পাশে এবাদতের নাম লেখা, তবে ফাইন লেগে পেছন দিকে উড়ে গিয়ে যে দুর্দান্ত কায়দায় তাইজুল ইসলাম ক্যাচটা নেন- তাতে এই উইকেটের অর্ধেক কৃতিত্ব তাকেই দিতে হচ্ছে!

কোহলির আউটের পর অশ্বিন-উমেশ ও ইশান্ত ফিরলেন দ্রুত গতিতে। দিনের শেষ সেশনে বাংলাদেশের ব্যাটিংকে চ্যালেঞ্জ জানানোর জন্য একটু আগেভাগে ইনিংস ঘোষণা করলেন কোহলি ৯ উইকেটে ৩৪৭ রানে।

আপনার মতামত লিখুন :