গলফ কোর্সে ফেরার প্রতীক্ষায় সিদ্দিকুর



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
সিনহান ওপেন দিয়ে গলফে ফিরতে চান সিদ্দিকুর রহমান

সিনহান ওপেন দিয়ে গলফে ফিরতে চান সিদ্দিকুর রহমান

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনাভাইরাসে থমকে গেছে তারও চেনা জীবন। কিছুই করার নেই গত মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহের পর থেকেই গৃহবন্দী জীবন। তবে ঘরের অলস সময়ে ক্লান্ত সিদ্দিকুর রহমান। ফের গলফ কোর্সে ফের প্রতীক্ষায় দিন গুনছেন তিনি। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের সংক্রমণ না কমলেও সেপ্টেম্বরে ফেরার স্বপ্ন দেখছেন দেশসেরা এ গলফার।

গত মার্চে মালয়েশিয়া ওপেন গলফে শেষবারের মতো দেখা গেছে সিদ্দিকুরকে। এবার এশিয়ান ট্যুর ইঙ্গিত দিয়েছে সেপ্টেম্বর থেকে ফের শুরু করতে চায় তারা। প্রথমেই দক্ষিণ কোরিয়ার সিনহান ওপেন গলফ। এই আসরে খেলা অনেকটাই নিশ্চিত সিদ্দিকুরের।

সামনে জাপানের প্যানাসনিক ওপেন ও তাইওয়ানের মারকিউরিস ওপেনেও খেলার হাতছানি আছে সিদ্দিকুরের। সবার আগে অবশ্য করোনা সংক্রমণ কমতে হবে। গণমাধ্যমে এই তারকা গলফার জানিয়ে রাখলেন, ‘দেখুন, সামনে এশিয়ান ট্যুরের তিনটি টুর্নামেন্ট। সেপ্টেম্বরে সেই লড়াইয়ে গলফ কোর্সে থাকতে চাই। আয়োজকদের সঙ্গে কথা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই কেবল নামতে পারব।’

গলফ কোর্সে যেতে না পারলেও ফিটনেস নিয়ে সমস্যা নেই সিদ্দিকুরের। জানিয়ে রাখলেন, ‘দেখুন, বাসায় ফিটনেস নিয়ে কাজ করছি। এ অবস্থায় খেলা শুরুর আগে ২ সপ্তাহ কোর্সে অনুশীলন করতে পারলেই চলবে। নিজেকে ঠিকই প্রস্তুত করে নিতে পারব।’

যদিও সময়টা ভালো যাচ্ছে না সিদ্দিকুরের। মালয়েশিয়ায় মার্চে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের এই গলফার হয়েছিলেন ৩১তম। করোনা পরবর্তী গলফে সেই ভুল সামলে নিতে চান তিনি।

   

সম্ভাবনা ক্ষীণ তবুও জয়ের আশা ছাড়ছেন না বশির



স্পোর্টস ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাঁচি টেস্টে হারের দ্বারপ্রান্তে ইংল্যান্ড। সঙ্গে সিরিজটাও। জয় থেকে মাত্র ১৫২ রান দূরে স্বাগতিক ভারত। হাতে ১০ উইকেট ও দুই দিন। এরপরও আশা ছাড়তে নারাজ ইংলিশদের তরুণ স্পিনার শোয়েব বশির। রাঁচির উইকেটে স্পিনাররা বাড়তি সুবিধা পায়; আপাতত এটাই আশার আলো দেখাচ্ছে তাকে। আর এইটুকু আশা নিয়েই রাঁচি টেস্টের চতুর্থ দিনে ভারতের বিপক্ষে সিরিজ বাঁচাতে শেষ চেষ্টা চালাতে চাই ইংলিশরা।

প্রথম ইনিংসে ৩৫৩ রান করা ইংল্যান্ড দ্বিতীয় টেস্টে গুঁড়িয়ে গেছে মাত্র ১৪৫ রানে। ভারতীয় স্পিনারদের বিপক্ষে কোনো রকম প্রতিরোধই গড়তে পারেনি সফরকারী ব্যাটাররা। তাতে ভারতের লক্ষ্যটা দাঁড়ায় ১৯২ রানের। সেই লক্ষ্যে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৪০ রান যোগ করে ভারত। এরপরও রাঁচির উইকেট বলেই আশা রাখছেন শোয়েব।

ম্যাচ জয়ের সম্ভাবনা নিয়ে ইংলিশ এই তরুণ স্পিনার বলেন, ‘আমরা এক বা দুটি উইকেটে পেলে ভালো হতো। তবে আমাদের হাতে এখনও সময় আছে। আর এই উইকেটে সবকিছুই সম্ভব। আমি এবং টম হার্টলি জানি আগামীকাল আমাদের হাতে সময় আছে। সহজ কথায় বলতে গেলে আমাদের মাত্র ১০টি উইকেট নিতে হবে।’

রাঁচি টেস্টেই প্রথমবারের মতো পাঁচ উইকেট পেয়েছেন এই বোলার। প্রথম ইনিংসে ১১৯ রান খরচায় নিয়েছেন ৫ উইকেট। যা এই ক্রিকেটার উৎসর্গ করেছেন তার প্রয়াত দাদার প্রতি। শোয়েব বলেন, ‘এই ইনিংসটি আমার প্রয়াত দুই দাদাকে উৎসর্গ করতে চাই যারা এক বছর আগে মারা গিয়েছেন। তারা টিভিতে সারাক্ষণ টেস্ট ক্রিকেট দেখত, টিভির সামনে সোফায় বসে থাকত। তাদের ইচ্ছা ছিল আমার খেলা দেখার কিন্তু তা হয়নি। তাই এই ইনিংসটি তাদের উৎসর্গ করছি। হ্যাঁ, এই ইনিংসটি অবশ্যই আমার জন্য আবেগপূর্ণ।’

;

পিএসএল থেকেও ছিটকে গেলেন হারিস রউফ



স্পোর্টস ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দুঃসময় যেন পিছুই ছাড়ছে না পাকিস্তানের পেসার হারিস রউফের। জাতীয় দলের হয়ে খেলতে অনিচ্ছা প্রকাশ করার পর তিনি হয়েছিলেন তীব্র সমালোচিত। এরপর শাস্তি হিসেবে তাকে কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ করে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। এবার কাঁধের চোটে পাকিস্তান সুপের লিগের চলতি আসর শেষ হয়ে গেল তার।

গতকাল (শনিবার) করাচি কিংসের বিপক্ষের ম্যাচে ক্যাচ নিতে গিয়ে চোট পান হারিস। এই আসরে লাহোর কালান্দার্সের হয়ে খেলছেন তিনি। শেষ ওভারে হাসান আলীর বলে দুর্দান্ত ক্যাচ লুফে নেন রউফ। তবে সেটি নিতে গিয়েই কাঁধে চোট পান। এরপরই মাঠ ছাড়েন।

আজ (রবিবার) এক বিবৃতিতে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি জানিয়েছে, কাঁধের হাড় নড়ে গেছে রউফের। দলের পরিচালক সামিন রানা যদিও জানিয়েছেন যে, হারিসের চোট ‘তেমন বড়’ কিছু নয়। তবে জাতীয় দলে আগামীতে তার প্রয়োজন আছে, তাই কোনো ঝুঁকি নিতে চায় না দল।

পাকিস্তান জাতীয় টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক শাহিন শাহ আফ্রিদি বলেন, ‘দলের জন্য এটা (হারিসের চোট) বড় ধাক্কা। তবে সে পাকিস্তানেরও মূল বোলার এবং সামনে আমাদের অনেক খেলা আছে। ফলে বাস্তবতা ভেবেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তাকে সেরে উঠতে যথাসম্ভব সময় দিতে হবে।‘

পিসিবি চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত হারিসকে কোনো বিদেশি লিগে খেলার অনুমতি দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছে। তবে এ বছরের জুনে হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তান দলের পরিকল্পনাতে সে আছে এই বিষয়েও জানিয়েছে বোর্ড।

;

দুই দিনে ভারতের দরকার মাত্র ১৫২ রান



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবিঃ সংগৃহীত

ছবিঃ সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতীয় স্পিনারদের তোপের মুখে পড়তে হলো ইংলিশ ব্যাটারদের। দশটি উইকেটই তুলে নিয়েছেন ভারতের স্পিনাররা। অশ্বিন শিকার করেছেন পাঁচ উইকেট।

প্রথম ইনিংসে শুরুর ধ্বস সামলে ৩৫৩ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছিল সফরকারীরা। বোলিংটাও তারা করেছিল দাপটের সঙ্গেই, ফলে ৩০৭ রানেই থামতে হয় স্বাগতিক ভারতকে।

৪৬ রানের লিডে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং শুরু করলেও ভারতীয় বোলারদের স্পিন নৈপুণ্যে মাত্র ১৪৫ রানেই সাজঘরে ফেরেন একে একে সকল ব্যাটার। এতে রাঁচি টেস্ট জিততে ভারতের দরকার মাত্র ১৯২ রান।

তৃতীয় দিনের শেষ সেশনে ব্যাট হাতে নামেন ভারতের দুই ওপেনার, অধিনায়ক রোহিত শর্মা ও যশস্বী জয়সওয়াল। তাদের সাবলীল ব্যাটিংয়ে ৮ ওভার শেষে ৪০ রান সংগ্রহ করেছে ভারত। ম্যাচের বাকি আছে আরও দুই দিন। যেখানে ভারতের দরকার আর মাত্র ১৫২ রান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ৩৫৩ (১০৪.৫ ওভার); ( জো রুট ১২২*, রবিনস্ন ৫৮; জাদেজা ৪/৬৭, আকাশ ৩/৮৩)।

ভারত ১ম ইনিংস: ৩০৭ (১০৩.২ ওভার); ( জুরেল ৯০, জয়সওয়াল ৭৩; শোয়েব বশির ৫/১১৯, হার্টলি ৩/৬৮)

ইংল্যান্ড ২য় ইনিংস: ১৪৫ (৫৩.৫ ওভার); (ক্রলি ৬০, বেয়ারস্টো ৩০; অশ্বিন ৫/৫১, কুলদীপ ৪/২২)

ভারত ২য় ইনিংসঃ ৪০/০ (৮ ওভার); (রোহিত ২৪*, যশস্বী ১৬*)

;

রাঁচিতে সিরিজ জিততে ভারতের চাই ১৯২ রান  



স্পোর্টস ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

শুরুর ব্যাটিং ধস সামলে জো রুট ও ওলি রবিনসনে ব্যাটিং দৃঢ়তায় প্রথম ইনিংসে ৩৫৩ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহে পৌঁছায় ইংল্যান্ড। পরে বোলিংয়েও নিয়ন্ত্রণ রেখেছিল নিজেদের দখলে। ভারতকে ৩০৭ রানে আটকে ৪৬ রানের লিড নিয়ে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নামে সফরকারীরা। সেখানে ইংলিশ ব্যাটারদের যেন ‘চোখে সর্ষে ফুল’ দেখাল ভারতীয় স্পিনাররা। দ্বিতীয় ইনিংসে ইংলিশদের পুরো ১০ উইকেটই নিয়েছেন স্পিনাররা। যেখানে ফাইফার পেয়েছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। 

দ্বিতীয় ইনিংসে সবকটি উইকেট হারিয়ে ইংল্যান্ড তুলেছে স্রেফ ১৪৫ রান। এতে রাঁচি টেস্ট জিততে ভারতের দরকার ১৯২ রান। 

নিজের দ্বিতীয় টেস্টে জুরেলের সেঞ্চুরি আক্ষেপের দিনটা পুরোদস্তুর স্পিনারদের। তৃতীয় দিনের এখন পর্যন্ত মোট ১৩টি উইকেটের ১২টিি স্পিনারদের ঝুলিতে। দলের কঠিন অবস্থায় জয়সওয়ালের ৭৩ রানের পর জুরেলের দুর্দান্ত ৯০ রানের ইনিংসে শেষ পর্যন্ত প্রথম ইনিংসে ৩০৭ রানের সংগ্রহ পায় ভারত। সেখানে ফাইফার পান শোয়েব বশির এবং তিনটি নেন হার্টলি।  

এতে ৪৬ রানের লিড পাওয়া ইংল্যান্ডও দ্বিতীয় ইনিংসে ভুগল স্পিন জুজুতেই। প্রথম ইনিংসে ১১২ রানের মাথায় হারিয়েছিল ৫ উইকেট। এবার দ্বিতীয় ইনিংসে ১২০ রানের মাথায় নেই ৫ উইকেট। তবে বাকি ৫ উইকেট গেল চোখের পলকেই। ১২০ থেকে ১৪৫ রানে যেতেই নেই ইংল্যান্ডের বাকি অর্ধেক দল। অশ্বিনের ফাইফার বাদে কুলদীপ নেন চার উইকেট। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ৩৫৩ (১০৪.৫ ওভার) ( জো রুট ১২২*, রবিনস্ন ৫৮; জাদেজা ৪/৬৭, আকাশ ৩/৮৩)।

ভারত ১ম ইনিংস: ৩০৭ (১০৩.২ ওভার) ( জুরেল ৯০, জয়সওয়াল ৭৩; শোয়েব বশির ৫/১১৯, হার্টলি ৩/৬৮)

ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংস: ১৪৫ (৫৩.৫ ওভার) (ক্রলি ৬০, বেয়ারস্টো ৩০; অশ্বিন ৫/৫১, কুলদীপ ৪/২২)

;