ফেসবুক ব্যবহার করুন স্মার্টলি!

ফাওজিয়া ফারহাত অনীকা, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইফস্টাইল
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ছেলেবেলার পুরনো বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখার কিংবা দেশের বাইরের আত্মীয়দের সংস্পর্শে থাকার অন্যতম জনপ্রিয় যোগাযোগ মাধ্যম হলো ফেসবুক।

ফেসবুক ব্যবহার করেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া ভীষণ দুষ্কর। ফেসবুকের সহজলভ্যতা ও সহজ ব্যবহার সকল বয়সী মানুষের কাছেই পরিচিত হতে সাহায্য করেছে।

তবে ফেসবুক সহজলভ্য হবার সমস্যাও রয়েছে। প্রচুরে মানুষের আনাগোনা ও নানান ধরণের মানুষের সংস্পর্শে ফেসবুক ভারি হয়ে উঠছে প্রতিনিয়তই। দুঃখজনক হলেও সত্যি বেশিরভাগ ব্যবহারকারীরাই জানেন না, ফেসবুক কীভাবে ব্যবহার করা উচিৎ। কী লেখা উচিৎ ও কী এড়িয়ে যাওয়া প্রয়োজন। কার সঙ্গে কীভাবে আচরণ করা উচিৎ এবং কোথায় কোন কথা বলা উচিৎ নয়।

দেখা যায় যে যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহৃত হওয়ার চাইতে অন্য সকল কারণে বেশি ব্যবহৃত হয়। সেখানে বন্ধু ও আত্মীয়দের মাঝে সুসম্পর্ক বজায় রাখার চাইতে অহেতুক ঝামেলা ও বিতর্কই প্রধান হয়ে ওঠে। এই সকল নানাবিধ কারণে অনেকের কাছেই ফেসবুক বিরক্তির কারণ হয়ে ওঠে।

অথচ কিছু নিয়ম মেনে চলতে পারলে, স্মার্টলি ফেসবুক ব্যবহার করা সম্ভব হয়। এমন কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট তুলে ধরা হলো।

রাজনৈতিক মতাদর্শ নিয়ে পোস্ট না করা

প্রতিটি মানুষেরই নিজস্ব চিন্তাভাবনা ও পছন্দ অনুযায়ী রাজনৈতিক মতাদর্শ ভিন্ন হবে। যা খুবই স্বাভাবিক একটি বিষয়। ফেসবুক অ্যাকাউন্টে নিজের রাজনৈতিক মতাদর্শ প্রচার করা কিংবা অন্যের রাজনৈতিক মতাদর্শকে কটাক্ষ করা একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়। এতে করে বিবাদ ও মনোমালিন্যের উদ্ভব হয়।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Oct/27/1540633466104.jpeg

ব্যক্তিগত বিষয়ে পোস্ট না করা

বন্ধুদের সঙ্গে দেখা হলে, প্রিয় কোন জিনিস কিনলে কিংবা পছন্দের কোন স্থানে বেড়াতে গেলে ফেসবুকে অবশ্যই শেয়ার করা যায়। নিজের আনন্দ ও ভালো থাকার মুহূর্তগুলো শেয়ার করে বন্ধুদের মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্যেই যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। কিন্তু খুব বেশি ব্যক্তিগত ও গোপন বিষয়গুলো নিয়ে ফেসবুকে অনবরত পোস্ট দেওয়া অবশ্যই উচিৎ নয়। যা বিরক্তির উদ্রেক ঘটায় অন্যের মাঝে।

একই বিষয়টি অন্যের জন্যেও প্রযোজ্য। অর্থাৎ অন্যের ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে অহেতুক ও কারণে প্রশ্ন করা থেকে নিজেকে বিরত রাখতে হবে। কেউ যদি নিজ থেকে ব্যক্তিগত বিষয়ে জানাতে আগ্রহী না হন, তবে সেটা নিয়ে প্রশ্ন করা একেবারেই ঠিক হবে না।

বিদ্রূপাত্মক মন্তব্য না করা

বিদ্রূপাত্মক মন্তব্য কিংবা ব্যঙ্গ করা- যাই হোক না কেন, ফেসবুকের মতো একটি ওপেন প্ল্যাটফর্মে কখনোই এমন কোন মন্তব্য বা এমন কোন পোস্ট করা উচিৎ নয় যার মাধ্যমে অন্যকে হেয় প্রতিপন্ন করা। মজাচ্ছলে কোন কথা বলা ও বিদ্রুপ করা একেবারেই ভিন্ন দুইটি বিষয়। এই দুইটির মাঝে পার্থক্যকে বুঝতে হবে।

ব্যবসায়িক পোস্ট কম করা

ফেসবুক ব্যবহারকারীর সঙ্গে সমান তালে বৃদ্ধি পাচ্ছে অনলাইন ব্যবসায়ী। অনেকেই নিজের ব্যবসায়ীক পেইজ প্রমোট করার জন্য নিজের অ্যাকাউন্টে ব্যবসা সম্পর্কিত পোস্ট শেয়ার করেন অনবরত। যা অনেকের বিরক্তির কারণ হতে পারে। তাই ব্যবসায়িক পোস্ট করলেও সেটা হতে হবে সীমিত। 

আপনার মতামত লিখুন :