ফাগুনে সতেজতা সারাদিন

ফাওজিয়া ফারহাত অনীকা, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইফস্টাইল
বসন্তর প্রথম দিন জুড়ে নিজের মাঝে সতেজতা থাকুক। ছবি: সংগৃহীত

বসন্তর প্রথম দিন জুড়ে নিজের মাঝে সতেজতা থাকুক। ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মাত্র দিন তিনেক পরেই বসন্তর প্রথম দিনটি চলে আসবে সদর্পে।

জানান দিবে ‘বসন্ত এসে গেছে’। শুধু প্রকৃতিতে নয়, বসন্তের আগমনী বার্তায় রঙ ছড়াবে নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সবার মাঝেই।

কর্মব্যস্তময় দিনের মাঝে বসন্তর প্রথম দিনটি থাকার পরেও, চারদিকেই উৎসব মুখর পরিবেশের আভা পাওয়া যাবে। ক্লাসে কিংবা অফিসের সবার সাজ-পোশাকে একটু বেশি হলুদ কিংবা লালের প্রাধান্য দেখা দিবে ফাগুন বরণে।

আর এমনটা হবেই বা না কেন, বসন্তের প্রথম দিন বলে কথা! ক্লাস কিংবা অফিস শেষে সকলেই নিজ পরিবার ও প্রিয়জনদের সঙ্গে কিছুটা আনন্দময় সময় কাটাতে ছুট দিবে। এছাড়া ক্লাস ও অফিসেও থাকবে ফাগুন দিনের ছোটখাটো আয়োজন।

ঘরে কিংবা বাইরে যেখানেই থাকুন না কেন বসন্তের এই প্রথম দিনটিতে নিজেকে যেন একদম সতেজ দেখায় সে বিষয়ে ভালোমতো খেয়াল রাখতে হবে। চেহারার মাঝে সতেজতা না থাকলে, সাজসজ্জাতেও চেহারার নিস্প্রাণ ও ক্লান্তিভাবে ঢাকা সম্ভব হবে না।

বসন্তর প্রথম দিনটিতে নিজেকে ফুরফুরে ও সতেজ রাখতে কয়েকটি টিপস মনে রাখাই যথেষ্ট।

১. ফাগুনের আগের দিন রাতেই একদম পরিষ্কার কাপর গুছিয়ে রাখুন। সাধারণত ফাগুনে পরার জন্য সকলেই নতুন জামা-শাড়ি রাখার চেষ্টা করেন। নতুন পোশাক যদি নাও থাকে, পরিধানের পোশাকটি যেন একবারে পরিষ্কার হয় সেদিন লক্ষ্য রাখতে হবে।

২. পোশাকের পাশাপাশি অন্তর্বাসের বিষয়েও খেয়াল রাখতে হবে। এই বিষয়টির প্রতি অনেকেই সেভাবে গুরুত্ব আরোপ করে না। কিন্তু সম্পূর্ণভাবে সতেজ অনুভব করতে চাইলে অবশ্যই এই বিষয়টিকে মাথায় রাখতে হবে।

৩. অনেকেরই রাতের বেলা গোসল করার অভ্যাস আছে। তবে ফাগুনের দিনে সকাল সকাল গোসলের পর্ব সেরে নেওয়ার চেষ্টা করতে হবে। সকালে গোসল করার ফলে অনেক বেশি ফ্রেশনেস কাজ করবে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/09/1549698021522.jpeg

৪. ত্বকের শুষ্কভাব পুরো চেহারা থেকেই ফ্রেশনেস কেড়ে নিবে। তাই সকালে গোসলের পর অবশ্যই ভালো মানের ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে।

৫. পানি পান করার বিষয়ে কোন ছাড় দেওয়া যাবে না। আগের দিন থেকেই পর্যাপ্ত পানি পান করতে হবে। এছাড়া ফাগুনের দিনেও কিছুক্ষণ পরপর পানি পান করতে হবে এবং নিজের কাছে পানির বোতল রাখতে হবে। পানি চেহারার মাঝে সতেজতাকে ধরে রাখতে কাজ করে।

৬. যেহেতু উৎসবের একটি দিন, তৈলাক্ত ও ভারি খাবার খাওয়া হবেই। তাই আগের দিন সন্ধ্যা, রাত ও ফাগুনের দিন সকালে কয়েক ধরণের ফল খাওয়ার চেষ্টা করুন। এতে শরীর ঝরঝরে লাগবে এবং সতেজ অনুভূত হবে।

৭. সুগন্ধি ব্যবহারের ক্ষেত্রে একটু বাছাই করে নিতে হবে। কড়া গন্ধের সুগন্ধি সতেজ ভাবকে নষ্ট করে ফেলে। ফাগুনের দিনের জন্য ফ্লোরাল সুবাসযুক্ত সুগন্ধি বেছে নিলে সবচেয়ে ভালো হবে।

৮. হালকা মেকআপ নিশ্চয় করা হবে। বাইরে ঘুরতে গেলে কিংবা ঘরে মেহমানদের আপ্যায়নের জন্য হলেও ছোটাছুটি করতেই হবে। সেক্ষেত্রে সেটিং স্প্রে ব্যবহার করতে ভোলা যাবে না।

আরও পড়ুন: ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখবে পাঁচ নিয়ম

আরও পড়ুন: প্রাকৃতিক উপাদানে দূর হবে ত্বকের কালচে ভাব

আপনার মতামত লিখুন :