চুলের রুক্ষভাব দূর করবে চার উপাদান

ফাওজিয়া ফারহাত অনীকা, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইফস্টাইল
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

চুলের হাজারো সমস্যার মাঝে শুষ্ক ও রুক্ষ চুলের সমস্যাটি সবচেয়ে কমন।

টানা কয়েকদিন ঠিকমতো চুলের যত্ন নিতে না পারলেই চুল রুক্ষ হয়ে ওঠে। সাধারণ নারিকেল তেলের ব্যবহারেও চুলের এই রুক্ষভাব কমতে চায় না। যে কারণে চুলের রুক্ষভাবকে দূর করতে প্রয়োজন হয় একটু বাড়তি যত্নের।

জেনে নিন চুলের বাড়তি যত্নে ও চুলের রুক্ষতাকে দূর করতে কোন প্রাকৃতিক উপাদানগুলো ব্যবহার করতে হবে।

অ্যালোভেরা পাতার জেল

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/17/1550402184303.jpg

ত্বকের সৌন্দর্য বাড়ানোর পাশাপাশি চুলের পরিচর্যা ও সৌন্দর্য বৃদ্ধিতেও এই প্রাকৃতিক উপাদানটি বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। অ্যালোভেরা জেলে উপস্থিত একাধিক উপকারি এনজাইম চুলের ভেতরে প্রবেশ করে চুলের বৃদ্ধিকে ত্বরান্বিত করে। সেই সঙ্গে চুলের ক্ষতি সারাতে ও চুলের রুক্ষভাব দূর করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। ফলে চুল কোমল, নরম ও সিল্কি হয়ে উঠতে সময় লাগে না।

চুলে অ্যালোভেরা পাতার জেল ব্যবহারের জন্য ২ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল ও ২ টেবিল চামচ পানি মিশিয়ে স্প্রে বোতল নিয়ে সম্পূর্ণ চুলে ভাল করে স্প্রে করতে হবে। প্রতি সপ্তাহে ৩-৪ দিন এভাবে চুলে অ্যালো জেল ব্যবহার করলে চুলে খুব দ্রুত কোমলভাব চলে আসবে।

টকদই

স্বল্প সময়ের মাঝে চুলের রুক্ষতাকে কমাতে ও চুলের সৌন্দর্য বাড়াতে চাইলে দই ব্যবহারের বিকল্প নেই। ১ কাপ পরিমাণ দইয়ের সঙ্গে ২ চা চামচ আমলকীর পাউডার মিশিয়ে মিশ্রণটি চুলের গোড়ায় তথা স্কাল্পে এবং সম্পূর্ণ চুলে ভাল করে ম্যাসাজ করতে হবে। মিশ্রণটি চুলে ৩০ মিনিটের জন্য রেখে দিয়ে এরপর স্বাভাবিক তাপমাত্রার পানিতে ধুয়ে নিতে হবে। প্রসঙ্গত সপ্তাহে ১-২ বার এই পদ্ধতিতে টকদই ব্যবহারে চুলের ভেতরে ভিটামিন-ডি ও বি৫ এর মাত্রা বৃদ্ধি পাবে। যার প্রভাবে খুব দ্রুতই চুল কোমল হয়ে উঠবে।

অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/17/1550402141541.jpeg

অনেকের হয়তো ধারণা নেই, প্রাকৃতিক কন্ডিশনার হিসেবে অ্যাপল সাইডার ভিনেগার খুব চমৎকার কাজ করে। চুলে ব্যবহারের জন্য- শ্যাম্পু করার পর ১ চা চামচ অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার, ১ কাপ ঠান্ডা পানিতে মিশিয়ে সম্পূর্ণ চুল এই মিশ্রণে ধুয়ে নিতে হবে। প্রতিবার শ্যাম্পু করার পর এই উপায়ে অ্যাপল সাইডার ভিনেগারের ব্যবহারে কেমিক্যালযুক্ত কন্ডিশনারের চাইতে ভালো কাজ করবে ও দ্রুত ফলাফল পাওয়া যাবে।

পেঁয়াজের রস

চুলকে সুন্দর, কোমল ও উজ্জ্বল করেতে পেঁয়াজের রসের কোন বিকল্প নেই বললেই চলে। চুলে ব্যবহারের জন্য পরিমাণ মতো পেঁয়াজের রসের সঙ্গে ৩-৪ ফোঁটা ল্যাভেন্ডার অয়েল মিশিয়ে মিশ্রণটি দিয়ে ভালভাবে সম্পূর্ণ চুলে ম্যাসাজ করতে হবে। ম্যাসাজ শেষে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে হার্বাল শ্যাম্পুর সাহায্যে চুল ধুয়ে ফেলতে হবে। প্রসঙ্গত, সপ্তাহে ২ বার এইভাবে পেঁয়াজের রস ব্যবহার করতে হবে।

আরও পড়ুন: কীভাবে দূর হবে চুলের আগা ফাটার সমস্যা?

আরও পড়ুন: অকালেই পেকে যাচ্ছে প্রিয় চুল?

আপনার মতামত লিখুন :