ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে চার পদ্ধতিতে চিয়া সিডস

লাইফস্টাইল ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
চিয়া সিডস, ছবি: সংগৃহীত

চিয়া সিডস, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

চিয়া সিডস তথা বীজ পুষ্টি এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্টসমূহে পরিপূর্ণ একটি স্বাস্থ্যকর খাদ্য উপাদান।

সেলভিয়া হিসপানিকা (Salvia hispanica) নামক উদ্ভিদ থেকে সংগৃহীত এই কালো বীজ বিভিন্নভাবে স্বাস্থ্যের জন্য উপকারিতা বহন করে।

বিশেষত দীর্ঘমেয়াদী স্বাস্থ্য সমস্যা তথা টাইপ-২ ডায়বেটিস থাকে, তাহলে খাদ্যের তালিকায় চিয়া সিডস রাখলে উপকার পাওয়া যাবে, কারণ এটি ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণ করে। ডায়বেটিসের মতো ক্রনিক শারীরিক সমস্যা থাকলে অবশ্যই খাদ্যাভ্যাসের দিকে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে। এমন খাদ্য উপাদান গ্রহণ করতে হবে, যা শরীর সুস্থ রাখতে, রক্তে চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে ও কার্ডিওভাস্কুলার তথা হৃদরোগ প্রতিরোধে কাজ করবে। সেদিক থেকে বলতেই হয়, চিয়া সিডস অন্যতম একটি উপকারী প্রাকৃতিক খাদ্য উপাদান।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/15/1563165156580.jpg

কার্যকরী এই বীজের বিশেষ গুণ হলো এটি শরীরে স্বল্প পরিমাণ ক্যালরির সাথে প্রচুর পরিমানে পুষ্টি প্রদান করে। চিয়া বীজে আঁশ, প্রোটিন, ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড, ফসফরাস, ম্যাগনেসিয়াম ও বিভিন্ন পুষ্টি উপাদান রয়েছে। চিয়া বীজ গ্লুটেনমুক্ত ও সহজে হজমে সহায়ক। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, চিয়া বীজ গ্লুকোজ ও ইনসুলিন সহনশীলতায় সাহায্য করে।

এছাড়া চিয়া বীজে ওজন কমাতেও সাহায্য করে। যেহেতু এটি আঁশপূর্ণ একটি খাদ্য, তাই চিয়া সিডস গ্রহণে দীর্ঘ সময় ক্ষুদাভাব দেখা দেয় না এবং পেট ভরা থাকে।

ওজন কিংবা ডায়বেটিসকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে চিয়া বীজকে ডায়বেটিক খাদ্য তালিকায় যেভাবে রাখতে পারেন তার কয়েকটি স্বাস্থ্যকর ও মজাদার পুষ্টিসমৃদ্ধ উপায় জেনে রাখুন।

চিয়া সালাদ

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/15/1563165174505.png

সবুজ সালাদ রেসিপিতে চিয়া বীজ একটি দারুণ জুটি। পছন্দের সালাদকে স্বাস্থ্যকর ও আঁশপূর্ণ করতে সবুজ সবজির সালাদের উপরে চিয়া বীজ ছিটিয়ে দিন।

চিয়া পুডিং

বেশ জনপ্রিয় একটি উপায় হচ্ছে চিয়া বীজ দিয়ে পুডিং তৈরি। দুধ বা জুসের এক চতুর্থাংশ কাপে চিয়া বীজ মিশ্রিত করতে পারেন। সাথে স্বাদের জন্য ভ্যানিলা ও কোকোয়া ফ্লেভার দিতে পারেন। চিয়া পুডিং ডায়বেটিস ব্যাক্তিদের জন্য স্বাস্থ্যকর ও উপকারী খাদ্য হতে পারে।

স্মুদির সাথে চিয়া বীজ

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/15/1563165187767.jpg

চিয়া বীজ যেকোনো স্মুদিতে দেয়া যেতে পারে, যেটা স্মুদিকে আরও পুষ্টিসমৃদ্ধ করে তুলবে। শুধু খেয়াল রাখতে হবে, চিয়া বীজ স্মুথিতে দেওয়ার আগে জেল তৈরি করতে বীজ ভিজিয়ে রাখতে হবে।

চিয়া পানি

চিয়া পানি তৈরি করা সবথেকে সহজ ও সাধারণ একটি পদ্ধতি। ১/৪ কাপ (৪০ গ্রাম) চিয়া বীজ নিয়ে ৪ কাপ পানিতে ২০-৩০ মিনিট ভিজিয়ে রাখতে হবে, সাথে পছন্দমতো ১ টুকরো লেবু বা ফলের টুকরো দেওয়া যেতে পারে। এটি পানিকে ফ্লেভারযুক্ত ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পূর্ণ করতে সাহায্য করে। এটি মূলত যারা ওজন কমাতে চান তাদের জন্য বেশ উপকারী।

আরও পড়ুন: ডায়বেটিস রোগীর খাদ্য তালিকায় থাকুক ঘি

আরও পড়ুন: খেতে হবে ‘স্বাস্থ্যকর’ ফ্যাটযুক্ত খাবার

আপনার মতামত লিখুন :