মুখের ত্বকে যে পণ্যগুলো ব্যবহার করা যাবে না

ফাওজিয়া ফারহাত অনীকা, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইফস্টাইল
মুখের ত্বকের পরিচর্যার ক্ষেত্রে পণ্য নির্বাচনে সতর্ক হওয়া জরুরি

মুখের ত্বকের পরিচর্যার ক্ষেত্রে পণ্য নির্বাচনে সতর্ক হওয়া জরুরি

  • Font increase
  • Font Decrease

মুখের ত্বকের পরিচর্যায় কোন পণ্যগুলো ব্যবহার করা প্রয়োজন ও কোন উপাদানগুলো উপকারিতা বহন করবে সেটা নিয়েই সবসময় আলোচনা করা হয়।

এর সাথে কোন জিনিসগুলো ত্বকের জন্য ক্ষতিকর ও কোন ধরনের পণ্যগুলো এড়িয়ে যাওয়া প্রয়োজন সেটা সম্পর্কেও জানা প্রয়োজন। এতে করে সম্পূর্ণভাবে ত্বককে সুরক্ষিত রাখা সম্ভব হবে।

এমনকি কিছু ক্ষেত্রে ফেসিয়াল বিউটি প্রোডাক্টের ক্ষেত্রেও সতর্ক থাকতে হয় ও কিছু পণ্য ব্যবহার এড়িয়ে যেতে হয়। কারণ বিউটি পণ্যে ব্যবহৃত উপাদানসমূহের মাঝে কিছু উপাদান ত্বকের উপর নেতিবাচক প্রভাব তৈরি করতে পারে। ত্বককে সুরক্ষিত রাখার চেষ্টায় জেনে রাখুন মুখের ত্বকে কী উপাদান ও কোন ধরনের পণ্য ব্যবহার থেকে বিরত থাকা জরুরি।

শ্যাম্পু মুখের ত্বক থেকে দূরে রাখতে হবে

চুল পরিষ্কার করার সময় শ্যাম্পু মুখের ত্বকে মিশে যায় বেশিরভাগ সময়। কিন্তু এই ব্যাপারে সবসময় সতর্ক থাকা খুবই প্রয়োজন। আমাদের মুখের ত্বক এবং চুল ও চুলের ত্বকের মলিকিউলস সম্পূর্ণ ভিন্ন হয়। চুলের ত্বক তুলনামূলক পুরু হওয়ার দরুন ক্লিনজার হিসেবে স্ট্রং উপাদান ব্যবহার করা হয় শ্যাম্পুতে। যা আমাদের মুখের ত্বকের সাথে একেবারেই মানানসই নয়। এ কারণেই চুল শ্যাম্পু দ্বারা পরিষ্কার করার পর আমাদের ত্বক খসখসে ও রুক্ষ হয়ে ওঠে। কারণ আমরা এর প্রতি একেবারেই নজর দেই না।

পেট্রোলিয়াম জেলি

শীতকালীন সময়ে ত্বক ফাটাভাব রোধ করতে অনেকেই মুখের ত্বকে পেট্রোলিয়াম জেলি ব্যবহার করে। পেট্রোলিয়াম জেলি মূলত ত্বকের উপরের অংশে পর্দার মতো  একটি আবরণ তৈরি করে। এতে করে ত্বকের লোমকূপ বন্ধ হয়ে যায় এবং সহজেই ত্বকে ব্রণের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। পেট্রোলিয়াম জেলি ঠোঁটের ত্বকের জন্য উপযুক্ত হলেও মুখের ত্বকের জন্য কোনভাবেই উপকারী বা উপযুক্ত নয়। মুখের ত্বকের রুক্ষতা দূর করার জন্য ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা সঠিক।

টুথপেস্টের ব্যবহার

ইদানিংকালে ব্রণের সমস্যা দূর করতে একটি প্রচলিত টিপস দেখা যায়। মুখের ত্বকের কোন স্থানে ব্রণ হলে তার উপরে টুথপেস্টের প্রলেপ মাখিয়ে রেখে দেওয়া। যেহেতু টুথপেস্ট অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান, তাই ত্বকের লালচে ভাব কমাতে টুথপেস্ট কার্যকরি হতে পারে। কিন্তু পরবর্তীতে ত্বকে জ্বলুনি দেখা দিতে পারে। এছাড়া একেকজনের ত্বক একেক ধরনের হয়ে থাকে। সেক্ষেত্রে অনেকের ত্বকে টুথপেস্ট ব্যবহারে সমস্যা না হলেও হুট করে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েই যায়।

অ্যালকোহল ভিত্তিক পণ্য

বর্তমান স্কিন কেয়ার পণ্যের মাঝে অ্যাস্ট্রিজেন্টস ও টোনার সবসময়ই উপস্থিত থাকে। অথচ এই ধরনের পণ্যগুলোই পরবর্তীতে ত্বকের বিভিন্নন ধরনের সমস্যা তৈরি করে। কারণ এ সকল পণ্যে বেশ উচ্চমাত্রায় অ্যালোকোহল ও এ জাতীয় উপাদান উপস্থিত থাকে। যা ধীরে ত্বকের উপর নেতিবাচক প্রভাব তৈরি করে। তাই এই জাতীয় পণ্য ব্যবহার থেকে বিরত থেকে হালকা বা লাইটওয়েট ময়েশ্চারাইজার ও ক্লিনজিং পণ্য ব্যবহার করতে হবে।

সরাসরি লেবুর রস নয়

ত্বকের কালচেভাব দূর করতে ও ত্বককে প্রাকৃতিকভাবে উজ্জ্বল করতে লেবুর রস অন্যতম একটি প্রাকৃতিক উপাদান। তবে লেবুর রসে থাকে পর্যাপ্ত পরিমাণ অ্যাসিডিক উপাদান। তাই কোনভাবেই লেবুর রস সরাসরি ত্বকে ব্যবহার করা উচিত নয়। অন্য যেকোন উপাদানের সাথে মিশিয়ে এরপর লেবুর রস ব্যবহার করতে হবে ত্বকে।

আরও পড়ুন: যেমন হওয়া প্রয়োজন স্পর্শকাতর ত্বকের যত্ন

আরও পড়ুন: টি ট্রি অয়েল ব্যবহারে সুরক্ষিত ত্বক

আপনার মতামত লিখুন :