পেস্তাবাদাম খাওয়ার পাঁচ কারণ

ফাওজিয়া ফারহাত অনীকা, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইফস্টাইল
পেস্তাবাদাম

পেস্তাবাদাম

  • Font increase
  • Font Decrease

কাজুবাদাম বা কাঠবাদামের প্রচলনের ভিড়ে পেস্তাবাদাম অনেকটাই ফিকে হয়ে যায়।

অথচ সবুজ বর্ণের এই বাদামেও রয়েছে নানাবিধ স্বাস্থ্য উপকারিতা। একই ঘরানার বাদাম নিয়মিত খাওয়ার ফলে অনেক সময় একঘেয়েমি চলে আসে। সেক্ষেত্রে স্বাস্থ্যকর এই বাদাম একই সাথে স্বাদে পরিবর্তন আনবে এবং স্বাস্থ্যকর খাবারে আনবে বৈচিত্র। আজকের ফিচার থেকে দেখে নিন কোন উপকারিতাগুলো পাওয়া যাবে পেস্তাবাদাম থেকে।

ডায়েট ফ্রেন্ডলি খাবার

ওজন কমানোর চেষ্টা করছেন এবং চিন্তা করছেন খাবারের তালিকায় কী রাখা যেতে পারে, তবে পেস্তা বাদামকে রাখতে পারবেন স্বাচ্ছন্দ্যে। কারণ পেস্তাবাদামের ক্যালোরি খুবই কম এবং এই বাদাম থেকে পাওয়া যাবে শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় পুষ্টিগুণ।

এছাড়া পেস্তাবাদামের ফ্যাট নিয়েও কোন চিন্তা নেই। বরং এই বাদামে ক্ষতিকর স্যাচুরেটেড ফ্যাটের পরিমাণ একেবারেই কম এবং উপকারী আনস্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকে তুলনামূলক বেশি। সবচেয়ে ভালো বিষয় হলো পেস্তার আঁশ ও প্রোটিন দীর্ঘ সময় পর্যন্ত পেট ভরা রাখে। তবে একবারে ৬-৭টির বেশি পেস্তা বাদামের বেশি খাওয়া উচিত হবে না।

হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বৃদ্ধি করে

অ্যানিমিয়া বা রক্তশূন্যতার কারণে রক্তে হিমোগ্লোবিন কমে যায়, শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে, মাথা ঘোরাভাব ও ঝিমঝিম করার মতো লক্ষণ দেখা দেয়। নিয়মিত পেস্তা বাদাম খাওয়ার অভ্যাস রক্তশূন্যতার সমস্যা কমাতে কাজ করবে। কারণ পেস্তায় আছে প্রচুর পরিমাণে আয়রন ও কপারের উপস্থিতি। যা রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ বাড়াতে সাহায্য করে।

নিয়ন্ত্রণ করে ডায়বেটিস

ডায়বেটিস রোগীদের শরীরে গ্লাইকেশন পদ্ধতিতে প্রোটিন জমাট বাঁধে, কারণ রক্তে সুগারের উপস্থিতি। পেস্তায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা এই গ্লাইকেশন পদ্ধতিতে বাধা প্রদান করে। প্রোটিন গ্লাইকেশন পদ্ধতিতে জমাট না বাঁধলে ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে। পেস্তা শুধু ডায়বেটিস নয়, রক্তচাপকেও নিয়ন্ত্রণে রাখতে কাজ করে।

ঠিক রাখে দৃষ্টিশক্তি

বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ম্যাকুলার ডিজেনারেশনের কারণে সবারই দৃষ্টিশক্তি ক্ষীণ হতে থাকে। এছাড়া ছানি পড়ার মত ঘটনাও বৃদ্ধ বয়সের স্বাভাবিক ঘটনা। পেস্তায় থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট লিউটিন ও জিয়াক্সানথিন দৃষ্টিশক্তিকে রক্ষা করতে কাজ করে এবং রেটিনাকে দীর্ঘদিন ভালো রাখে।

কমায় হৃদরোগের আশঙ্কা

বেশ কিছু পরীক্ষার তথ্য থেকে দেখা গিয়েছে, নিয়মিত পেস্তা বাদাম গ্রহণের ফলে হৃদরোগের আশঙ্কা অনেকটাই কমে যায়। বিশেষজ্ঞদের মতে পেস্তায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণ পটাশিয়াম, যা শরীরের সমস্ত পেশির পাশাপাশি হৃদযন্ত্রের পেশীর কার্যকারিতা ঠিক রাখতে কাজ করে। এছাড়া শ্বাস-প্রশ্বাস ঠিক রাখতেও পটাশিয়াম গুরুত্বপূর্ণ‌।

আরও পড়ুন: খোসাসহ নাকি খোসাবিহীন কাঠবাদাম?

আরও পড়ুন: ঘুম আনতে সাহায্য করবে এই খাবারগুলো

আপনার মতামত লিখুন :