‘বেটা ক্যারোটিন’ সম্পর্কে যা জানা জরুরি

ফাওজিয়া ফারহাত অনীকা, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইফস্টাইল
বেটা ক্যারোটিন সমৃদ্ধ খাদ্য উপাদান

বেটা ক্যারোটিন সমৃদ্ধ খাদ্য উপাদান

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রাকৃতিক কোন খাদ্য উপাদান থেকে কী ধরনের উপকারিতা পাওয়া যাবে, সেটা নিয়ে জানার চেষ্টা করা প্রয়োজন সঠিক পুষ্টি উপাদানের ঘাটতি পূরণের জন্য।

ভিটামিন সি কিংবা আয়রন কোন খাবারগুলো থেকে পাওয়া যাবে, সেটা নিয়ে আলোচনা করা হলেও, বেটা ক্যারোটিনের বিষয়ে খুব একটা কথা বলা হয় না। অথচ শারীরিক সুস্থতায় অনেক বড় ভূমিকা পালন করে এই পুষ্টি উপাদানটি।

কী এই বেটা ক্যারোটিন?

১৯০৭ সালে আবিষ্কৃত হওয়া বেটা ক্যারোটিন (Beta Carotene) হলো এক প্রকার উদ্ভিজ পদার্থ যা শরীরে প্রবেশের পর ভিটামিন-এ (রেনিটল) তে পরিণত হয়। মূলত বেটা ক্যারোটিন ভিটামিন-এ এর একটি ভিন্ন ও অগ্রবর্তী ধরণ। এছাড়া এই বেটা ক্যারোটিন হলো ক্যারোটিনয়েড ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট। সুস্থ ত্বক, মিউকাস মেমব্রেনস, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি ও স্বাস্থ্যকর চোখের জন্য বেটা ক্যারোটিন খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি পুষ্টি উপাদান।

কোন খাদ্য উপাদান থেকে পাওয়া যাবে বেটা ক্যারোটিন?

মূলত যে সকল প্রাকৃতিক খাদ্য উপাদান কমলা ও লালচে বর্নের হয়ে থাকে, যে সকল খাদ্য উপাদান থেকে পর্যাপ্ত পরিমাণ বেটা ক্যারোটিন পাওয়া যায়। এছাড়াও অন্যান্য আরও কিছু নিত্য ও পরিচিত খাবার থেকেও পাওয়া যাবে উপকারী এই পুষ্টি উপাদানটি।

গাজর

সবচেয়ে বেশি বেটা ক্যারোটিন পাওয়া যাবে গাজর থেকে। মাত্র এক গ্রাম পরিমাণ গাজরে থাকে ৮৩ মাইক্রোগ্রাম বেটা ক্যারোটিন। শুধু বেটা ক্যারোটিন নয়, গাজর থেকে আরও পাওয়া যাবে স্বাস্থ্যকর ভিটামিন, খনিজ উপাদান ও আঁশ।

২০০৩ সালে ইউরোপিয়ান জার্নাল অব নিউট্রিশনে প্রকাশিত এক তথ্য থেকে জানা যায়, কাঁচা গাজরের থেকে সিদ্ধ ও রান্না করা গাজরে বেটা ক্যারোটিন বেশি থাকে।

সাইট্রাস ঘরানার ফল

লেবু, কমলালেবু, জাম্বুরা, গ্রেপফ্রুটের মাঝে লালচে গ্রেপফ্রুট থেকে সবচেয়ে বেশি বেটা ক্যারোটিন পাওয়া যাবে। অর্ধেক গ্রেপফ্রুট থেকেই মিলবে ৮৪৪ মাইক্রোগ্রামস বেটা ক্যারোটিন।

এদিকে মাঝারি আকৃতির একটি কমলালেবু থেকে পাওয়া যাবে ৯৩ মাইক্রোগ্রামস বেটা ক্যারোটিন এবং মাঝারি আকৃতির কমলালেবু থেকে পাওয়া যাবে ১৩৬ মাইক্রোগ্রামস বেটা ক্যারোটিন।

সজনে পাতা

ভিটামিন-সি, আয়রন, ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম ও প্রোটিনসহ সজনে পাতা থেকে পাওয়া যাবে বেটা ক্যারোটিনও। এক গ্রাম পরিমাণ ফ্রেশ সজনে পাতা থেকে পাওয়া যাবে ৬৭০০ মাইক্রোগ্রাম বেটা ক্যারোটিন।

মিষ্টি আলু

প্রতি গ্রাম মিষ্টি আলু থেকে পাওয়া যাবে ২২৬ মাইক্রোগ্রাম বেটা ক্যারোটিন। কিছু ক্ষেত্রে গাজরের চাইতে বেশি পরিমাণ বেটা ক্যারোটিন পাওয়া যায় মিষ্টি আলু থেকে।

ফুড ক্যামিস্ট্রি নামক জার্নালে প্রকাশিত তথ্য থেকে জানা যায়, ফ্রেশ মিষ্টি আলু গ্রহণে শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় পর্যাপ্ত বেটা ক্যারোটিন পাওয়া সম্ভব।

কচু শাক

কচু শাক থেকে শুধু আয়রন নয়, পাওয়া যাবে শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় বেটা ক্যারোটিনও। ১৯৯৯ সালে দ্য জার্নাল অব নিউট্রিশনে প্রকাশিত তথ্যানুসারে রান্না বা সিদ্ধ কচু শাকের চাইতে কাঁচা কচু শাক থেকে বেশি পরিমাণ বেটা ক্যারোটিন পাওয়া যাবে। এ কারণে কচু শাকের স্মুদি বা সালাদ খাওয়া সবচেয়ে বেশি উপকারী।

এছাড়াও বেটা ক্যারোটিন পাওয়া যাবে মটরশুঁটি, পেঁয়াজ, অরিগানো, প্যাপরিকা, ব্রকলি, বাঁধাকপি ও অ্যাসপ্যারাগাস থেকেও।

আরও পড়ুন: খোসাসহ নাকি খোসাবিহীন কাঠবাদাম?

আরও পড়ুন: ধমনির সুস্থতায় উপকারী ৯ খাবার

আপনার মতামত লিখুন :