সেই বৃদ্ধার ঠাঁই হলো বৃদ্ধাশ্রমে



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, সিরাজগঞ্জ
৭৫ বছর বয়সী বৃদ্ধা মা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

৭৫ বছর বয়সী বৃদ্ধা মা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলায় অসুস্থ বৃদ্ধা মাকে মাজারে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় সন্তানরা। টানা ৫ দিন মাজারে পড়ে থাকার পর গত ১১ অক্টোবর সকালে মানবতার ফেরিওয়ালা হিসেবে পরিচিত মামুন বিশ্বাস তাকে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। চিকিৎসা শেষে বর্তমানে তাকে ঢাকার একটি বৃদ্ধাশ্রমে আনা হয়েছে।

জানা গেছে, সোমবার (১৪ অক্টোবর) বেলা ১২টার দিকে ঢাকার ‘চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড কেয়ার হাউজ’ নামের একটি বৃদ্ধাশ্রমের প্রতিনিধিদের কাছে ওই বৃদ্ধাকে হস্তান্তর করা হয়। সিরাজগঞ্জ থেকে ওই বৃদ্ধাকে অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নিয়ে যান বৃদ্ধাশ্রমের স্বত্বাধিকারী মিল্টন সমাদ্দার।

জানা গেছে, গত ৫ অক্টোবর অসুস্থ ওই বৃদ্ধাকে (৭৫) হযরত শাহ হাবিবুল্লাহ (রহ.) মাজারে ফেলে যান সন্তানরা। পরে তাকে কেউ নিতে না আসায় এলাকাবাসী তাকে সেখানের একটি ঘরের বারান্দায় রেখে যান। পরে বিষয়টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘দি বার্ড সেফটি হাউজ’র চেয়ারম্যান মামুন বিশ্বাসের নজরে এলে তিনি বৃদ্ধাকে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

মামুন বিশ্বাস জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) সঙ্গে কথা বলে মাজারের মোতওয়াল্লীর হেফাজতে ওই বৃদ্ধাকে রাখা হয়। কিন্তু তিনি তার সন্তানদের নাম-পরিচয় বলতে পারছেন না। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে ওই বৃদ্ধা সুস্থ আছেন।

চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড কেয়ার হাউজের প্রতিষ্ঠাতা মিল্টন সমাদ্দার জানান, গণমাধ্যম থেকে ওই বৃদ্ধার বিষয়টি জানতে পারেন। পরে মামুন বিশ্বাসের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাকে ঢাকায় আনা হয়েছে। বৃদ্ধাশ্রমে আরও ৬১ জন আছেন। তাদের সঙ্গে ওই বৃদ্ধাকেও খাদ্য, আবাসন ও চিকিৎসা দেওয়া হবে। তবে যদি কখনও তার স্বজনদের সন্ধান পাওয়া যায় তাহলে তাদের হাতে তুলে দেওয়া হবে।