ভারতে পাচার ১০ শিশু-কিশোরীকে ফেরত



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বেনাপোল (যশোর)
পাচার হওয়া শিশু, কিশোরীরা, ছবি: বার্তা২৪.কম

পাচার হওয়া শিশু, কিশোরীরা, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

পাচার হওয়া ১০ শিশু, কিশোরীকে ৩ বছর পর বাংলাদেশে ফেরত পাঠিয়েছে ভারতীয় পুলিশ।

সোমবার (২ মার্চ) বিকেল ৫টায় ট্রাভেল পারমিটে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ সদস্যরা তাদেরকে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।

ওই ১০ শিশু-কিশোরী হলো- ঢাকার হাজারীবাগের ফাতেমা আক্তার (১২), শরীয়তপুরের রেশমা কামরু খান (১৬), মাগুরার বর্ষা রাণী বিশ্বাস (১৭), খুলনার অথই বিনতে হেনা (১৪), রাজিয়া সুলতানা (১৫) ও হোসনে আরা বেগম (১৩), বগুড়ার ঋতুপর্ণা (১১), বাগেরহাটের জান্নাতুল ফেরদৌস (১০), শরীফা খাতুন (১৪) ও হবিগঞ্জের তানজিলা আক্তার (১৫)।

পুলিশ জানায়, ভালো কাজের প্রলোভন দেখিয়ে পাচারকারীরা এদের সীমান্ত পথে ভারতে নিয়ে যায়। এ সময় অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে ভারতীয় পুলিশ তাদের আটক করে আদালতে পাঠায়। পরে বেঙ্গলরের তালাস ও বোম্বায়ের নবজীবন নামে দুটি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের হেফাজতে রাখে। পরে দু-দেশের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের যোগাযোগের মাধ্যমে ট্রাভেল পারমিট আইনে তারা দেশে ফেরে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, ফেরত আসা শিশু, কিশোরীদের মধ্যে ৮ জনকে জাস্টিজ অ্যান্ড কেয়ার ও দুইজনকে রাইটস যশোর গ্রহণ করেছে। তাদের পরিবারের কাছে পৌঁছে দেয়া হবে।

জাস্টিজ অ্যান্ড কেয়ারের সিনিয়র প্রোগ্রামার অফিসার এবিএম মুহিত হোসেন জানান, ফেরত আসা কিশোরীরা নিকটতম স্বজনদের মাধ্যমে পাচারের শিকার হয়। কিশোরীদের পরিবার যদি তাদের শনাক্ত করে মামলা করতে চায়, তবে তাদের আইনি সহায়তা দেয়া হবে।