মুজিব বর্ষের প্রথম দিনে দুর্যোগ সহনীয় ঘর পেলেন হতদরিদ্ররা



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
মুজিব বর্ষের প্রথম দিনে দুর্যোগ সহনীয় ঘর পেলেন হতদরিদ্ররা

মুজিব বর্ষের প্রথম দিনে দুর্যোগ সহনীয় ঘর পেলেন হতদরিদ্ররা

  • Font increase
  • Font Decrease

শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে হতদরিদ্র, অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা ও যাদের জমি আছে ঘর নাই এমন ১২ জনকে দেয়া হচ্ছে দূর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ।

মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) দুপুরে আশুগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় টিআর/কাবিটার কর্মসূচির আওতায় ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের অধীনে এই বাসগৃহ নির্মাণ করা হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় মুজিব বর্ষের প্রথম দিনে আশুগঞ্জের ৫ জনকে এই দূর্যোগ সহনীয় বাসগৃহের চাবি হস্থান্তর করা হয়েছে। আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নাজিমুল হায়দার ৫ উপকারভোগীর কাছে বাসগৃহের চাবি আনুষ্ঠানিকভাবে হস্থান্তর করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নাজিমুল হায়দার বার্তা২৪.কমকে জানান, টিআর/কাবিটার কর্মসূচির আওতায় ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের অধীনে উপজেলায় মোট ১২ টি দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ নির্মাণ করা হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় আজ ৫ জনকে তাদের ঘরের চাবি হস্তান্তর করা হয়েছে। প্রতিটি ঘরের নির্মাণ ব্যয় হচ্ছে দুই লাখ ৯৯ হাজার ৮৬০ টাকা। বাকি ঘরের কাজ চলমান আছে খুব শিগগিরই কাজ শেষ করে ঘরগুলোর চাবি দরিদ্রদের হাতে হস্থান্তর করা হবে।

উপকারভোগী উপজেলার আড়াইসিধা গ্রামের আব্দুল গফুর মিয়া বার্তা২৪.কমা জানান, মুজিব বর্ষের প্রথমদিনে ইউএনও আমাদের হাতে দুর্যোগ সহনীয় ঘরের চাবি তুলে দিয়েছেন। এতে আমরা খুবই খুশি হয়েছি। আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই।

এদিকে আশুগঞ্জ উপজেলার চাতাল শ্রমিকদের সন্তানদের লেখাপড়ার জন্য তৈরি করা দুটি ডে-কেয়ার সেন্টারের ২১৯ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে স্কুল ব্যাগ, মিষ্টি ও নাস্তা বিতরণ করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নাজিমুল হায়দার।