পুঁজিবাজারে ১০ হাজার কোটি টাকার ফান্ড আবেদন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

পুঁজিবাজারের আস্থা ও তারল্য সংকট দূর করতে ১০ হাজার কোটি টাকার ফান্ড চেয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগকে চিঠি দিয়েছে ব্যাংকের সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রধান নির্বাহী অফিসাররা (সিইও)।

বুধবার (৪ ডিসেম্বর) ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব আসাদুল ইসলামের কাছে লিখিত প্রস্তাব পাঠিয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকের সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠানগুলোর সিইওরা।

ইবিএল সিকিউরিটিজের সিইও সাইদুর রহমান বিষয়টি বার্তা২৪.কমকে নিশ্চিত করে বলেন, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের জন্য ১০ হাজার কোটি টাকার ফান্ডের জন্য অনুরোধ করে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, পুঁজিবাজারে তারল্য সংকট নিরসেনর জন্য একটি তহবিল প্রয়োজন। এই তহবিলের আকার হতে পারে ১০ হাজার কোটি টাকা। তহবিলের মেয়াদ হবে ৬ বছর। প্রস্তাবিত সুদের হার ৩ শতাংশ। প্রথম ২ বছর হবে গ্রেস পিরিয়ড। এ সময়ে তহবিল থেকে প্রাপ্ত অর্থ ফেরত দিতে হবে না। পরবর্তী চার বছরে তা সুদ-আসলে ফেরত দেওয়া হবে।

প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে, শুধু সেকেন্ডারি বাজারে বিনিয়োগের জন্য এই তহবিল থেকে ঋণ সুবিধা দেওয়া হবে। আর এই সুবিধা ব্রোকারহাউজ, মার্চেন্ট ব্যাংকসহ সব মধ্যবর্তী প্রতিষ্ঠানের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

উল্লেখ্য চলতি বছরের ২৭ জানুয়ারির পর থেকে দেশের পুঁজিবাজারে থেমে থেমে চলছে দরপতন। আর তাতে দেশি-বিদেশি, বড়-ছোট, ব্যক্তি ও প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের অন্তত ৬০ হাজার কোটি টাকার পুঁজি অর্থাৎ মূলধন কমেছে। ব্যবসা হারিয়ে ব্রোকারেজ হাউজগুলো হাজার হাজার কর্মকর্তা কর্মচারীদের চাকরিচ্যুত করেছে।

আপনার মতামত লিখুন :

এ সম্পর্কিত আরও খবর