শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন সু চি



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মিয়ানমারের ক্ষমতাচ্যুত গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী অং সান সু চি শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছেন দেশটির জান্তা সরকারের মুখপাত্র জ মিন তুন।

রয়টার্সকে তিনি বলেন, ‘আমি যত দূর জানি, তিনি শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন। আমরা আগে তার থাকার জন্য যে ব্যবস্থা করেছিলাম, সেখানেই তিনি আছেন।’

সামরিক হেফাজতে বন্দী শান্তিতে নোবেলজয়ী সু চির ৭৯তম জন্মবার্ষিকীর এক দিন পরে বৃহস্পতিবার (২০ জুন) জান্তা সরকারের মুখপাত্র এ তথ্য জানান।

২০২১ সালে এক সামরিক অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত হন সু চি। পরে তাকে বন্দী করে দেশটির সেনাবাহিনী।

রাষ্ট্রদ্রোহ, ঘুষ কেলেঙ্কারি, আইন লঙ্ঘনসহ বিভিন্ন অভিযোগের মামলায় সু চিকে ২৭ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে; যদিও এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তিনি।

সু চির এই বিচারের নিন্দা জানিয়েছে অধিকার গোষ্ঠীগুলো। তারা বলছে, এটা সু চিকে রাজনীতি থেকে দূরে সরিয়ে রাখার কৌশল।

এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, সু চিকে দেশটির রাজধানী নেপিডোতে সেনানির্মিত একটি বিশেষ কারাগারে রাখা হয়েছে।

কিন্তু, তাকে ঠিক কোথায় রাখা হয়েছে এ বিষয়ে কিছুই জানাননি জান্তা মুখপাত্র।

নেপিডোতে তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছার পরিপ্রেক্ষিতে গত এপ্রিলে জান্তা সরকার বলেছিল, সু চিকে প্রয়োজনীয় সেবা দেওয়া হচ্ছে।

মিয়ানমারে বিপুল জনপ্রিয় সু চিকে অভ্যুত্থানের পর থেকে আর জনসমক্ষে আনা হয়নি। কেবল আদালতে বিচারকাজ চলার সময় তার কিছু ছবি রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ করা হয়েছে।

স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছিল, কয়েক মাসব্যাপী বিচারকাজ চলার সময় দাঁতে সংক্রমণের কারণে সু চির মাথাব্যথা ও বমি হয়েছিল। এমনকি মাঝেমধ্যে তিনি খেতে পারেননি।

সু চির ছেলে কিম আরিস গত বুধবার এএফপিকে বলেন, তিনি তার মায়ের বয়স ও শারীরিক অবস্থার কারণে বেশ উদ্বিগ্ন।

ইউক্রেনের ড্রোন হামলায় রাশিয়ার তেলের ডিপোতে আগুন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ইউক্রেনের ড্রোন হামলায় রাশিয়ার তেলের ডিপোতে আগুন/ ছবি: সংগৃহীত

ইউক্রেনের ড্রোন হামলায় রাশিয়ার তেলের ডিপোতে আগুন/ ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাশিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় রোস্তভ অঞ্চলে একটি তেল ডিপোতে ড্রোন হামলা চালিয়েছে ইউক্রেন। এতে ওই ডিপোতে আগুন লেগে যায়।

শনিবার (১৩ জুলাই) ভোরে এ ঘটনা ঘটে বলে জানায় বার্তা সংস্থা এপি।

স্থানীয় কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এপি জানায়, ইউক্রেনের সর্বশেষ ড্রোন হামলায় রাশিয়ার একটি তেলের ডিপোতে আগুনে লেগেছে।

রোস্তভের আঞ্চলিক গভর্নর ভ্যাসিলি গোলুবেভ বলেছেন, ড্রোন হামলাটির কারণে ২০০ বর্গ মিটারের (২১০০ বর্গফুট) বিস্তৃত এলাকাটিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। তবে কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

টেলিগ্রামে তিনি বলেন, প্রায় পাঁচ ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নেভাতে সক্ষম হয়েছে দমকল বাহিনীরা।

এলাকাটি যুদ্ধের ফ্রন্ট লাইন থেকে কয়েকশ’ কিলোমিটার দূরে।

এদিকে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ঘোষণা করেছে, তার বাহিনী চারটি ইউক্রেনীয় ড্রোন ভূপাতিত করেছে। এর দুটি রোস্তভ, একটি ইউক্রেন সংলগ্ন বেলগোরোড অঞ্চলে এবং আরেকটি আরো উত্তরে কুরস্কে।

;

গাজার ৭০ হাজারের বেশি মানুষ হেপাটাইটিসে আক্রান্ত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গত বছরের ৭ অক্টোবর থেকে ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের হামলা চলমান রয়েছে। এতে প্রতিনিয়ত বাড়ছে ফিলিস্তিনিদের নিহতের সংখ্যা। এর অংশ হিসেবে দেশটির গাজা উপত্যকা থেকে বাস্তুচ্যুত হচ্ছেন হাজারো মানুষ। চরম সংকট দেখা দিয়েছে চিকিৎসা সরঞ্জামাদিসহ খাবার পানীয়র। 

এর মধ্যে নতুন উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে হেপাটাইটিস ভাইরাস।

গাজার সরকারি মিডিয়া অফিস বলছে, যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে গাজা উপত্যকার বিভিন্ন অংশে বাস্তুচ্যুত হওয়ার কারণে হেপাটাইটিসে ৭১ হাজার ৩৩৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

শনিবার (১৩ জুলাই) কাতার ভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

আল জাজিরা জানায়, এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, ১ দশমিক ৭ মিলিয়নেরও (১৭ লাখ) বেশি ফিলিস্তিনি জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুতির ফলে এ ভাইরাসে সংক্রমণ হয়েছে।

ওই রিপোর্টে সর্তক দিয়ে আরও বলা হয়েছে, ইসরায়েলি সেনাবাহিনী প্রয়োজনীয় ওষুধের গাড়ি প্রবেশে বাধা দেওয়ার কারণে গাজায় দীর্ঘস্থায়ী রোগে আক্রান্ত প্রায় ৩ লাখ ৫০ হাজার বাসিন্দা বড় ঝুঁকির মুখোমুখি রয়েছে।

উল্লেখ্য, এ হামলায় এখন পর্যন্ত ৩৮ হাজার ৩৪৫ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে বেশি সংখ্যকই শিশু ও নারী। আহতের সংখ্যা ৮৮ হাজার ছাড়িয়েছে। অন্যদিকে হামাসের নেতৃত্বাধীন হামলায় ইসরায়েলে মৃতের সংখ্যা এক হাজার ১৩৯ জনে পৌঁছেছে এবং কয়েক শ' ইসরায়েলি এখনও হামাসের হাতে জিম্মি অবস্থায় রয়েছে।

;

সিরিয়ায় ইসরায়েলের হামলার নিন্দা জানিয়েছে রাশিয়ার



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত, সিরিয়ায় ইসরায়েলের হামলার নিন্দা জানিয়েছে রাশিয়া। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জাখারোভামুখপাত্র

ছবি: সংগৃহীত, সিরিয়ায় ইসরায়েলের হামলার নিন্দা জানিয়েছে রাশিয়া। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জাখারোভামুখপাত্র

  • Font increase
  • Font Decrease

সিরিয়ায় ইসরায়েলের হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে রাশিয়া। রাশিয়া বলেছে, সিরিয়ায় ইসরায়েলের হামলা এ অঞ্চলে উত্তেজনা বাড়াবে যা, অতি বিপজ্জনক হয়ে দাঁড়াতে পারে।

শনিবার (১৩ জুলাই) সিরিয়ার বার্তাসংস্থা সানা’র বরাত দিয়ে ইরানের সংবাদমাধ্যম মেহর নিউজ এ খবর জানায়।

খবরে বলা হয়, রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জাখারোভা শুক্রবার সাংবাদিকদের কাছে এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

জাখারোভা সিরিয়ায় ইসরায়েলের হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেন, ভূমধ্যসাগরের উপকূল শহর বানিয়াসে ইসরায়েল হামলা করেছে। এর তীব্র নিন্দা জানাই।

তিনি বলেন, সোমবার কোনোধরনের পূর্ব সতর্কতা ছাড়াই বানিয়াসে আকাশপথে হামলা করেছে। এটি আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন। আমরা এই দায়িত্বজ্ঞানহীন কাজের তীব্র নিন্দা জানাই এবং এটাও বলতে চাই, এ ধরনের হামলার কারণে মধ্য-পূর্ব অঞ্চলে যুদ্ধ আরো বিস্তার লাভ করতে পারে। এ ঘটনা এ অঞ্চলকে খুবই বিপদের মুখোমুখি দাঁড় করাতে পারে।

এসময় রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তেল আবিবের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ইসরায়েলের এধরনের অতি বিপজ্জনক সহিংসতা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।

সিরিয়ার সেনাবাহিনীর বরাত দিয়ে দেশটির বার্তাসংস্থা সানা জানায়, ভূমধ্য সাগরের উপকূল শহর বানিয়াসে আকাশ পথে হামলা করেছে। এতে হতাহতে ঘটনা ঘটেছে।

;

ফিলিস্তিনিদের জন্য সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তহবিল রয়েছে: জাতিসংঘ



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ফিলিস্তিনিদের জন্য সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তহবিল রয়েছে: জাতিসংঘ/ ছবিঃ সংগৃহীত

ফিলিস্তিনিদের জন্য সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তহবিল রয়েছে: জাতিসংঘ/ ছবিঃ সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গাজায় যুদ্ধ বিধ্বস্তদের সহায়তার জন্য সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত কাজ চালিয়ে যাওয়ার জন্য যথেষ্ট তহবিল রয়েছে বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘ প্রধান আন্তোনিও গুতেরেস।

গতকাল শুক্রবার (১২ জুলাই) সংস্থাটির প্রধান একটি দাতা সম্মেলনে বলেছেন, ফিলিস্তিনে জাতিসংঘের ত্রাণ ও শরণার্থী সংস্থার (ইউএনআরডব্লিউএ) কাছে যে পরিমাণ তহবিল রয়েছে তা দিয়ে আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্য করা যাবে। কিন্তু এরপর আমাদেরকে অন্য কিছু ভাবতে হবে। তাই দাতাগোষ্ঠীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

শনিবার (১৩ জুলাই) বার্তা সংস্থা এপির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।   

ওই সম্মেলনে ইউএনআরডব্লিউএ প্রধান ফিলিপ লাজারিনি বলেছেন, ইউএনআরডব্লিউএ-এর কিছু সংখ্যক কর্মচারী হামাসের হামলায় অংশ নেওয়ার ব্যাপারে জানুয়ারিতে ইসরায়েলি অভিযোগের পর বেশ কয়েকটি দেশ অর্থায়ন বন্ধ করে দেওয়ার ঘটনায় ‘আমরা এজেন্সির উপর আস্থা ফিরিয়ে আনতে অংশীদারদের সাথে অক্লান্ত পরিশ্রম করেছি’।

লাজারিনি বলেছেন, তহবিলের নতুন প্রতিশ্রুতি সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জরুরি কার্যক্রম নিশ্চিত করতে সহায়তা করবে।

গুতেরেস ইউএনআরডব্লিউএ’র সহায়তা না পেলে ফিলিস্তিনিরা একটি ‘গুরুত্বপূর্ণ লাইফলাইন’ হারাবে বলে সতর্ক করে দিয়ে ইউএন এজেন্সিকে তহবিল দেওয়ার জন্য দাতাদের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, গাজায় উদ্বাস্তুদের জন্য ইউএনআরডব্লিউএ’র এর কোন বিকল্প নেই। যুদ্ধে ইউএনআরডব্লিউএ’র ১৯৫ জন কর্মী নিহত হয়েছে। যা জাতিসংঘের ইতিহাসে কর্মীদের জন্য সর্বোচ্চ মৃত্যুর সংখ্যা।

মার্কিন কংগ্রেস ইউএনআরডব্লিউএ এর জন্য আরও অর্থায়নে বাধা দিয়েছে। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন ফিলিস্তিনি বেসামরিকদের সহায়তায় ইউএনআরডব্লিউএর পরিবর্তে অন্যান্য সংস্থায় তহবিল দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে বলেছে, ইউএনআরডব্লিউএ সাহায্য বিতরণের জন্য স্বতন্ত্রভাবে সক্ষম।

উল্লেখ্য, হামাস শাসিত গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, ইসরায়েলের হামলায় গাজায় কমপক্ষে ৩৮ হাজার ৩৪৫ জন নিহত হয়েছে। এদের বেশিরভাগই নারী ও শিশু।

;