কওমি মাদরাসা খুলে দেওয়ায় সরকারকে ধন্যবাদ: মুফতি ফয়জুল করীম



ইসলাম ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মজলিসে আমেলার সভা, ছবি: সংগৃহীত

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মজলিসে আমেলার সভা, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

কওমি মাদরাসাগুলো খুলে দেওয়ায় সরকারকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই।

সোমবার (২৪ আগস্ট) বিকেলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মজলিসে আমেলার সভায় বক্তব্যের সময় তিনি কওমি মাদরাসা খুলে দেওয়ায় সরকারের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

মজলিসে আমেলার সভায় মুফতি ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই দেশের সার্বিক পরিস্থিতিতে গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, দেশের সম্পদ লুটেপুটে খেতেই সরকার অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে আছে। ফরিদপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতির দুই হাজার কোটি টাকা পাচার তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ।

তিনি বলেন, সরকারের সবগুলো সেক্টর দুর্নীতির আখড়ায় পরিণত হয়েছে। অপরদিকে সরকার দলীয় নেতাকর্মীরা দেশের সম্পদ লুটেপুটে খাচ্ছে। এই লুটেরাদের হাত থেকে দেশকে রক্ষায় দেশপ্রেমিক শক্তিগুলোকে এগিয়ে আসতে হবে।

সভায় উপস্থিত ছিলেন মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমদ, আলহাজ খন্দকার গোলাম মাওলা, রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, যুগ্ম-মহাসচিব অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, সহকারী মহাসচিব আলহাজ আমিনুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রকৌশলী আশরাফুল আলম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক কে এম আতিকুর রহমান, প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমাদ আবদুল কাইয়ূুম, সহ-প্রচার সম্পাদক মুফতি দেলোয়ার হোসেন সাকী, দফতর সম্পাদক মাওলানা লোকমান হোসেন জাফরী, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুফতি হেমায়েতুল্লাহ, সহ-প্রশিক্ষণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শেখ ফজলে বারী মাসউদ, শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা মুহাম্মদ নেছার উদ্দিন, সমাজকল্যাণ সম্পাদক প্রকৌশলী শরীফুল ইসলাম, কৃষি ও শ্রমবিষয়ক সম্পাদক আলহাজ আব্দুর রহমান, আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট লুৎফর রহমান, সহ-আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট শওকত আলী হাওলাদার, সহ-প্রশিক্ষণ সম্পাদক মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ আবুল কাশেম, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক জিএম রুহুল আমিন, সংখ্যালঘু বিষয়ক সম্পাদক বরকত উল্লাহ লতিফ, কেন্দ্রীয় সদস্য মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, মাওলানা মকবুল হোসেন, মাওলানা কেফায়েতুল্লহ কাশফী, মাওলানা খলিলুর রহমান ও আলহাজ সেলিম মাহমুদ প্রমুখ।

সভায় দেশের চলমান পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে বেশকিছু সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।