করোনা: খুতবায় বিশেষ আলোচনা ও দোয়ার আহ্বান

ইসলাম ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ, ছবি: সংগৃহীত

বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের ছোবল থেকে রক্ষা পেতে জুমার খুতবায় বিশেষ আলোচনা ও দোয়ার আহবান জানিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ ও সমমনা ইসলামি দলগুলো।

বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের সহকারী পরিচালক (জনসংযোগ) মুহাম্মদ নিজামউদ্দিন ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী স্বাক্ষরিত পৃথক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ আহ্বান জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে শুক্রবার জুমার খুতবায় করোনায় করণীয় বিষয়ে আলোচনা এবং জুমার নামাজের পর সারাদেশের মসজিদে বিশেষ মোনাজাতের আহ্বান জানানোর পাশাপাশি বলা হয়- চীন, ইতালি, ইরানসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাস মহামারি আকার ধারণ করেছে। বাংলাদেশে তিনজন আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ প্রেক্ষাপটে অনেকে গুজব, আতঙ্ক ও বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। জনমনে ভীতির সঞ্চার হচ্ছে। এ পটভূমিতে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিসহ সমগ্র মানবজাতিকে করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষা, নিরাপদ ও সতর্ক করার লক্ষ্যে ইসলামের আলোকে করণীয় ও বর্জনীয় বিষয়গুলো জুমার খুতবায় দেশের সকল মসজিদে আলোচনার জন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে আক্রান্ত ব্যক্তির মসজিদে আগমন ও জনসমাগম পরিহার করার বিষয়টি ইসলামের দৃষ্টিতে জুমার খুতবায় তুলে ধরার পাশাপাশি করোনাভাইরাস থেকে হেফাজতের জন্য মহান আল্লাহর দয়া, ক্ষমা ও করুণা প্রার্থনা করে বিশেষ দোয়া করার অনুরোধ করা হয়।

আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী স্বাক্ষরিত অন্য একটি বিজ্ঞপ্তিতে মসজিদের ইমাম-খতিব, সমমনা ইসলামি দলসমূহের নেতাকর্মী এবং দেশবাসীর প্রতি আহবান জানিয়ে বলা হয়, সারাদেশের মসজিদে মসজিদে জুমার নামাজের পর এ দোয়া অনুষ্ঠিত হবে। কেন্দ্রীয়ভাবে বাদ আসর বায়তুল মোকাররম মসজিদ চত্বরে বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের প্রকোপ বাড়ছে। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। বুধবার (১১ মার্চ) প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসকে বৈশ্বিক মহামারি ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বিশ্বে এখন পর্যন্ত ১ লাখ ২৬ হাজার ৩শ’ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে এবং ৪ হাজার ৬৩৩ জনের প্রাণহানি ঘটেছে।

এছাড়া এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত ৬৮ হাজার ২৮৫ জন চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বিশ্বের ১২৪টি দেশ ও অঞ্চলে করোনার প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে। শুধুমাত্র চীনের মূল ভূখণ্ডেই করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ হাজার ৭৯৬ এবং মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ১৬৯ জনের।

আপনার মতামত লিখুন :