জাতীয় সংসদে মোনাজাত, করোনা মুক্তির ফরিয়াদ



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
জাতীয় সংসদে মোনাজাত করছেন সংসদ সদস্য হাফেজ রুহুল আমিন মাদানী, ছবি: সংগৃহীত

জাতীয় সংসদে মোনাজাত করছেন সংসদ সদস্য হাফেজ রুহুল আমিন মাদানী, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বব্যাপী প্রাণঘাতি করোনা মহামারি থেকে মুক্তি পেতে মহান সৃষ্টিকর্তা আল্লাহতায়ালার কাছে ফরিয়াদ করলেন জাতীয় সংসদ সদস্যরা। করোনাকে ‘আজাব-গজব’ আখ্যা দিয়ে হৃদয়গ্রাহী মোনাজাত পরিচালনা করেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সংসদ সদস্য হাফেজ রুহুল আমিন মাদানী।

করোনা মহামারির হাত থেকে বাংলাদেশসহ বিশ্ববাসীকে রক্ষা করতে আল্লাহর কাছে মিনতি করেন সংসদ সদস্যরা।

বুধবার (১০ জুন) বিকেলে একাদশ জাতীয় সংসদের ৮ম অধিবেশনে ঢাকা-৫ আসনের প্রয়াত সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান মোল্লার মৃত্যুতে আলোচনা শেষে দোয়া করতে গিয়ে এভাবেই আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সংসদ সদস্য হাফেজ রুহুল আমিন মাদানী।

মোনাজাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ মন্ত্রিসভার সদস্য, চীফ হুইপ, হুইপ, উপস্থিত সংসদ সদস্যরা অংশ নেন। মোনাজাতে সরকার প্রধানসহ অন্যরা কাতরকণ্ঠে ‘আমিন’ ‘আমিন’ বলেন।

হাফেজ রুহুল আমিন মাদানী মোনাজাতে বলেন, হে আল্লাহ! আন্তরিকভাবে আপনার দরবারে ক্ষমা চাচ্ছি, তওবা করছি। আমরা অতীতে যে সব খারাপ কাজ করেছিলাম, যার কারণে আপনি অসন্তুষ্ট হয়ে গেছেন, আমাদের ওপর মহামারি পাঠিয়েছেন। হে আল্লাহ! আপনার দরবারে আন্তরিকতা নিয়ে আমরা তওবা করছি। হে আল্লাহ! আমাদের ক্ষমা করে দিন। রাব্বুল আলামিন, আমরা আপনার বান্দা। রাব্বুল আলামিন, আপনি আমাদের সৃষ্টি করেছেন। কোরআনে কারিমে আপনি বলেছেন, ইয়া ইবাদি, আমরা আপনার বান্দা। হে আল্লাহ! আমরা আপনার বান্দা, আপনার সৃষ্টি; আমাদের আজাব-গজব দিয়ে ধ্বংস করবেন না। রাব্বুল আলামিন আজাব-গজব দিয়ে ধ্বংস করবেন না।

মোনাজাতে তিনি বলেন, আমরা আপনার প্রিয় নবীর উম্মত। যেকোনো উসিলায় আমাদের মাফ করে দিন। আমাদের ওপর থেকে গজব উঠিয়ে নিয়ে যান। আমাদের ওপর থেকে গজব উঠিয়ে নিন। যারা করোনাভাইরাসে মারা গেছে তাদের শহীদি মর্যাদা দান করুন। আমাদের প্রতি দয়া করুন, আমরা আপনার করুণা চাই, গজবে আমাদের নিরাপত্তা দান করুন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া চেয়ে বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে হেফাজত করুন। তাকে হায়াতে তাইয়্যিবা দান করুন। সুস্থতা দান করুন। তিনি অত্যন্ত খোদাভীরু, আপনাকে ডাকেন, জনগণকে নিয়ে চিন্তা করেন, তাকে সুস্থ রাখুন।

উল্লেখ্য, সংসদ অধিবেশনের শুরুর দিন শোক প্রস্তাবের পর মোনাজাতের রেওয়াজ রয়েছে। সংসদ সদস্যদের মধ্যে একেক সময় একেকজন মোনাজাত করেন। তবে অন্য দিনের তুলনায় বুধবারের মোনাজাতটি ছিল বেশি ভাবগাম্বীর্যপূর্ণ। উপস্থিত সংসদ সদস্যদের কাতর হয়ে মোনাজাতে অংশ নিতে দেখা গেছে। অনেককে মোনাজাতের সময় কাঁদতেও দেখা গেছে।