‘শেষ বিদায়ের বন্ধু’র উদ্যোগে দোয়া ও কোরআন খতম



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
শেষ বিদায়ের বন্ধুর উদ্যোগে দোয়া ও কোরআন খতম, ছবি: সংগৃহীত

শেষ বিদায়ের বন্ধুর উদ্যোগে দোয়া ও কোরআন খতম, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশ-বিদেশে অবস্থানরত মিরসরাইবাসীসহ মানবজাতির সুস্থতা ও করোনা থেকে মুক্তি কামনা করে কোরআন খতম এবং বিশেষ দোয়া করা হয়েছে।

শুক্রবার (১২ জুন) মিরসরাই উপজেলার প্রতিটি মসজিদে দোয়া দিবস ঘোষণা করে মিরসরাইয়ে করোনাকালীন মৃত মানুষের দাফন-কাফনের জন্য প্রতিষ্ঠিত অরাজনৈতিক অলাভজনক সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘শেষ বিদায়ের বন্ধু।’

এ উপলক্ষে সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয় ওয়ারলেস দারুল উলুম মাদরাসায় জুমার নামাজ শেষে দেশ বিদেশের সকল মিরসরাইবাসী ও মানবজাতির মুক্তি কামনা করে দোয়া করা হয়।

দোয়া পরিচালনা করেন সংগঠনের সমন্বয়কারী ও প্রধান সমন্বয়কারী হাফেজ মাওলানা শোয়াইব। শুক্রবার জুমার নামাজের পর সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয়ে আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য আলহাজ এমরান উদ্দিন।

প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য এস এ ফারুক। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কাস্টমস কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম চৌধুরী।

আরও বক্তব্য রাখেন এরাদুল হক ভুট্টো, আলহাজ নিজাম উদ্দিন, হাফেজ মাওলানা শোয়াইব ও ছলিম উল্লাহ।

সভায় করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার গল্প বলেন লায়ন এম এম ইউসুফ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন প্রধান সমন্বয়কারী সাংবাদিক নুরুল আলম।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আলহাজ এমরান উদ্দিন বলেন, করোনাকালীন সময়ে প্রতিষ্ঠিত শেষ বিদায়ের বন্ধু সংগঠন মিরসরাইবাসীকে কলঙ্কমুক্ত করেছেন তার জন্য সংগঠনের সকল সদস্যকে ধন্যবাদ জানিয়ে সবার সুস্বাস্থ্য এবং দীর্ঘায়ু কামনা করেন।

প্রধান আলোচক এস এ ফারুক বলেন, শেষ বিদায়ের বন্ধু সংগঠন অল্প সময়ের মধ্যে সেবা দিয়ে দেশে-বিদেশে মানুষের হৃদয়ে জয় করেছে। এ সংগঠন এখন মিরসরাইবাসীর আশা-ভরসার ঠিকানা। এ পর্যন্ত সংগঠনটি ১৫ জনের দাফন-কাফন সম্পন্ন করে নজির স্থাপন করেছে।