পুদিনা পাতার স্বাস্থ্য সুবিধা



লাইফস্টাইল ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ওষধি গুণাবলীর  কারণে পুদিনা পাতা বহুল জনপ্রিয়। ছবি: সংগৃহীত

ওষধি গুণাবলীর কারণে পুদিনা পাতা বহুল জনপ্রিয়। ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ওষধি গুণাবলীর  কারণে পুদিনা পাতা বহুল জনপ্রিয়।  এটি প্রাচীনকাল থেকে রন্ধন উপকরণগুলোর মধ্যে একটি। পুদিনা পাতায় বহু ওষধি গুণাবলী ও পলিফেনলের সমৃদ্ধ উৎস রয়েছে। এতে কারমিনিটিভ এবং এন্টিস্পাসমডিক বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এটিতে খুব অল্প পরিমাণে প্রোটিন, ক্যালরি এবং ফ্যাট থাকে। এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, সি এবং বি-কমপ্লেক্স থাকে যা ত্বকের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। পুদিনার আরেকটি পুষ্টিকর সুবিধা হলো এটি আয়রন, পটাসিয়াম এবং ম্যাঙ্গানিজ সমৃদ্ধ যা হিমোগ্লোবিন বাড়ায় এবং মস্তিষ্কের কার্যকারিতা উন্নত করে। জেনে নিন পুদিনা পাতার ১০ টি স্বাস্থ্য উপকারিতা।

হজমে সহায়তা করে

পুদিনা অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস, মেন্থল এবং ফাইটোনিট্রিয়েন্ট সমৃদ্ধ যা এনজাইমের মাধ্যমে খাদ্য হজমে সহায়তা করে। পুদিনার শক্তিশালী অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল এবং এন্টিসেপটিক বৈশিষ্ঠ্য পেটের অ্যাসিডিটি এবং পেট ফাঁপা রোধে সহায়তা করে।

হাঁপানির চিকিৎসায়

নিয়মিত পুদিনা পাতা খেলে বুকে রক্তজমাট বাঁধে না। পুদিনায় থাকা মিথেনল ডিকনজেস্ট্যান্ট হিসাবে কাজ করে। এটি ফুসফুসে থাকা শ্লেষ্মা আলগা করতে সহায়তা করে এবং নাকে ফোলা ঝিল্লি সংকুচিত করে যাতে শ্বাস নেয়া সহজ হয়।

মাথাব্যথা নিরাময় করে

পুদিনায় মেনথল রয়েছে যা পেশী শিথিল করতে এবং ব্যথা উপশম করতে সহায়তা করে। কপাল এবং মাথায় পুদিনার রস প্রয়োগ করলে মাথা ব্যথার হাত থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এছাড়াও পুদিনা তেল মাথা ব্যথা নিরাময়ে কার্যকর।

মানসিক চাপ ও হতাশা দূর করে

পুদিনার অন্যতম প্রধান সুবিধা হলো এটি অ্যারোমাথেরাপির ক্ষেত্রে বহুল ব্যবহৃত ওষধি। পুদিনার শক্তিশালী সতেজ গন্ধ রয়েছে যা শরীর ও মনকে চাপ থেকে স্বস্তি দিতে পারে। পুদিনার অ্যাপোপজেনিক ক্রিয়াকলাপ রক্তের কর্টিসল স্তরকে নিয়ন্ত্রণ করতে সহায়তা করে যা স্ট্রেস রিলিজ করে।

ত্বককে স্বাস্থ্যকর করে তোলে

পুদিনায় অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য যা ত্বকে ব্রণ এবং পিম্পল দূর করে। পুদিনা পাতায় প্রচুর পরিমাণে স্যালিসিলিক অ্যাসিড থাকে যা অ্যান্টি-পিম্পল হিসেবে কাজ করে। এটি ত্বক পরিস্কারক হিসাবেও কাজ করে। পুদিনার অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট বৈশিষ্ট্য শরীর থেকে ফ্রি-রেডিক্যাল সরিয়ে পরিষ্কার ও উজ্বল ত্বক পেতে সহায়তা করে। এছাড়াও এটি ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখে, ত্বকের মৃত কোষ দূর করে এবং ত্বকের ছিদ্র থেকে ময়লা ফেলে ত্বককে উজ্জ্বল এবং প্রাণবন্ত দেখায়।