পণ্যবাহী ট্রাকের চাপ কমেনি পাটুরিয়া ঘাটে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, মানিকগঞ্জ
পণ্যবাহী ট্রাকের চাপ কমেনি পাটুরিয়া ঘাটে

পণ্যবাহী ট্রাকের চাপ কমেনি পাটুরিয়া ঘাটে

  • Font increase
  • Font Decrease

সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে অপেক্ষামাণ পণ্যবাহী ট্রাকের সংখ্যা বাড়ছে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটের পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায়। আধা ঘণ্টার নৌরুট পারাপারের জন্য ট্রাক চালকদেরকে অপেক্ষা করতে হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ ঘণ্টা।

দীর্ঘ সময় অপেক্ষায় থেকে সীমাহীন ভোগান্তিতে রয়েছে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রায় ২১টি জেলার চার শতাধিক ট্রাক চালক ও শ্রমিকেরা। প্রায় এক মাস যাবৎ এই ভোগান্তি চলমান থাকলেও সহসাই ট্রাক চালকদের দুর্ভোগ কমে যাওয়ার সম্ভাবনা নেই বলে জানান ফেরিঘাট কর্তৃপক্ষ।

বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত নৌরুটের পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকার টার্মিনালে নৌরুট পারাপারের জন্য অপেক্ষামাণ রয়েছে তিন শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক। এছাড়াও টার্মিনালে ট্রাকের জায়গা সংকটের কারণে মহাসড়কের উথুলী এলাকায় ঘাটমুখী শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক আটকে রেখেছে শিবালয় থানা পুলিশ।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন করপোরেশন আরিচা কার্যালয়ের বাণিজ্য বিভাগের সহকারী ব্যবস্থাপক মহিউদ্দিন রাসেল বার্তা২৪.কম-কে বলেন, নৌরুটে চলমান ফেরির চেয়ে ঘাট এলাকায় আগত যানবাহনের চাপ বেশি থাকার কারণে পণ্যবাহী ট্রাক চালকদের ভোগান্তি বাড়ছে।

এছাড়া নৌরুটের চলমান ১৬টি ফেরির মধ্যে ছোট ফেরি মাধুবীলতা ও বনলতা পাটুরিয়া ঘাটের ভাসমান মেরামত কারখানা মধুমতিতে রয়েছে। ফেরি দুটি সচল হলে ট্রাক চালকদের ভোগান্তি কিছুটা কমলেও পুরোপুরি লাঘবের সুযোগ নেই বলে জানান তিনি।

মহাসড়কের উথুলী এলাকায় ঘাটমুখী শতাধিক সাধারণ পণ্যবাহী ট্রাক আটকে রাখা হয়েছে বলে জানান শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ কবির। পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকার টার্মিনালে অপেক্ষামাণ ট্রাকের সংখ্যা কমে আসলে উথুলী থেকে সিরিয়াল অনুযায়ী কিছু কিছু করে ট্রাক ঘাটে পাঠানো হবে বলে জানান তিনি।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন করপোরেশন আরিচা কার্যালয়ের ডিজিএম জিল্লুর রহমান বলেন, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে সীমিতভাবে ফেরি চলাচল করছে। এতে করে ওই নৌরুটের ট্রাকগুলো পাটুরিয়া ফেরিঘাট হয়ে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে যাতায়াত করছে। এতে করে ভোগান্তি বাড়ছে পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায়।

এছাড়াও নৌরুটে ছোট দুইটি ফেরি বিকল থাকায় যানবাহন পারাপার ব্যাহত হচ্ছে। যাত্রী ভোগান্তির বিষয়টি বিবেচনা করে বাস, ব্যক্তিগত ছোট ও জরুরি পণ্যবাহী ট্রাক পারাপার করা হচ্ছে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে। যে কারণে সাধারণ পণ্যবাহী ট্রাক চালকেরা অধিক দুর্ভোগে পড়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।