খুলনার ৪ হাসপাতালে ১৬ জনের প্রাণহা‌নি

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, খুলনা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

খুলনার চারটি হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্তে ও উপসর্গে ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (২৮ জুলাই) সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সকাল সাড়ে ৮টা পর্যন্ত চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়। এর মধ্যে খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে করোনা আক্রান্তে ৭ জন, শহীদ শেখ আবু নাসের হাসপাতালের করোনা ইউনিটে তিনজন, খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে একজন এবং গাজী মেডিকেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। বেসরকারি সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে টানা তিনদিন কোনো রোগীর মৃত্যু হয়নি। গতকাল বুধবার খুলনাতে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছিল। গত ৯ জুলাই ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছিল; যা ছিল এ পর্যন্ত খুলনায় সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড।

খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের ফোকাল পার্সন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তিরা হলেন- খুলনা বটিয়াঘাটার বিরাটের মো. ইয়ুব আলী (৫০), নগরীর সোনাডাঙ্গার আ. খালেক (৯০), নিরালার আব্দুল হাই (৭৫), খালিশপুরের ইরিন সুলতানা (৩৩), একই এলাকার আবুল হোসেন (৬৬), দৌলতপুরের মো. আলী আকবর (৬৫) এবং পিরোজপুর মঠবাড়িয়ার মোশাররফ হোসেন (৯৫)। এ হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১২৬ জন। যার মধ্যে রেড জোনে ৪৬ জন, ইয়ালো জোনে ৪৮ জন, আইসিইউতে ২০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ২৬ জন। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২১ জন।

খুলনার শহীদ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. প্রকাশ দেবনাথ জানিয়েছেন, গত ২৪ ঘণ্টায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তিরা হলেন- খুলনার বটিয়াঘাটার বুজবুনিয়া গ্রামের আলেয়া বেগম (৫৫), রূপসা উপজেলার করিমনগর এলাকার আবদুল আজিজ (৮০) এবং নগরীর ডালমিল মোড় ময়লাপোতা এলাকার রোকেয়া বেগম (৬০)। হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন ৪২ জন। তার মধ্যে আইসিইউতে রয়েছে ১০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৭ জন রোগী ভর্তি হয়। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩ জন।

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের ৮০ শয্যার করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে একজন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তি হলেন, খুলনার ডুমুরিয়ার আসমা বেগম (৪০)। চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৪০ জন, তার মধ্যে ২০ জন পুরুষ। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৯ জন, আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৮ জন।

সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে টানা তিনদিন কোন রোগীর মৃত্যু হয়নি। বেসরকারি এ হাসপাতালটির ৯০ শয্যার করোনা ইউনিটে ৬১ জন ভর্তি রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৫ জন আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৯ জন। আইসিইউতে ভর্তি রয়েছেন ১০ জন।

গাজী মেডিকেল হাসপাতালের স্বত্বাধিকারী ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তিরা হলেন- খুলনার ১৫৯ পূর্ব বানিয়াখামার এলাকার মো. মকবুল হোসেন খান (৬৫), দক্ষিণ টুটপাড়ার রেজিনা ফাতিমা (২৮), যশোর কারবালা বামনপাড়ার মর্জিনা রহমান (৫৮), ঝিকরগাছার গদখালী এলাকার মিসেস বারিছুন্নেসা (৬০) এবং চুয়াডাঙ্গার আলমনগরের গোকুলখালীর রহিমা খাতুন (৫৫)। বেসরকারি এ হাসপাতালের চিকিৎসাধীন রয়েছেন আরও ৭৫ জন। গতকাল আরটিপিসিআর ল্যাবে ২৯ জনের নুমনা পরীক্ষায় ১২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এছাড়া খুলনার যে কয়‌টি হাসপাতালে করোনা চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে, তার মোট শয্যা সংখ্যা ৫৬২টি। এসব হাসপাতালে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৩৪৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন ৬৬ জন; আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫৩ জন ।

উল্লেখ্য, বুধবার খুমেক আরটি-পিসিআর ল্যাবে ৩১১টি নমুনার মধ্যে খুলনার ২৭৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে ১০২ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে খুলনার ৯২, বাগেরহাটের ৫, সাতক্ষীরার ১, যশোরের ৩ ও বরিশালের একজনের করোনা শনাক্ত হয়।

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস