সামাজিক দূরত্ব মানতে বলায় সংঘর্ষ, আহত ৩

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধেছে

সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধেছে

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে বলাকে কেন্দ্র করে রংপুরে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় তিনজন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর।

শুক্রবার (১০ এপ্রিল) দুপুরে রংপুর নগরের নূরপুর মহাদেবপুর ও রবার্টসনগঞ্জ এলাকায় এ সংঘর্ষ হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে নগরের বরার্টসনগঞ্জ এলাকার স’মিলের সামনের একটি দোকানের সামনে নূরপুর মহাদেবপুর এলাকায় বেশ কয়েকজন যুবক আড্ডা দিতে সমবেত হন। তাদের মধ্যে সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব না থাকায় দোকানদার ও অন্যান্যরা তাদের সেখান থেকে দূরে সরে যেতে বলেন।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন ওই যুবকরা। এক পর্যায়ে বিপ্লব, রুমন, শরিফুল, মহিদুল ও সুমন স্থানীয়দের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জাড়িয়ে পড়েন এবং হাতাহাতিতে লিপ্ত হন।

এ খবর জানাজানি হলে দুই গ্রামের অধিবাসীরা লাঠিসোঁটা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। সংঘর্ষে বরার্টসনগঞ্জ এলাকার এরশাদুল হক (৪৫), হিরা লাল (৬০) ও শামছুল হক (৬৫) আহত হন। এদের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর বলে জানা গেছে।

খবর পেয়ে পুলিশ-র্যাবসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে ছুটে যান। উভয় গ্রামের লোকজনদের শান্ত করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

বর্তমানে সেখানে পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন রংপুর মেট্রোপলিটন কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুর রশিদ।

তিনি জানান, উভয় পক্ষের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি থেকে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। এতে দুই-তিনজন সামান্য আঘাত পেয়েছেন। তবে কারো অবস্থা আশঙ্কাজনক নয়। উভয় পক্ষ বসে ঘটনার মীমাংসা করবেন বলেও জানান ওসি।

আপনার মতামত লিখুন :

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস